ads

রবিবার , ৫ এপ্রিল ২০১৫ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

৪ মাস বন্ধ থাকার পর খুললো ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
এপ্রিল ৫, ২০১৫ ১০:০০ পূর্বাহ্ণ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : দীর্ঘ চার মাস বন্ধ থাকার পর শনিবার খুলেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি)। এর আগে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় খুলে দেয়া হয়েছে ইবির আবাসিক হলসমূহ। সরেজমিনে দেখা গেছে, শুক্রবার সকাল থেকেই ক্যাম্পাসে আসতে শুরু করে শিার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক ও প্রতিটি হলেই শিার্থীদের পরিচয়পত্র দেখে ঢুকতে দেয়া হয়। দীর্ঘদিন পর ক্যাম্পাস খুলে দেওয়ায় শিার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে পুরো ক্যাম্পাস চত্বর। তবে, হলগুলোতে ঢুকতে কয়েকটি শর্ত পূরণ করতে হয়েছে শিার্থীদের। শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে পরিচয়পত্র দেখানো, ব্যাগ তল্লাশি, বহিরাগত প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা ও অতিথিদের হলের ফটকে ঢুকতে না দেয়া। এ ব্যাপারে ইবির প্রক্টর প্রফেসর ড. লোকমান হাকিম জানান, যেহেতু শনিবার থেকে কাস ও পরীা নেওয়া হবে। তাই দূরদূরান্তের শিার্থীরা, বিশেষ করে ছাত্রীরা যাতে কাস ও পরীায় অংশ নিতে পারে সে জন্যে ২২৮তম জরুরি সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় সব আবাসিক হল খুলে দেওয়া হয়। এ সময় হলগুলোর প্রভোস্টরা উপস্থিত থেকে হল খুলে দেন। নাশকতা প্রতিরোধে ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শনিবার কাস-পরীা চালু ও ২০১৪-১৫ শিাবর্ষের মেধাতালিকায় উত্তীর্ণদের ভর্তির সাাৎকার শুরু হয়। তাই ২০১৪-২০১৫ শিাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষ ভর্তিচ্ছুদের আগমনে আরও বেশি মুখরিত হয়ে ওঠে ইবি ক্যাম্পাস। মেধাতালিকায় উত্তীর্ণ নীলফামারী থেকে আগত সুলতানা আরফিন নামের এক ভর্তিচ্ছু জানান, ‘কত স্বপ্ন নিয়ে এ ক্যাম্পাসে ভর্তি পরীা দিয়েছিলাম। কিন্ত আমাদের দুর্ভাগ্য ভর্তি পরীার চার মাস অতিবাহিত হলেও এখনো আমরা এখানে ভর্তি হতে পারিনি। দীর্ঘদিন পর হলেও আমাদের ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এজন্য আনন্দ লাগছে। আশা করছি দ্রুত এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিার্থী হতে পারব।’ এ ব্যাপারে ভিসি প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকার জানান, ‘আমরা অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে শিার্থীদের কল্যাণার্থে ক্যাম্পাস খুলে দিয়েছি। এই দীর্ঘ বন্ধে শিার্থীদের যে অপূরণীয় তি হয়েছে, তা পুষিয়ে নেওয়ার জন্য আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রত্যেকটি বিভাগে খোঁজ নেব এবং বিভাগীয় শিকদের অতিরিক্ত কাস নেওয়ার ব্যবস্থা করব।’ উল্লেখ্য, গত বছরের ৩০ নভেম্বর ক্যাম্পাসে বাসচাপায় ছাত্র তৌহিদুর রহমান টিটু নিহত হওয়ার পর বিুব্ধ শিার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশপাশের ৩৬টি গাড়ি পুড়িয়ে দেয় ও প্রশাসনসহ বিভিন্ন ভবনে ভাঙচুর চালায়। এ ঘটনায় ওই দিনই অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্যাম্পাস বন্ধ করে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপ। এরপর ২০দলীয় জোটের হরতাল অবরোধের কারণে টানা চার মাস বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকারের সভাপতিত্বে বুধবার তার বাসভবনে ২২৭তম সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলসমূহ খুলে দেওয়া হয় এবং শনিবার থেকে কাস-পরীা চালু হয়।

error: কপি হবে না!