ads

রবিবার , ২৯ অক্টোবর ২০১৭ | ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শেরপুরে শিশু ধর্ষণ মামলায় সেই ধর্ষকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ২৯, ২০১৭ ৬:৫৯ অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরের পল্লীতে তৃতীয় শ্রেণি পড়ুয়া শিশু (১১) ধর্ষণের চাঞ্চল্যকর মামলায় একমাত্র আসামী ধর্ষক জসিম উদ্দিন (২৭) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। একদিনের পুলিশ রিমান্ড শেষে ২৯ অক্টোবর রবিবার সন্ধ্যায় ধর্ষক জসিম সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবীর তালুকদারের কাছে ওই জবানবন্দি দেয়। এর মধ্য দিয়ে প্রমাণ হলো জেলা সদর হাসপাতালের আরএমও ডাঃ নাহিদ কামাল কেয়ার বিরুদ্ধে উঠা ওই শিশুর মেডিক্যাল রিপোর্ট নেগেটিভে কারসাজির অভিযোগ।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার এসআই শুভ্র সাহা রবিবার সন্ধ্যায় আদালতে শিশু ধর্ষণ মামলায় একমাত্র আসামী জসিমের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদানের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ধর্ষিতা শিশুর মেডিকেল রিপোর্টে ধর্ষণের কোন আলামত না পাওয়ার কথা থাকলেও ধর্ষণ সংক্রান্তে প্রত্যক্ষদর্শীসহ যথেষ্ট সাক্ষ্য-প্রমাণ রয়েছে। তাই ঘটনার পরপরই জব্দ করা ধর্ষিতার পরিধেয় কাপড়-চোপড়, পায়জামা ও সালোয়ার কামিজে লেগে থাকা আলামতসহ আসামী জসিমের ডিএনএ টেস্টের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, ৬ অক্টোবর বিকেলে সদর উপজেলার চরশেরপুর ইউনিয়নের দশকাহনীয়া গ্রামের হাতু মিয়ার ছেলে ২ সন্তানের জনক জসিম উদ্দিন (২৭) স্থানীয় হতদরিদ্র তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে (১১) জোরপূর্বক একটি ধান ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। ঘটনার পর গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় ওই শিশুকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু ভর্তির পরদিনই ধর্ষিতা শিশুকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দিয়ে দেওয়ায় প্রভাবশালী মহলের যোগসাজসে আরএমও ডাঃ নাহিদ কামাল কেয়ার বিরুদ্ধে তার ডাক্তারী পরীক্ষার রিপোর্ট প্রদানে ষড়যন্ত্র ও অনিয়মের অভিযোগ উঠে।

error: কপি হবে না!