ads

বৃহস্পতিবার , ২৬ অক্টোবর ২০১৭ | ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শেরপুরে এবার কর্মকর্তাকে মারপিটের অভিযোগে জেলা পরিষদ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ২৬, ২০১৭ ৩:২২ অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরে জেলা পরিষদের সদস্য জাকারিয়া বিষুকে (৪০) লাঞ্ছিত করার অভিযোগ তুলে সাংবাদিক সম্মেলন এবং পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলনের ধারাবাহিকতায় এবার প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে কর্তব্যকাজে বাঁধা ও মারপিটের অভিযোগে পরিষদের সেই সদস্য বিষুসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে। ২৬ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বাবুল (৪৫) বাদী হয়ে সদর আমলী আদালতে ওই নালিশী মামলাটি দায়ের করলে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুর রহমান ঘটনার বিষয়ে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। মামলার অন্যান্য আসামীরা হচ্ছেন বিষুর নিজ এলাকা নবীনগরের আব্দুল্লাহ আল মাসুদ (৩৬), হাসান মিয়া (৪২), আমিনুল ইসলাম (৩৯), আব্দুল মোতালেব (৪০) ও ফোরকান আলী (৩৫)। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আদালতের ওই আদেশ থানায় পৌঁছেনি।
মামলায় অভিযোগ করা হয়, ১০ অক্টোবর দুপুর পৌণে ১টার দিকে জেলা পরিষদের সদস্য জাকারিয়া বিষু একটি প্রকল্পের আংশিক কাজ শেষ করেই সম্পূর্ণ প্রকল্পের বিল প্রদানের জন্য প্রশাসনিক কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বাবুলকে চাপ দিলে তিনি তা অস্বীকার করায় তার সাথে বাদানুবাদ হয়। এক পর্যায়ে তার ডাকে অনুসারীরা জেলা পরিষদ ভবনের দ্বিতীয় তলাস্থ প্রশাসনিক কর্মকর্তার অফিস কক্ষে প্রবেশ করে। ওইসময় তারা পিস্তল দ্বারা প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে হুমকি প্রদানসহ তাকে মারপিটে লাঞ্ছিত করে এবং তার পকেট থেকে ১০ হাজার টাকাসহ মানিব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে টেবিলের গ্লাস ভাংচুর ও ফাইলপত্র তছনছে ক্ষতি সাধন করে।
অন্যদিকে প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে মারপিটের অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা পরিষদ সদস্য জাকারিয়া বিষু দাবি করেছেন, তার উপর হামলা ও মামলার ঘটনা আড়াল করতেই ওই মামলা ঠুকে দেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, ২৪ অক্টোবর এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা পরিষদের সদস্য, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি জাকারিয়া বিষু আগেরদিন দুপুরে তাকে জেলা পরিষদে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ তুলে বিচার দাবি করেন জেলা চেয়ারম্যানসহ তার কয়েকজন স্বজনের। এরপর ২৫ অক্টোবর জেলা পরিষদের ব্যানারে আয়োজিত এক পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলনে সদস্য বিষুর অভিযোগ ‘মিথ্যাচার’ বলে দাবি করে তার নিন্দা জানানো হয়।

error: কপি হবে না!