• সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শ্রীবরদীতে নানা আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন নালিতাবাড়ীতে পুলিশের আনন্দ উৎসব উদযাপন নালিতাবাড়ীতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন শাকিবের নতুন লুক নজর কাড়ল সিনেমাপ্রেমীদের ঝিনাইগাতীতে পুলিশের উদ্যোগে ৭ মার্চ উদযাপন ৭ মার্চ উদযাপন ও উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে সুপারিশপ্রাপ্তিতে শ্রীবরদীতে পুলিশের আনন্দ উৎসব জামালপুরে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি শেরপুরে ৭ মার্চ উদযাপন উপলক্ষে পুলিশের আনন্দ উৎসব রমজানে বাজার স্বাভাবিক রাখতে ২৫ হাজার মেট্রিক টন ভোজ্য তেল আমদানি করা হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন ৯ ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠান
/ Uncategorized

উন্নয়ন-অগ্রগতিতে ঝালকাঠি পৌরসভা দেশের সেরা নির্বাচিত

প্রতিবেদকের নাম / ৩৯১ বার পঠিত
প্রকাশকাল : শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৩

Poura Bhaban_Jhalakathiএইচ.এম নাসির উদ্দিন আকাশ, ঝালকাঠি : ঝালকাঠি পৌরসভা ইউজিআইআইপি প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নে সারা দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছে। তাই দঞ্চিণাঞ্চলের মডেল হিসেবে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছে ঝালকাঠি পৌরসভা।
স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমে ইতিমধ্যেই শ্রীলংকার একটি টিম পৌরসভাটির ওইসব উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিদর্শন করেছে। পৌরসভাটিকে আরও আধুনিকায়ন করতে মেয়র আফজাল হোসেনকে দু’বার ইউরোপ সফরে পাঠানো হয়েছে। ২০১১ সালের মে মাসে নির্বাচনে জয়ী হয়ে আফজাল হোসেন রানা মেয়র হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর অক্টোবর পর্যন্ত বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে ২৯ কোটি ৪১ লাখ ৩০ হাজার ৯শ ৫৪ টাকা ব্যয় করেন। ঝালকাঠি পৌরসভার উপ-সহকারি প্রকৌশলী কাজী মহসীন রেজা জানান, উল্লেখিত সময়ে ইউজিআইপি-২ প্রকল্পের ১৮টি রাস্থার উন্নয়নে ব্যয় হয়েছে ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ৬২ হাজার ৫শ ৯১ টাকা। ১০টি সড়কের ড্রেন নির্মানে ব্যয় হয়েছে ৪ কোটি ৫৪ লাখ ৩ হাজার ২৫ টাকা। ৫টি ট্রান্সফরমার স্টেশন ও ১টি কিচেন মার্কেট নির্মানে ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ২৫ লাখ ৩৫ হাজার ৩শ ৬২ টাকা। পৌরসভার নিজস্ব তহবিল যা এডিপি ও রাজস্ব থেকে বাস্তবায়িত ৬৬টি সড়ক উন্নয়ন, ঘাটলা, পার্ক ও কালভার্ট নির্মানে ব্যায় হয়েছে ৫ কোটি ২৭ লাখ ৬ হাজার ৬শ ৫৯ টাকা। এছাড়া ইউজিপ-২ প্রকল্পের বস্তি উন্নয়নে বস্তির ১হাজার ৬শ ৬৬ মিটার সড়ক, ৯শ ৫ মিটার ড্রেন, ১৯টি ডিপ টিউবয়েল, ১শ ১৮টি টয়লেট ও ১২ টি ডাষ্টবিন নির্মানে ব্যায় হয়েছে ৭২ লাখ ৫৬ হাজার ৭১ টাকা। ৩৭ জেলা পানি সরবরাহ প্রকল্পে ০৬ কিঃমিঃ লাইন পূন: স্থাপন ও পূনর্বাসন, ১শটি নলকূপ স্থাপন, উৎপাদক নলকূপ ২টি, ২টি সাবমারসিবল পাম্প সরবরাহ, ৪টি পাম্প হাউস মেরামত এবং ১টি ওভার হেড ট্যাংক মেরামতে ব্যায় হয়েছে ২ কোটি ৩ লাখ ১১ হাজার ৩৭১ টাকা। এছাড়াও দুস্থদের চিকিৎসা, শিক্ষা, বিবাহ ও ভাঙ্গা ঘর মেরামত খাতে প্রায় ১ কোটি টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী আবু হানিফ বর্তমানকে জানান, আমাদের পৌরসভা সারা দেশে ইউজিআইআইপি প্রকল্পের কাজে প্রথম হয়েছে। তাই ২০১২ সনের সেপ্টেম্বর মাসে শ্রীলংকার স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের সচিব মি. আরএএকে রনওয়াক এর নেতৃত্বে ইউজিআইআইপি প্রকল্প পরিচালকসহ ১১ সদস্যের একটি টিম ঝালকাঠি পৌরসভা পরিদর্শনে আসেন। পরিদর্শন শেষে অতিথিগন তাদের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, পৌরবাসীর স্বার্থে সুপরিকল্পিত ভাবে প্রকল্প গ্রহন করে তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে একটি মডেল পৌরসভা গড়ে তোলা সম্ভব। এই পৌরসভাটি তারই একটি উদাহরন। আমরা ফিরে গিয়ে পৌরসভা সমূহের উন্নয়নে শ্রীলংকা সরকারের কাছে ঝালকাঠি পৌরসভার সফলতার এ দৃষ্টান্ত তুলে ধরব। নির্বাহী প্রকৌশলী আরো জানান, ইতিমধ্যেই ঝালকাঠি পৌরসভার উন্নয়নে ইউজিআইপি-২ প্রকল্পের অধিকাংশ কাজ সফল ভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে। এতে সন্তুষ্ট হয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় ঝালকাঠির মেয়র আফজাল হোসেনকে ইতোমধ্যেই ফ্রান্স, জার্মান, অষ্ট্রেলিয়াসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশ সফরে পাঠিয়েছে। ওইসব দেশের সিটি কর্পোরেশন গুলো পরিদর্শন করে আসায় ইতিমধ্যেই মেয়রের চিন্তাধারায় তারই বহি:প্রকাশ ঘটেছে। এর অন্যতম একটি উদাহরন পৌরবাসীর বিনোদনের জন্য সুগন্ধা তীরবর্তী পৌর মিনিপার্ক নির্মান।
মেয়র আফজাল হোসেন রানা তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, বিগত মেয়র পৌরসভার উন্নয়নে কাজ না করে লুটপাট করেছে। তাই পৌরবাসি তাকে বঞ্চিত করে আমাকে কাজ করার জন্য মেয়রের আসনে বসিয়েছে। আমি আগামি দিনের বাকি সময়গুলো এভাবেই পৌরবাসীর সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে চাই।

Print Friendly, PDF & Email


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর