Top_Ads

  • রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৮:৩৪ অপরাহ্ন
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত নিউজপোর্টাল

শেরপুরে কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি অবহিতকরণে রোভিং সেমিনার

/ ১৮৩ বার পঠিত
প্রকাশকাল : সোমবার, ১৩ জুন, ২০২২

আবহাওয়ার পূর্বাভাস জানাবে বামিস পোর্টাল, কমবে ক্ষতি ও ঝুঁকি, বাড়বে উৎপাদন

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে এখন আবহাওয়ার পরিবর্তন ঘটছে। অসময়ে বৃষ্টি, বন্যা, খরা হচ্ছে। তাপমাত্রা এবং আর্দ্রতার তারতম্য ঘটছে। আর এর প্রভাব পড়ছে ফসল আবাদে। কৃষকরা যাতে আবহাওয়ার আগাম তথ্য জেনে ফসল আবাদ করতে পারেন সেজন্য কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বাস্তবায়ন করছে কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি উন্নতিকরণ প্রকল্প। এই প্রকল্পের আওতায় ইউনিয়ন পর্যায়ে বৃষ্টিপাত রেকর্ড, তাপমাত্রা ও আদ্রতার পরিমাণ জানতে আবহাওয়া বোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। তৈরী করা হয়েছে ‘বামিস পোর্টাল’ নামে ওয়েবসাইট। যে ওয়েবসাইট ব্যবহার করে কৃষকরা পরবর্তী ৭ দিনের আবহাওয়ার পূর্বাভাস ও করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। এছাড়া কৃষকের ক্ষতি ও ঝুঁকি এড়িয়ে চাষাবাদ করে লাভবান হওয়ার জন্য নানা পরামর্শ পাবেন।

Shamol Bangla Ads

১৩ জুন সোমবার কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি উন্নতিকরণ প্রকল্প ও বামিস ওয়েবসাইট সম্পর্কে কৃষকদের অবহিত করতে শেরপুরে এক রোভিং সেমিনারে ওইসব তথ্য জানানো হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর (ডিএই) আয়োজিত শেরপুর খামারবাড়ী চত্বরে অনুষ্ঠিত ওই রোভিং সেমিনারে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (উদ্যান) এমদাদুল হক।
জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ সুলতান আহমেদের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন এটিআই’র অধ্যক্ষ ড. মো. মঈন উদ্দিন, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (উদ্ভিদ সংরক্ষণ) হুমায়ুন কবির, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএআরআই) বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রুবাইয়া ইয়াসমিন, মালিঝিকান্দা ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক প্রমুখ। সেমিনারে জেলার পাঁচ উপজেলা থেকে আগত ২০০ জন কৃষক-কৃষাণী অংশগ্রহণ করেন।

প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে মূল প্রবন্ধে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ পরিচালক (উদ্যান) এমদাদুল হক বলেন, কৃষি উৎপাদন টেকসই করার লক্ষ্যে কৃষকের কাছে কৃষি আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য পৌঁছে দেওয়া। এছাড়া আবহাওয়া ও জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাবসমূহের সাথে কৃষকের খাপ খাওয়ানোর সক্ষমতা বৃদ্ধি করা। একইসাথে বৈজ্ঞানিকভাবে স্বীকৃত কৃষি-আবহাওয়া তথ্যপদ্ধতি প্রচলন করা ও যথোপযুক্ত তথ্য-উপাত্ত প্রণয়ন করা। কৃষি ক্ষেত্রে আবহাওয়া সংক্রান্ত ঝুঁকি মোকাবিলার জন্য কৃষি আবহাওয়া এবং নদ নদীর সামগ্রিক অবস্থা সম্পর্কিত তথ্যাদি কৃষকের উপযোগী ভাষায় বিভিন্ন সম্প্রসারণ পদ্ধতির মাধ্যমে কৃষকের কাছে পৌঁছে দেওয়া। কৃষি আবহাওয়া তথ্যপদ্ধতি উন্নতকরণের মাধ্যমে ডিএই’র সক্ষমতা বৃদ্ধি করা।

Shamol Bangla Ads

অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (উদ্ভিদ সংরক্ষণ) হুমায়ুন কবির বলেন, কৃষকরা আবহাওয়ার আগাম তথ্য জেনে ফসল আবাদ করার মাধ্যমে তাদের উৎপাদন খরচ যেমন কমবে, তেমনি সম্ভাব্য ক্ষতির হাত থেকে তারা রক্ষা পাবে। এখন ঘরে ঘরে স্মার্ট ফোন রয়েছে। হয় নিজের কাছে, নয়তো, ছেলে-মেয়ে নাতি-নাতনির কাছে স্মার্ট ফোন রয়েছে। এই স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে বামিস ওয়েবসাইট কিংবা অন্যান্য অ্যাপস-ওয়েব পোর্টাল থেকে কৃষকরা আবহাওয়ার আগাম তথ্য জেনে ফসল আবাদ করে কৃষকরা লাভবান হতে পারবেন।

জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ সুলতান আহমেদ বলেন, কৃষিতে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়াতে কৃষকদের সক্ষমতা তৈরীর মাধ্যমে খাপ খাইয়ে নিতে হবে। তবেই কৃষকরা উৎপাদন খরচ ও ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হতে পারবেন। কৃষিতেও এখন ডিজিটাল প্রযুক্তির সর্বোচ্চ সুবিধার ব্যবহার করতে হবে। এজন্য আমরা এ ধরনের সেমিনারের মাধ্যমে কৃষকদের অবহিতকরণ ও সচেতন করতে চেষ্টা করছি। যাতে তারা পরিবর্তিত অবস্থার সাথে তাল মেলাতে পারে।

Shamol Bangla Ads

এই বিভাগের আরও খবর

Shamol Bangla Ads

error: কপি হবে না!
error: কপি হবে না!