ads

মঙ্গলবার , ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

যুক্তরাজ্যে জাহাজ রপ্তানি করল বাংলাদেশ

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২২ ৮:১৯ অপরাহ্ণ

যুক্তরাজ্যের এনজিয়ান শিপিং কোম্পানির কাছে ছয় হাজার ১০০ ডেডওয়েট টন ধারণ ক্ষমতা ও উচ্চ গতিসম্পন্ন মাল্টি পারপাস কন্টেইনার জাহাজ রপ্তানি করেছে দেশের অন্যতম জাহাজ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান আনন্দ শিপইয়ার্ড অ্যান্ড স্লিপওয়েজ। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে জাহাজটি হস্তান্তর উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ একটি অত্যাধুনিক জাহাজ রপ্তানি করল। জাহাজ নির্মাণের সূতিকাগার ইংল্যান্ডে জাহাজ রপ্তানি একটি বড় অর্জন। ভবিষ্যতে জাহাজ নির্মাণ শিল্প পৌঁছাবে তৈরি পোশাক শিল্পের কাছাকাছি অবস্থানে। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে এ খাত ভূমিকা রাখবে। সেলক্ষ্যে চট্টগ্রাম, মাতারবাড়ী, মংলা, পায়রাসহ সব বন্দরের সক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে। তবে সমুদ্রসীমা জয় করলেও সমুদ্র সম্পদকে এখনও কাজে লাগানো সম্ভব হয়নি বলে জানান তিনি।

Shamol Bangla Ads

অ্যাসোসিয়েশন অব এক্সপোর্ট অরিয়েনটেড শিপবিল্ডিং ইন্ডাস্ট্রিজ অব বাংলাদেশের সভাপতি ও আনন্দ শিপইয়ার্ডের চেয়ারম্যান ড. আব্দুল্লাহ বারী বলেন, ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে এ প্রতিষ্ঠান বিশ্বমানের জাহাজ নির্মাণ করছে। জাহাজ নির্মাণ শিল্প অন্যতম সম্ভাবনাময় খাত। এ শিল্পে বিভিন্ন সুবিধা দিচ্ছে সরকার। তবে দেশের সঠিক শিল্প উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় পারদর্শী কারিগর ও জনশক্তি তৈরির জন্য শিপইয়ার্ডের কোনো বিকল্প নেই।

ভালো আবহাওয়া, নদী, সমুদ্র উপকূল, বৃহৎ সমুদ্র এলাকা থাকায় এই শিল্প বাংলাদেশের জন্য একটি আশীর্বাদ মন্তব্য করে তিনি বলেন, জাহাজ রপ্তানি, পরিচালনা, ক্যাপ্টেন ও মেরিন ইঞ্জিনিয়ার, ক্রু সরবরাহ, শিপিং লাইনের জাহাজের মাধ্যমে সমুদ্র পরিবহন এবং উপকূলীয় এবং আভ্যন্তরীণ মালামাল ও যাত্রী পরিবহনের মাধ্যমে জাহাজ নির্মাণ শিল্প দেশকে বছরে ১৫ হাজার কোটি টাকা যোগান দেয়। তবে ২০৪১ সালে এর পরিমাণ লাখ কোটি টাকায় পৌঁছাবে। ভবিষ্যতে এ শিল্প সবচেয়ে বড় রপ্তানি ঝুড়িতে পরিণত হবে।

Shamol Bangla Ads

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, জাহাজটি ৩৬৪ ফুট লম্বা, প্রস্থ ৫৪ ফুট ও গভীরতা ২৭ ফুট। জাহাজটির ইঞ্জিনের ক্ষমতা ৪১৩০ হর্স পাওয়ার, গতি ১২ দশমিক ৫ নটিক্যাল মাইল। নারায়ণগঞ্জের মেঘনাঘাটে আনন্দ শিপইয়ার্ডে জাহাজটি নির্মিত হয়েছে। এটি কন্টেইনার, ভারী স্টিলের কয়েল, খাদ্যশস্য, কাঠ, পাশাপাশি বিপজ্জনক মালামাল বহন করতে পারে। বাল্টিক সমুদ্রে সম্পূর্ণ বরফ আচ্ছাদিত অবস্থায় ৪ ফুট বরফের পানিতে চলতে পারবে।

আনন্দ শিপইয়ার্ড এ পর্যন্ত দেশে-বিদেশে ৩৫৬টি জলযান সরবরাহ করেছে। প্রতিষ্ঠানটি ২০০৮ সালে ডেনমার্কে অত্যাধুনিক কন্টেইনার জাহাজ ‘স্টেলা মেরিস’ রপ্তানির মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে জাহাজ রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে পরিচিত করে। এরপর জার্মান, নরওয়ে ও মোজাম্বিকসহ বিভিন্ন দেশে জাহাজ রপ্তানি করে আসছে।
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, আনন্দ শিপইয়ার্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা বারী, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য হোসেইন আহমদ, নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর মো. নিজামুল হক প্রমুখ।

সর্বশেষ - ব্রেকিং নিউজ

error: কপি হবে না!