• রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৯:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
৭০০ বছরের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো শাহজালাল মাজারের ওরস হচ্ছে না দ্রুত বর্ধনশীল উন্নতজাতের ‘সুবর্ণ রুই’ মাছের জাত উদ্ভাবন প্রেম করে বিয়ের পর স্ত্রী-শ্যালিকাকে ভারতে পাচার, ময়মনসিংহে গ্রেফতার ২ শেখ হাসিনা পরিবেশবান্ধব উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করছেন : এনামুল হক শামীম ময়মনসিংহ নগরীর মশক নিধনে খাল-ড্রেনে মশাভুক মাছ অবমুক্ত শেরপুরে ভাইকে বেঁধে রেখে বিধবা তরুণীকে গণধর্ষণ ॥ গ্রেফতার ২ ঝিনাইগাতীতে মাদকের ১০ মামলার আসামিসহ গ্রেফতার ৪ বাংলাদেশের নাটকের ইতিহাসে অপুর্ব’র অনন্য রেকর্ড ভালো জাতের আম কীভাবে চিনবেন ৩ আসনের উপনির্বাচনে নৌকার মাঝি মিন্টু-হাবিব-হাসেম

শেরপুরে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় পৌর এলাকায় ১৪ দিনের বিধিনিষেধ জারি

জুবাইদুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশকাল : শুক্রবার, ১১ জুন, ২০২১

শেরপুর জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে চলায় পৌরসভা এলাকায় নতুন বিধিনিষেধ জারি করেছে জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ১০ জুন বৃহস্পতিবার রাত ৯ টা থেকে ১১টা পর্যন্ত চলা এক জরুরি বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১১ জুন শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে ২৪ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪ দিনের কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়। বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ারও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব ও সিভিল সার্জন ডা. একেএম আনোয়ারুর রউফসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিধিনিষেধগুলো হচ্ছে- করোনায় আক্রান্তের বাড়ি পুরোপুরি লকডাউনে থাকবে। আক্রান্ত ব্যক্তি ও তার পরিবারের সদস্যরা বাড়ির বাইরে যেতে পারবেন না। সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক, বিবাহ, ধর্মীয় অনুষ্ঠান, জন্মদিন, পিকনিক স্পট, পর্যটন ও পার্কসমুহ বন্ধ থাকবে। সকাল ৭টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকানপাট খোলা রাখা যাবে। স্বাস্থ্যবিধি না মানলে ওইসব দোকানপার্ট ও শপিংমলকে বন্ধ করে দেয়া হবে।
জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ সন্ধ্যা ৭টা থেকে সকাল সাতটার মধ্যে বাড়ির বাইরে বের হতে পারবেন না। হোটেল রেস্তোরাঁয় কেউ বসে খেতে পারবেন না। শুধুমাত্র পার্সেল নিতে পারবেন। সিএনজি, অটোরিকশাসহ ক্ষুদ্র যানবাহনে দুই জনের বেশী যাত্রী ওঠানো যাবে না। যাত্রীবাহী যানবাহনে অর্ধেকের বেশি যাত্রী ওঠানো যাবে না। আর সবার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক।
জানা যায়, জেলায় গত মে মাসে ৬৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছিল। আর জুন মাসের প্রথম ১০ দিনেই ৮০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে বৃহস্পতিবার ৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এদের সবার বাড়িই শেরপুর পৌর এলাকায়। স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণেই জেলায় দ্রুত করোনা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। এতে উদ্বিগ্ন জেলার সচেতন মহল।
এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডা. একেএম আনোয়ারুর রউফ জানান, আমরা সবার সঙ্গে পরামর্শ করে কিছু বিধিনিষেধ দিয়েছি। আগামী রবিবার আবার বসব। তখন পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এই বিভাগের আরও খবর
error: বিষয়বস্তু সুরক্ষিত !!
error: বিষয়বস্তু সুরক্ষিত !!