ads

রবিবার , ২৩ জুন ২০২৪ | ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শ্রীবরদীতে ইউনিক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে অফিস সহায়কের অপারেশনে রোগীর মৃত্যু

রেজাউল করিম বকুল
জুন ২৩, ২০২৪ ১:৪৫ অপরাহ্ণ

শেরপুরের শ্রীবরদী ইউনিক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে অফিস সহায়কের অপারেশনে ময়দান আলী (৫৫) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ২২ জুন শনিবার দুপুরে পৌর শহরের চাররাস্তা মোড়ে ইউনিক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। মৃত ময়দান আলী উপজেলার মামদামারী গ্রামের সুরুজ আলীর ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

Shamol Bangla Ads

মৃত ময়দান আলীর স্ত্রী মোর্শেদা বেগম জানান, এক সপ্তাহ আগে তার স্বামীর বুকের বাম পাশে ফোড়া বের হয়। গত দু”দিন আগে ফোড়ার ব্যাথা বেশি হলে তাকে শ্রীবরদী হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় দায়িত্বরত ডাক্তার তার অবস্থা আশংকাজনক দেখে তাকে শেরপুর সদর হাসপাতালে রেফার করেন। শনিবার ওই রোগীর পরীক্ষার জন্য ইউনিক ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে নিয়ে যান হাসপাতালের অফিস সহায়ক শাহিন মিয়া।

এ সময় শাহিন মিয়া তাকে অপারেশন করার জন্য ইনজেকশন দেন। এরপরেই তার শরীরে কাপন ধরে। কয়েক মিনিট পরে মারা যায় ময়দান আলী। এ সময় তার মারা যাওয়া দেখে দ্রুত এম্বুলেন্স নিয়ে অন্যত্র নেয়ার পরামর্শ দেন শাহিন মিয়া। কিন্তু ততক্ষণে মৃতের স্বজন ও অন্যরা ঘটনাস্থলে এলে বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলো শামিম ও জুয়েল।
এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের দাবি করেছেন মৃত ময়দান আলীর ছেলে রুমান হাসান বাবু।

Shamol Bangla Ads

শ্রীবরদী উপজেলা সদর হাসপাতালের আরএমও ডা, অমিও জ্যোতি সাইফুল্লাহ বলেন, ওই রোগীকে দু”দিন আগে হাসপাতালে নিয়ে আসে। রোগীর বুকের বাম পাশে ফোড়া অপারেশন করা সম্ভব হয়নি। তাই তাকে রেফার করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, শাহিন মিয়া এই হাসপাতালের একজন অফিস সহায়ক। তার অপারেশন করার কোনো অনুমতি নেই।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাইয়ুম খান সিদ্দিকী বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

error: কপি হবে না!