ads

বুধবার , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

মসিউর রহমান রাঙ্গাকে জাতীয় পা‌র্টির সব পদ থেকে অব্যাহতি

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২ ৯:১৬ অপরাহ্ণ

বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের সঙ্গে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের দ্বন্দ্বের মধ্যেই প্রেসিডিয়াম সদস্যসহ দলের সব পদ থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন মসিউর রহমান রাঙ্গা।
জিএম কাদের বলেছেন, মসিউর রহমান রাঙ্গা সংবাদমাধ্যমে যে বক্তব্য দিয়েছেন, তা দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের জন্য অবমাননাকর। তাই সবার সিদ্ধান্তে তাঁকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তবে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ পদে মসিউর রহমান রাঙ্গা বহাল থাকবেন বলে জানিয়েছেন জিএম কাদের।

Shamol Bangla Ads

রংপুর-১ আসনের এমপি এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা জানান, তিনি ৩২ বছর জাপার রাজনীতি করছেন। দলে থাকার অধিকার তাঁর রয়েছে। জিএম কাদের তাকে অগণতান্ত্রিকভাবে অব্যাহতি দিয়েছেন। এছাড়া রংপুরে জিএম কাদেরের সঙ্গে ‘দেখা’ হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মসিউর রহমান রাঙ্গা।

এরশাদ জামানাতেও দল থেকে একাধিকবার বহিষ্কার হন মসিউর রহমান রাঙ্গা। দলীয় পদ থেকে অব্যাহতিও পান। তিনবার এরশাদ তাকে দলে ফিরিয়ে নেন। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনের আগে তাঁকে জাপা মহাসচিবের পদ দেন এরশাদ। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের কাউন্সিলে মহাসচিব নির্বাচিত হন মসিউর রহমান রাঙ্গা। তবে তিন মাসের মাথায় তাকে সরিয়ে দেন জিএম কাদের।

Shamol Bangla Ads

থাইল্যান্ডে চিকিৎসাধীন জাপার প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ গত ৩১ আগস্ট চিঠি দিয়ে দলের কাউন্সিল ‘ডাকেন’। তার চিঠিকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে পরের দিন পাল্টা হিসেবে জাপার সংসদীয় দল রওশন এরশাদকে সরিয়ে জিএম কাদেরকে বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচিত করে স্পিকার ড. শিরীন শারমিনকে চিঠি দেন। মসিউর রহমান রাঙ্গা সেই চিঠিকে স্পিকারকে পৌঁছে দেন।
কিন্তু দুই সপ্তাহ না ঘুরতেই বেসুরো হন মসিউর রহমান রাঙ্গা। জিএম কাদেরকে বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার অগ্রগতি কতদূর, তা জানতে বুধবার তার স্পিকারের কার্যালয়েও যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মঙ্গলবার তিনি চিঠির শুদ্ধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন। তিনি বলেন, সংসদীয় দলের সভার আলোচ্যসূচিতে বিরোধীদলীয় নেতার নির্বাচনের বিষয়টি ছিল না। তারিখেও ভুল রয়েছে। এগুলো ঠিক করে, বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচনে পুনরায় সভা আহ্বান করার কথা বলেন। জাপা সূত্রের খবর, পক্ষ বদলে রওশন এরশাদ শিবিরে ভিড়েছেন মসিউর রহমান রাঙ্গা। সে কারণেই চিঠি দিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। সেটি আঁচ করতে পেরেই তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

জিএম কাদের বলেন, ১ সেপ্টেম্বরের সংসদীয় দলের সভার কার্যবিবরণী মসিউর রহমান রাঙ্গারই লেখা। তখন তিনি কোনো প্রশ্ন তোলেননি কেনো? হঠাৎ কেন প্রশ্ন তুলে দলের বিরুদ্ধে কথা বলতে শুরু করেছেন?
দলীয় সূত্র জানিয়েছে, জাতীয় পার্টির সঙ্গে সরকারের ‘সমঝোতা’ রক্ষার কাজটি মসিউর রহমান রাঙ্গা করেন। জাপার চেয়ারম্যান, মহাসচিবসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা গত কয়েক মাস ধরে সরকারের কড়া সমালোচক হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন। জিএম কাদেরের চেয়ে রওশন এরশাদ সরকারের আস্থাভাজন। জাপা বিরোধী দল হয়ে উঠার চেষ্টা করায়, কাউন্সিল ডাকতে রওশন এরশাদকে সমর্থন দিয়েছে সরকার।

সর্বশেষ - ব্রেকিং নিউজ

error: কপি হবে না!