• রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
৭০০ বছরের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো শাহজালাল মাজারের ওরস হচ্ছে না দ্রুত বর্ধনশীল উন্নতজাতের ‘সুবর্ণ রুই’ মাছের জাত উদ্ভাবন প্রেম করে বিয়ের পর স্ত্রী-শ্যালিকাকে ভারতে পাচার, ময়মনসিংহে গ্রেফতার ২ শেখ হাসিনা পরিবেশবান্ধব উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করছেন : এনামুল হক শামীম ময়মনসিংহ নগরীর মশক নিধনে খাল-ড্রেনে মশাভুক মাছ অবমুক্ত শেরপুরে ভাইকে বেঁধে রেখে বিধবা তরুণীকে গণধর্ষণ ॥ গ্রেফতার ২ ঝিনাইগাতীতে মাদকের ১০ মামলার আসামিসহ গ্রেফতার ৪ বাংলাদেশের নাটকের ইতিহাসে অপুর্ব’র অনন্য রেকর্ড ভালো জাতের আম কীভাবে চিনবেন ৩ আসনের উপনির্বাচনে নৌকার মাঝি মিন্টু-হাবিব-হাসেম

নালিতাবাড়ীতে একাধিক পক্ষের দ্বন্দ্বে বিদ্যালয়ের জমি নিয়ন্ত্রণে নিলো উপজেলা প্রশাসন

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
/ ৪০০ বার পঠিত
প্রকাশকাল : সোমবার, ১৩ জুলাই, ২০২০

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) প্রতিনিধি ॥ শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় একাধিক পক্ষের দ্বন্দ্বের কারণে সংঘর্ষের আশঙ্কায় বিদ্যালয়ের জমির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। ১৩ জুলাই সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ওই সিদ্ধান্ত জানান।
জানা যায়, নালিতাবাড়ী পৌর শহরের সাহাপাড়া এলাকায় ৩ বছর যাবত পরিত্যক্ত ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান প্রসন্ন কুমার প্রিক্যাডেট স্কুলের জমি নিয়ে স্কুল কর্তপক্ষ ও এলাকাবাসীর মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। বিষয়টি নিয়ে সামাজিকভাবে সালিশ দরবার করেও সুরাহা হয়নি। ফলে তা সংর্ঘষের পর্যায়ে চলে যাচ্ছিলো। তাই দু’পক্ষের সংঘর্ষ এড়ানোর জন্য বিদ্যালয় ও দ্বন্দ্বে থাকা জমি আপাতত প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান বলেন, এটা দেবোত্তর সম্পত্তি ছিল। পরবর্তীতে এটি অর্পিত তালিকাভূক্ত হয়। এটা এক পক্ষ মালিকানা দাবি করে এবং তারা হাইকোর্টে মোভ করেছেন। আমাদের কাছে হাইকোর্টের রায় আছে এবং অন্যান্য রেকর্ডপত্রও পর্যালোচনা করছি। যেহেতু এটি একটি বিতর্কিত জায়গা। কয়েকটা পক্ষই দাবি করছে এটি সরকারি জমি। আরেকপক্ষ দাবি করছে, এটি তাদের ব্যক্তিগত জমি। এই জটিলতা থাকার কারণে আমরা আপাতত শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে আমরা সরকারি নিয়ন্ত্রণে নিচ্ছি। পরবর্তীতে রেকর্ডপত্র এবং অন্যান্য কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে সিদ্ধান্ত দিব। যার মালিকানা সঠিক হয় আমরা তার মালিকানা বুঝিয়ে দেব। আর যদি মালিকানা সঠিক না হয়, তাহলে আমরা এই সম্পত্তি সরকারের আওতায় নিয়ে নেব।
উল্লেখ্য, জমিটি কেন্দ্র করে সম্প্রতি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংবাদ সম্মেলন করেন। অপরদিকে এলাকাবাসীর পক্ষ বিদ্যালয়ের পাশে একটি বাজার ও মন্দির স্থাপন করে। এছাড়া আরেকটি পক্ষ সেই জমিটিতে মসজিদ নির্মাণের জন্য প্রশাসনের কাছে আবেদন জানায়।


এই বিভাগের আরও খবর
error: বিষয়বস্তু সুরক্ষিত !!
error: বিষয়বস্তু সুরক্ষিত !!