ads

মঙ্গলবার , ৮ আগস্ট ২০১৭ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

ঝিনাইগাতীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুলছাত্রী

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
আগস্ট ৮, ২০১৭ ১২:১৮ অপরাহ্ণ

ঝিনাইগাতী (শেরপুর) প্রতিনিধি : শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রী। ৭ আগস্ট সোমবার দুপুরে উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ডেফলাই গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে।
উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঝিনাইগাতী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী লিমা আক্তারের (১৩) সঙ্গে পাশের শালচূড়া গ্রামের মো. সুরুজ আলীর ছেলে মো. নুর মোহাম্মদের (১৮) বিয়ে ঠিক করেন অভিভাবকরা। সোমবার দুপুরে কনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছিল।
বাল্যবিয়ের এ খবর জানতে পেরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ জেড এম শরীফ হোসেন দ্রুত ঘটনাস্থলে পাঠান উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা ফ্লোরা ইয়াসমিন ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোফাজ্জল হোসেন চাঁনকে। তাঁরা গিয়ে অভিভাবকদের বুঝিয়ে ওই বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেন।
এ বিষয়ে ফ্লোরা ইয়াসমিন বলেন, ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত ওই ছাত্রীকে বিয়ে দেবেন না- এমন অঙ্গীকারনামা ওই শিক্ষার্থীর মায়ের কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে। এর আগে গত ২০ জুলাই আরজিনা খাতুন (১৩) এবং ২৭ জুলাই শাপলা বেগম (১৪) নামের দুই শিক্ষার্থীর বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়েছিল।
ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এজ ডে এম শরীফ হোসেন বলেন, ‘বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত থাকবে। আমরা বাল্যবিয়ের সংবাদ পেলে সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।’

error: কপি হবে না!