ads

সোমবার , ১ জুলাই ২০২৪ | ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের জন্য ভিসানীতি আরো কঠিন করল অস্ট্রেলিয়া

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
জুলাই ১, ২০২৪ ৩:১৯ অপরাহ্ণ

নতুন নিয়ম অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়ায় পড়তে চাইলে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা ফি বাবদ ১ হাজার ৬শ অস্ট্রেলীয় ডলার (১ হাজার ৬৮ ডলার) গুনতে হবে। যার পরিমাণ আগে ছিল ৭১০ অস্ট্রেলীয় ডলার। আজ ১ জুলাই থেকে এই নতুন নিয়ম কার্যকর হচ্ছে। এক বিবৃতিতে অস্ট্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্লেয়ার ও’নিল বলেন, ‘আজ থেকে কার্যকর হচ্ছে নতুন নিয়ম।

Shamol Bangla Ads

এ নিয়ম আমাদের আন্তর্জাতিক শিক্ষা ব্যবস্থার অখণ্ডতা পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করবে। এর মধ্য দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার জন্য অপেক্ষাকৃত ভালো একটি অভিবাসন ব্যবস্থা তৈরি করা যাবে।’ ভিজিটর ভিসাধারী ও অস্থায়ী স্নাতক ভিসা রয়েছে এমন শিক্ষার্থীদের অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থানরত অবস্থায় স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

শুক্রবার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক বা বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পাওয়ার জন্য ন্যূনতম ২৯ হাজার ৭১০ অস্ট্রেলীয় ডলার থাকতে হবে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ২১ লাখ ৪৬ হাজার ৯২২ টাকা। গত সাত মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বার অর্থের পরিমাণ বাড়ানো হলো। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এই সঞ্চিত অর্থ সংক্রান্ত ব্যাংক নথি প্রদর্শন করতে হবে।

Shamol Bangla Ads

বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য অস্ট্রেলিয়া ভিসার ক্ষেত্রে সঞ্চিত অর্থের পরিমাণ ছিল ২১ হাজার ৪১ অস্ট্রেলীয় ডলার। পরে ২০২৩ অক্টোবরে তা বাড়িয়ে ২৪ হাজার ৫০৫ অস্ট্রেলীয় ডলারে উন্নীত করা হয়। ভিসা ফি বৃদ্ধির ফলে অস্ট্রেলিয়ার স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করা এখন থেকে যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডার মতো প্রতিযোগী দেশগুলোর তুলনায় অনেক বেশি ব্যয়বহুল হয়ে উঠবে। উত্তর আমেরিকার এই দুই দেশে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা ফি যথাক্রমে ১৮৫ মার্কিন ডলার এবং ১৫০ কানাডিয়ান ডলার (১১০ মার্কিন ডলার)।

২০২২-২০২৩ অর্থবছরে অস্ট্রেলিয়া সরকার এ খাত থেকে ৩ হাজার ৬৪০ কোটি অস্ট্রেলীয় ডলার সমমূল্যের অর্থ আয় করেছে। অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় রপ্তানি শিল্প খাতগুলোর একটি আন্তর্জাতিক শিক্ষা। রেকর্ড সংখ্যক অভিবাসনের লাগাম টানতে এবং এর জেরে দিন দিন আবাসন বাজারের ওপর চাপ তীব্র হতে থাকায় এই পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটি। আবাসন ব্যায় দিন দিন বাড়ায় সে দেশের নাগরিকদেরও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। সূত্র : রয়টার্স

error: কপি হবে না!