• শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৫:২৬ অপরাহ্ন
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত নিউজপোর্টাল
শিরোনাম :
যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও ১৭ লাখ ৯০ হাজার ডোজ ফাইজারের টিকা পেল বাংলাদেশ বাংলাদেশসহ ১৪টি দেশে ৭৫% ফ্লাইট চালু করবে ভারত পঞ্চম ধাপে ঝিনাইগাতীর ৭টিসহ ৭০৭ ইউপির নির্বাচন ৫ জানুয়ারি নকলা ও নালিতাবাড়ীর ইউপি নির্বাচনে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হচ্ছে সরঞ্জাম ঝিনাইগাতীতে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন ঝিনাইগাতীতে র‌্যাবের অভিযানে ৩৮৫ পিস ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী গ্রেফতার শিক্ষার্থীদের জন্য বিআরটিসি বাসের ভাড়া অর্ধেক হচ্ছে : সেতুমন্ত্রী দুর্দান্ত মুশফিক-লিটনে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন বাংলাদেশের সেঞ্চুরিতেই জবাব দিলেন লিটন শ্রীবরদীতে উপজেলা ও পৌর বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

নেতৃত্ব আমার রক্তে: নারী দলের অধিনায়ক জ্যোতি

/ ৪১৩ বার পঠিত
প্রকাশকাল : মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১

বাংলাদেশ নারী জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার অভিজ্ঞতায় জাহানারা আলম, সালমা খাতুন ও রুমানা আহমেদ এগিয়ে থাকলেও ওয়ানডে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের আগ মুহূর্তে হুট করে অধিনায়ক করা হয় নিগার সুলতানা জ্যোতিকে। তার অধিনায়কত্বে যেভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে, তাতে বলাই যায় ভুল সিদ্ধান্ত নেয়নি টিম ম্যানেজমেন্ট। স্বাগতিক জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করার পর বাছাই শুরু করেছে পাকিস্তানকে হারিয়ে।

Shamol Bangla Ads

শেষ ওভারে ৩ উইকেটের নাটকীয় জয়ের পর মাঠেই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে নজর কেড়েছে বাংলাদেশ। ‘আমরা করব জয়’ গান গেয়ে পাকিস্তান বধের উদযাপন করেন নিগার-সালমারা। দারুণ এই জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখে বাংলাদেশ খেলতে চায় প্রথম ওয়ানডে বিশ্বকাপ।

আইসিসির সঙ্গে এক আলাপচারিতায় এই স্বপ্নের কথা জানান নিগার। ২৪ বছর বয়সী উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান শুরুতেই ব্যাখ্যা দেন পাকিস্তান বধের পর গান গেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করার, ‘আমরা করব জয়- মানে হলো আমরা জিততে যাচ্ছি এবং আমরা জিতব। এটা আমাদের ভালো করার সাহস ও আত্মবিশ্বাস দেয়। এটা অনেক বিশেষ কিছু।’

Shamol Bangla Ads

জ্যোতি বলেন, ‘এটা ছিল দারুণ ম্যাচ। কারণ আমি এমন ম্যাচের স্বাক্ষী হতে চাই, যখনই চোখ বন্ধ করি। দারুণ শুরু হলো প্রতিযোগিতায়। আমাদের মনোযোগ এখনো বাছাইয়ে। কারণ এটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আমরা যদি বিশ্বকাপে খেলতে পারি, তাহলে আরো বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে পারব।’

হুট করে নেতৃত্ব পাওয়ায় রোমাঞ্চিত হলেও স্নায়ুচাপে ভোগেননি নিগার, ‘যখন আমি ছোট ছিলাম, তখন ক্লাসের ক্যাপ্টেন ছিলাম। আসলে নেতৃত্ব আমার রক্তে ছিল। আমার ভাইও আমাকে প্রায় সময় বলতো, তুমি একদিন ক্যাপ্টেন হবে। সে আমাকে ওভাবেই বড় করেছে। তাই আমার কখনো মনে হয়নি বড্ড আগেভাগে অধিনায়কত্ব পেয়ে গেছি।’

নিজের নেতৃত্ব নিয়ে বলেন, ‘আমি মাঝেমধ্যে মাঠে অদ্ভুত সব জিনিস করি, যা মাঝেমধ্যে কাজে লেগে যায়। একজন উইকেটকিপার ম্যাচের অবস্থা সবচেয়ে ভালো বুঝতে পারে এবং একজন অধিনায়কের দরকার গোটা মাঠ পরিষ্কারভাবে দেখতে পারা। আমি মনে করি এটাই সবচেয়ে ভালো জায়গা যেখান থেকে স্পষ্ট দেখা যায় কোথায় আপনার ফিল্ডার এবং কোন জায়গায় ফাঁকা আছে। আর এটা আমাকে ব্যাটিংয়েও অনেক আত্মবিশ্বাসী করে তোলে কারণ আমি উইকেট সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারি এবং কী হতে যাচ্ছে সেটাও বুঝতে পারি।’

এবার ইতিহাস গড়ার স্বপ্ন জ্যোতির চোখে, ‘৩ সাবেক অধিনায়ক আমাদের দলে, আমি ভাবতাম আমার সুযোগ আছে কিন্তু এখনই নয় হয়তো পরে। আমি আমার দলকে সবসময় উজ্জীবিত রাখতে চেষ্টা করি এবং বলি মুহূর্তগুলো উপভোগ করো। একটু তো রোমাঞ্চিত হয়েছিলামই, কিন্তু এখন স্বাভাবিক লাগে। এখন মনে হয় আমি যদি আমার সেরাটা খেলি এবং দলকে সঠিক রাস্তা দেখাতে পারি তাহলে এটা হবে ইতিহাস।’


এই বিভাগের আরও খবর
Shamol Bangla Ads

error: কপি হবে না!
error: কপি হবে না!