ads

মঙ্গলবার , ৩ অক্টোবর ২০১৭ | ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের কূটনৈতিক বিজয় হয়েছে : ওবায়দুল কাদের

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ৩, ২০১৭ ৮:২৩ অপরাহ্ণ

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : রোহিঙ্গা ইস্যুতে আগের অবস্থান থেকে মিয়ানমারের সরে আসাকে বাংলাদেশের কূটনৈতিক বিজয় বলে দাবি করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ৩ অক্টোবর মঙ্গলবার সকালে কক্সবাজার শহরের হোটেল-মোটেল জোন এলাকায় আবাসিক এক হোটেলের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ওই দাবি করেন তিনি।
সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমার বাঙালি হিসেবে দাবি করত। মিয়ানমারে তাদের কোনো নাগরিকত্ব নেই। এরা সে দেশের লোক নন। আজকে মিয়ানমার সেই অবস্থান থেকে সরে এসেছে। ‘এটা কি বাংলাদেশের কূটনৈতিক বিজয় নয়; এটা কি শেখ হাসিনা সরকারের বিজয় নয়’ যোগ করেন তিনি।
তিনি বলেন, মিয়ানমার তাদের মন্ত্রী পাঠিয়েছে। কোথা থেকে তাদের আজকের অবস্থান। তারা তো বলেছিল রোহিঙ্গাদের সে দেশে নেবেই না। মিয়ানমার সেনাপ্রধান ঘোষণা দিয়েছে রোহিঙ্গারা বাঙালি। তারা সেদেশের নাগরিক নয়।
বিএনপি রাজনৈতিকভাবে একটি দেউলিয়া দল মন্তব্য করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি কী বলছে তা শুনার বিষয় নয়। তাদের তো করার কোনো শক্তি নেই, সামর্থ্য নেই। তারা তো ভাঙ্গা রেকর্ড বাজাবেই। আজকে রোহিঙ্গাদের সংকটজনক পরিস্থিতি একটি সু-ব্যবস্থাপনায় নিয়ে আসতে সরকারকে কতটা দুর্গম পথ পাড়ি দিতে হয়েছে; কতটা কূটনৈতিক উদ্যোগ নিতে হয়েছে।
বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে কাদের আরো বলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থী ব্যবস্থাপনা ও পুনর্বাসন কাজে জাতিসংঘের অংশগ্রহণ থাকলে ভালো হবে। এ ব্যাপারে আমরাই তো জোর দিয়েছি। ক্ষমতায় থাকতে তারা (বিএনপি) কি করেছেন। তাদের ইতিহাস দেখুন। তাদের ইতিহাস বড়ই অন্ধকার। এদেশকে তারা দেউলিয়ায় পরিণত করেছিলেন। সেটা তারা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি পেয়েছিলেন।
মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে সেদেশে সেফ জোন করে রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়টি আলোচনা করা হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সেফ জোনের বিষয়টি জাতিসংঘে উত্থাপিত ৫ দফা প্রস্তাবনায় রয়েছে। এ বিষয়টি দুদেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকেও আলোচনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ৫ দফা প্রস্তাবই রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনার মূল বিষয়।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৫ দফা প্রস্তাবই রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের পথরেখা বলে মন্তব্য করেন কাদের। এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল মোস্তফা এবং সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানসহ কেন্দ্রীয় ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

error: কপি হবে না!