• শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৬:২৫ অপরাহ্ন
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত নিউজপোর্টাল
শিরোনাম :
যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও ১৭ লাখ ৯০ হাজার ডোজ ফাইজারের টিকা পেল বাংলাদেশ বাংলাদেশসহ ১৪টি দেশে ৭৫% ফ্লাইট চালু করবে ভারত পঞ্চম ধাপে ঝিনাইগাতীর ৭টিসহ ৭০৭ ইউপির নির্বাচন ৫ জানুয়ারি নকলা ও নালিতাবাড়ীর ইউপি নির্বাচনে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হচ্ছে সরঞ্জাম ঝিনাইগাতীতে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন ঝিনাইগাতীতে র‌্যাবের অভিযানে ৩৮৫ পিস ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী গ্রেফতার শিক্ষার্থীদের জন্য বিআরটিসি বাসের ভাড়া অর্ধেক হচ্ছে : সেতুমন্ত্রী দুর্দান্ত মুশফিক-লিটনে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন বাংলাদেশের সেঞ্চুরিতেই জবাব দিলেন লিটন শ্রীবরদীতে উপজেলা ও পৌর বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতী সীমান্তে ফের বন্যহাতির তাণ্ডব আতঙ্ক

/ ২৭৭ বার পঠিত
প্রকাশকাল : রবিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২১

জানমাল রক্ষায় নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন পাহাড়ি অধিবাসীরা

রেজাউল করিম/খোরশেদ আলম, শেরপুর : শেরপুরের শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতী সীমান্তে ফের বন্য হাতির তাণ্ডব শুরু হয়েছে। ওই দুই উপজেলার পাহাড়ি জনপদে কদিন যাবত বিচরণ করছে ওপার থেকে নেমে আসা কয়েকটি দলে বিভক্ত প্রায় শতাধিক হাতি। এতে হাতির তাণ্ডব আতঙ্কে ঘুম নেই স্থানীয় পাহাড়ি অধিবাসীদের। তারা জান-মাল রক্ষায় নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন।

Shamol Bangla Ads

জানা যায়, ভারতের সীমানাঘেঁষা শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতী উপজেলায় এমন প্রায় ২০টি গ্রাম রয়েছে, যেগুলোর চারপাশ গারো পাহাড় ঘেরা। কয়েকদিন যাবত ভারত থেকে নেমে আসা শতাধিক বন্য হাতি কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে ওইসব পাহাড়ি জনপদে বিচরণ করছে। বন্য হাতির দল সারাদিন পাহাড়ি ঝোপ-জঙ্গলে থাকলেও সন্ধ্যা হলেই নেমে আসছে লোকালয়ে। হামলা চালাচ্ছে বাড়ি-ঘরে। খেয়ে সাবাড় করছে চলতি আমন মৌসুমের আবাদ। পা দিয়ে মাড়িয়ে নষ্ট করছে বিস্তীর্ণ আবাদি জমির ফসল। আর ধ্বংস করছে সবজি ক্ষেত। তাদের প্রতিরোধ করতে গেলে শুরু হয় হাতি ও মানুষের যুদ্ধ। ঢাকঢোল পিটিয়ে, পটকা ফুটিয়ে আর মশাল জ্বালিয়ে ঠেকানো যাচ্ছে না হাতির তান্ডব। এখন ওইসব গ্রামের অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ হাতির আতঙ্কে দিন পার করছেন।

রবিবার সরেজমিনে গেলে কথা হয় শ্রীবরদী সীমান্তে নেওয়াবাড়ীর টিলা এলাকার অধিবাসী ও স্থানীয় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী নেতা ব্রতীন মারাকের সাথে। তিনি জানান, আমরা পাহাড়ে বসবাস করি। এখানকার প্রায় সবাই কৃষির ওপর নির্ভরশীল। বন্যহাতি ক্ষেতের সবজি আর ধান খেয়ে সাবাড় করছে। মাঝেমধ্যে বাড়ি-ঘরেও হামলা করছে। এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানায় পৃথকভাবে অনেকে সাধারণ ডায়েরি করেছেন। একই এলাকার কৃষক লাল চান মিয়া বলেন, কষ্ট কইরা বরবটি করছিলাম। বরবটি বিক্রি করছি। এর মধ্যেই হাতি আইয়া ভাইঙা থুইয়া গেছে। অহন ৮ কাঠা (৪০ শতাংশ) জমিতে আমন ধানের চাষ। ধানক্ষেতও পাক ধরছে। কয়দিন পরেই কাটন যাইবু। প্রায় ১৫ দিন যাবৎ হাতি ক্ষেতের পাশে পাহাড়ের ঝোপে আইছে। সন্ধ্যা অইলেই পাহাড় থাইক্যা হাতি নাইমা আয়ে। সবজি আর ধানক্ষেত খাইতাছে। পাহারা দিতাছি। এই ধানক্ষেতটাও যদি হাতি আইয়া খাইয়া যায়, অহন বউ, পোলাপান লইয়া ক্যামনে চলমু।

Shamol Bangla Ads

স্থানীয় কৃষকরা বলেন, ‘আমরা পাহাড়ের বাসিন্দা। ধান আর সবজি চাষ করি। এডা দিয়ে সংসার চলে। প্রতিবছরই ধান পাকলেই হাতি আয়ে। সবজি আর ধানক্ষেত খাইয়া যায়। মেলা ক্ষতি করতাছে। এইবারও মেলা ক্ষতি করছে। অহন বউ পোলাপান লইয়া ক্যামনে চলুম? একই কথা নেয়াবাড়ির টিলা ও পার্শ্ববর্তী মালাকোচা গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক রহুল আমীন, মজনু মিয়া, আলাল মিয়া, আশরাফুল ইসলাম, দুলাল মিয়া, শাহ আলম, হাছেন আলী, গোলাপ আলী, ফসি মিয়া, ওবায়দুল ইসলাম, আব্দুর বারিক, সাদা মিয়া, মনিরুল ইসলামসহ গারো পাহাড়ের অনেকের।
শ্রীবরদী উপজেলা সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজনের সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. কোহিনুর হোসেন বলেন, আমরা একটি বেসরকারি সংস্থার তথ্য মতে জানতে পেরেছি, এই পাহাড়ে ১৯৯৫ সাল থেকে বন্য হাতির আক্রমণ চলছে। এ পর্যন্ত প্রায় ৭০ জন মানুষ মারা গেছেন। আহত হয়েছেন শত শত। ক্ষতি হয়েছে বিস্তীর্ণ আবাদি জমির ফসল।

শ্রীবরদী উপজেলা ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান প্রাঞ্জল এম সাংমা বলেন, গারো পাহাড়ে বেশির ভাগ ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর লোকজনের বসবাস। গ্রামবাসী হাতির উপদ্রব থেকে বাঁচতে মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি পালন করেছে। তবে এখনও প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্থায়ী কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এ জন্য দিন দিন বন্য হাতির তাণ্ডবে ক্ষতির পরিমাণ বাড়ছে।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিলুফা আক্তার বলেন, আমরা বন্য হাতির হামলায় নিহত, আহত ও ঘরবাড়িসহ ফসল ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে আর্থিক সহায়তা প্রদান করে আসছি। এ ছাড়া স্থায়ীভাবে বন্য হাতির কবল থেকে রক্ষা পেতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জোরালো হস্তক্ষেপের কথা জানানো হয়েছে। খুব দ্রুতই পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


এই বিভাগের আরও খবর
Shamol Bangla Ads

error: কপি হবে না!
error: কপি হবে না!