ads

বৃহস্পতিবার , ২২ জুন ২০১৭ | ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

ঝিনাইগাতীতে আদিবাসী শিশু বলাৎকারকারীর শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
জুন ২২, ২০১৭ ২:২৫ অপরাহ্ণ

ঝিনাইগাতী (শেরপুর) প্রতিনিধি ॥ শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে ৪ বছরের আদিবাসী শিশুকে বলাৎকারের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত কিশোর রবিউল ইসলাম রিয়াজ (১৫) এর শাস্তির দাবিতে উপজেলা পরিষদের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২২ জুন বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) উপজেলা শাখার ব্যানারে ওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয়।
ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অংকুর মানখিনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি রনু নকরেক, শেরপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক অনিক চিরান, ময়মনসিংহ শহর শাখার আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সৌহাদ্র চিরান, উপজেলা মানবাধিকার কমিশনের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জাহিদুল হক মনির প্রমুখ। এর আগে উপজেলার ব্রিজপাড় নামক স্থান থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, ১৭ জুন শনিবার দুপুরে গজনী অবকাশের নির্জন স্থানে উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের গান্ধীগাঁও গ্রামের বাসিন্দা ও গজনী অবকাশের দোকান ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেনের ছেলে রবিউল ইসলাম রিয়াজের জঘন্য, নোংরা এবং যৌন লালসার শিকার হয় ৪ বছরের আদিবাসী ছেলে শিশু। পরে এলাকাবাসীর সহায়তায় কিশোর রিয়াজকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই ঘটনায় তীব্র নিন্দা এবং বলাৎকারকারী ফাঁসির দাবি করা হয়। সেই সাথে প্রধানমন্ত্রীর নিকট ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গজনী অবকাশ থেকে রিয়াজের বাবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান (দোকান) উচ্ছেদের জোর দাবি করা হয়।
মামলার তর্দন্ত কর্মকর্তা এসআই খোকন চন্দ্র সরকার জানান, বলাৎকারের শিকার শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। মামলার একমাত্র আসামী গ্রেফতার হয়েছে। ঘটনাটি পুলিশ গুরুত্বের সাথে তদন্ত করছে।

error: কপি হবে না!