• রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
৭০০ বছরের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো শাহজালাল মাজারের ওরস হচ্ছে না দ্রুত বর্ধনশীল উন্নতজাতের ‘সুবর্ণ রুই’ মাছের জাত উদ্ভাবন প্রেম করে বিয়ের পর স্ত্রী-শ্যালিকাকে ভারতে পাচার, ময়মনসিংহে গ্রেফতার ২ শেখ হাসিনা পরিবেশবান্ধব উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করছেন : এনামুল হক শামীম ময়মনসিংহ নগরীর মশক নিধনে খাল-ড্রেনে মশাভুক মাছ অবমুক্ত শেরপুরে ভাইকে বেঁধে রেখে বিধবা তরুণীকে গণধর্ষণ ॥ গ্রেফতার ২ ঝিনাইগাতীতে মাদকের ১০ মামলার আসামিসহ গ্রেফতার ৪ বাংলাদেশের নাটকের ইতিহাসে অপুর্ব’র অনন্য রেকর্ড ভালো জাতের আম কীভাবে চিনবেন ৩ আসনের উপনির্বাচনে নৌকার মাঝি মিন্টু-হাবিব-হাসেম

ঝিনাইগাতীতে শিশু আলী হোসেন হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার ১

খোরশেদ আলম, ঝিনাইগাতী
প্রকাশকাল : সোমবার, ১৭ মে, ২০২১

কোদালের কোপে নিহত হয় শিশু আলী হোসেন

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে ২২ মাস বয়সী শিশু আলী হোসেন হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়েছে। ওই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. ফারুক হোসেন (৩০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১৬ মে রবিবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ফারুক উপজেলার মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া (আসামপাড়া) গ্রামের মো. শামছুল হকের ছেলে। সোমবার দুপুরে ফারুককে আদালতে প্রেরণ করা হলে সে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। পরে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।
গ্রেফতারকৃত ফারুক জানায়, সে বৃহস্পতিবার বাড়ির পাশে কোদাল দিয়ে গর্ত করে গাছ লাগানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিল। ওইসময় শিশু আলী হোসেন ফারুকের পিছন দিকে তার অজান্তে এসে দাড়ালে কোদালের আঘাত লেগে শিশু আলী হোসেনের মৃত্যু হয়। পরে ফারুক হোসেন আলী হোসেনের মৃত্যুর বিষয়টি গোপন রাখতে লাশ নিয়ে বাঁশ ঝাড়ে লুকিয়ে রাখে। এরপর রাতে লাশ নিয়ে বাড়ির পাশের ডোবায় কচুরিপানার নিচে লুকিয়ে রাখে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান বলেন, ওই ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। দ্রুত সময়ে হত্যা রহস্য উদঘাটন করে মূল আসামি ফারুককে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ১৩ মে বৃহস্পতিবার সকালে মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের উত্তর বানিয়াপাড়া (আসামপাড়া) গ্রামের কাপড় ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিনের ছেলে শিশু আলী হোসেন নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। বহু খোঁজাখুঁজির পর আলী হোসেনকে না পেয়ে পিতা জসিম উদ্দিন পরদিন থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। পরে ১৫ মে শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় বানিয়াপাড়া গ্রামের একটি ডোবার কচুরিপানার নিচ থেকে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে শিশু আলী হোসেনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়। সুরতহাল রিপোর্ট ও ময়নাতদন্তে নিহত আলী হোসেনের মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। ওই সূত্র ধরে পুলিশ অনুসন্ধান ও অভিযান চালাতে থাকে। পরে রবিবার রাত ৯ টার দিকে ফারুক হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ফারুক পুলিশ ও আদালতে হত্যাকাণ্ডের ঘটনার বর্ণনা দেন।


এই বিভাগের আরও খবর
error: বিষয়বস্তু সুরক্ষিত !!
error: বিষয়বস্তু সুরক্ষিত !!