ads

বৃহস্পতিবার , ২৪ নভেম্বর ২০২২ | ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

নালিতাবাড়ীতে ধান ক্ষেত থেকে নারীর লাশ উদ্ধারের রহস্য উন্মোচন, গ্রেফতার ৩

অভিজিৎ সাহা, নালিতাবাড়ী
নভেম্বর ২৪, ২০২২ ৭:৪২ অপরাহ্ণ

দৈহিক সম্পর্কের পর টাকা নিয়ে ঝামেলায় খুন হন নাজমা

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় ধান ক্ষেত থেকে এক নারীর লাশ উদ্ধারের দুইদিন পর মৃত্যুরহস্য উন্মোচন করেছে পুলিশ। দৈহিক সম্পর্কের পর টাকা নিয়ে ঝামেলায় ওই নারীকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। ওই ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারেও পাঠানো হয়েছে। ২৩ নভেম্বর বুধবার রাতে নালিতাবাড়ী থানায় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) আফরোজা নাজনীন।

Shamol Bangla Ads

এর আগে গত সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার আন্ধারুপাড়া গ্রামের ধানক্ষেত থেকে নাজমা বেগম (৩৭) নামে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি উপজেলার কেন্দুয়াপাড়া গ্রামের মৃত রইজ উদ্দীনের মেয়ে। ওই ঘটনায় গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলার দুধকুড়া গ্রামের মৃত আব্বাছ আলীর ছেলের আব্দুল মালেক (৪৫), একই গ্রামের আব্দুল কাদিরের ছেলে আরিফ মিয়া (২৩) ও মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে রুবেল মিয়া (৩৫)।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন আগে স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হলে এক ছেলে ও এক মেয়েকে রেখে ঢাকায় চলে যান নাজমা বেগম। পরে কিছুদিন যাবত পার্শ্ববর্তী নকলা উপজেলায় ভাড়া বাসায় থেকে বিভিন্ন এলাকায় দেহ ব্যবসা করতেন তিনি। পরে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় অভিযুক্ত মালেক, আরিফ ও রুবেল ৩ হাজার টাকা চুক্তিতে দৈহিক সম্পর্ক করতে নাজমাকে নালিতাবাড়ী উপজেলার আন্ধারুপাড়া গ্রামের এক ধান ক্ষেতে নিয়ে যায়। কিন্তু মেলামেশার পর তাঁকে ১ হাজার ৫০০ টাকা দিলে বাকী টাকার জন্য নাজমার সাথে অভিযুক্তদের ধস্তাধস্তি হয়৷ একপর্যায়ে তাঁরা নাজমার গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ওই ধান ক্ষেতেই ফেলে যায়। পরে গত সোমবার পুলিশ ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে। পরে সোমবার রাতেই নিহতের ছেলে আল-আমিন (২৪) বাদী হয়ে নালিতাবাড়ী থানায় মামলা করলে পুলিশ প্রযুক্তির সহায়তায় আসামীদের শনাক্ত করে গ্রেফতার করে এবং আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়।

Shamol Bangla Ads

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) আফরোজা নাজনীন বলেন, প্রযুক্তির সহায়তায় আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে আসামি শনাক্ত করে গ্রেফতার করেছি। আসামি মালেক আদালতে জবানবন্দী দিয়ে কারাগারে আছে। অপর দুই আসামী আরিফ ও রুবেলের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে গত বুধবার বিকেলে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আসামিদের মাধ্যমে আমরা আরোও কিছু ভ্রাম্যমাণ মহিলার (দেহব্যবসায়ী) সন্ধান পেয়েছি। তাঁদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

সর্বশেষ - ব্রেকিং নিউজ

error: কপি হবে না!