ads

সোমবার , ৩১ অক্টোবর ২০২২ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শেরপুরের জীবন যুদ্ধে জয়ী রহমতুল্লা

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ৩১, ২০২২ ২:২২ অপরাহ্ণ

Shamol Bangla Ads

নাজমুল হোসাইন
শেরপুর জেলা শহরের নৌওহাটা মহল্লার মৃত সাজু মিয়া ছেলে রহমতুল্লা (৪০) পেশায় তিনি রাজমিস্ত্রী’র সহকারি হিসেবে কাজ করতেন দীর্ঘদিন। বাপ-দাদার ভিটামাটি বলতে কিছুই ছিলো না তার। এক মাস রাজের কাজ করলে ৩-৪ মাস বেকার দিন কাটাতে হতো তার। প্রায় সারা মাস অভাব আর অনটনে পিছুই ছাড়তো না কখনো। স্ত্রী সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছিলেন তিনি।

অনেক দুঃখ কষ্ট নিয়ে কাজের সন্ধানে শহরের নারায়ণপুর এলাকার বাগবাড়ী মহল্লার বাসিন্দা এডভোকেট সুব্রত কুমার দে ভানুর সাথে দেখ হয় তার। দুঃখ কষ্টের কথা বর্ননা দিতে গিয়ে অশ্রু চোখে তার অভাব অনটনের কথা তুলে ধরলে। এডভোকেট সুব্রত কুমার দে ভানু তার নিজস্ব রাস্তার সংলগ্ন একখন্ড ভূমির উপর, সিমেন্টের খুটি,স্লাফ,রিং পাইপ,সিমেন্টের চুলা,ইত্যাদি তৈরী করে তা বিক্রয় করার পরামর্শ দেন তিনি। এর পর জীবন যুদ্ধে জয়ী রহমতুল্লা বিভিন্ন জায়গা থেকে হাওলাত স্বরুপ প্রায় ৪০ হাজার টাকা মূলধন নিয়ে এডভোকেট সুব্রত কুমার দে ভানুর পরামর্শে মেসার্স আরিফ কনষ্ট্রাকশন নামে সেনেটারীর দোকান খুলে বসে অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে অল্প সময়ের মধ্যে রহমতুল্লা একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত লাভ করেন। রহমতুল্লার হাতের তৈরি
সিমেন্টের খুটি,স্লাফ,রিং পাইপ,সিমেন্টের চুলা ইত্যাদি শেরপুর জেলা শহরসহ পাশ্ববর্তী জেলা জামালপুরে ব্যাপক সয়লাব ঘটে।
ক্ষুদ্র এ ব্যবসা থেকে ধীরে ধীরে রহমতুল্লা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি বৃহত্তর ব্যবসার রুপ নিলে তিনি জেলা শহরে শেখহাটী মহল্লায় ৩৪ শতাংশ ভূমি ক্রয়সহ তার এক ছেলে সপ্তম শ্রেণীতে পড়ে ও দ্বিতীয় ছেলে দ্বিতীয় শ্রেণীতে লেখাপড়া করছে। একমাত্র বড় মেয়ে কে বিয়ে দিয়ে সুখ শান্তি জীবনযাপন করছে জীবন যুদ্ধে জয়ী রহমতুল্লা।

error: কপি হবে না!