ads

রবিবার , ৩১ আগস্ট ২০১৪ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

নবীগঞ্জে ফারুকী হত্যার প্রতিবাদে তালামীযের বিক্ষোভ সমাবেশ

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
আগস্ট ৩১, ২০১৪ ৮:১৭ অপরাহ্ণ
নবীগঞ্জে ফারুকী হত্যার প্রতিবাদে তালামীযের বিক্ষোভ সমাবেশ

উত্তম কুমার পার, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) : চ্যানেল আই’র জনপ্রিয় অনুষ্টান “কাফেলা ও শান্তির পথে’ উপস্থাপক,হাইকোর্ট জামে মসজিদের খতিব মাওঃ নুরুল ইসলা ফারুকী’র নৃশংষ হত্য্কাান্ডের প্রতিবাদে গতকাল শনিবার বিকালে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন বাংলাদেশ আনজুমানে তালামিযে ইসলামীয়া। মিছিল টি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন শেষে স্থানীয় নতুন বাজার মোড়ে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। উপজেলা তালামিযের সভাপতি জালাল উদ্দিন ধন মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মন্নানের পরিচালনায় সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা তালামিযের সভাপতি লিয়াকত আলী তালুকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহ-সভাপতি আব্দুল মুহিত রাসেল। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাহিদুল ইসলাম শিপন,সোহেল আহমদ,আবু সুফিয়ান,মাওঃ ইব্রাহিম ইউছুপ,মাওঃ হাফিজ সাজ্জাদুর রহমান,মাওঃ আব্দুল ছালাম,মাওঃ সাজ্জাদুর রহমান,মাওঃ ফরহাদ ছাদ উদ্দিন,সাহিদ আলম,সামছুল ইসলাম,আদিল আহমদ,আবু সাঈদ মোহাম্মদ সায়েম,মাসুম বিল¬াহ, লোকমান আহমদ ও আজহার উদ্দিন প্রমূখ। সমাবেশে বক্তাগণ মাওঃ নুরুল ইসলাম ফারুকী’র হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ঘাতকদের গ্রেফতারের দাবী জানান। অন্যতায় সারা দেশের ন্যায় নবীগঞ্জেও দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

নবীগঞ্জে চাঞ্চল্যকর অঞ্জনা হত্যা মামলা ডিবিতে : ঘাতক সজল দম্পতি দেশ ছেড়ে রয়েছে আত্মগোপনে

Shamol Bangla Ads

 

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডক্টরস কোর্য়াটারে হাসপাতালের প্রধান সহকারী সজল কান্তি দেবের বাসায় দরিদ্র পিতার গৃহকর্মী কন্যা অঞ্জনা রানী সরকারের চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলাটি হবিগঞ্জ গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) পুলিশের কাছে স্থানান্তর করা হয়েছে। নবীগঞ্জে অনুষ্টিত নাগরিক সমাজের প্রতিবাদ সমাবেশে নবাগত পুলিশ সুপারের প্রতিশ্রুতির প্রায় ১৬ ঘন্টা পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নবীগঞ্জ থানার এস আই নুর মোহাম্মদ হবিগঞ্জে গিয়ে মামলার নথিটি হস্তান্তর করেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানাগেছে। মামলাটি সহকারী পুলিশ সুপার (উত্তর) সার্কেল মোঃ নাজমুল ইসলামের তত্বাবধানে হবিগঞ্জ গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনর্চাজ আব্দুর রহমান তদন্ত করবেন। এদিকে মামলার তদন্তের দায়িত্ব গ্রহনের ১ দিনের মাথায় গতকাল শনিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং বাদী ও স্বাক্ষীদের জবানবন্দি গ্রহন করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি’র ওসি আব্দুর রহমান। তিনি জানান,ময়না তদন্ত রির্পোট অনুযায়ী অঞ্জনা আত্মহত্যা করেনি,তাকে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকান্ডের মূল রহস্য উদঘাটন ও খুনিদের অতিসত্ত্বর গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। এ ক্ষেত্রে তিনি বাদী,স্বাক্ষীসহ সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন। এছাড়া তদন্ত কর্মকর্তা হাসপাতালের বিভিন্ন র্কমকর্তা ও কর্মচারীদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে মামলার বাদী নিহত অঞ্জনার পিতা রাজেন্দ্র সরকার,ইউপি মেম্বার আব্দুল হাকিম,এম এ খালিকসহ বেশ কয়েক জন স্বাক্ষী উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারা ঘাতক সজল দেবকে দ্রুত গ্রেফতার ও ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটনের জন্য তদন্ত কর্মকর্তার নিকট দাবী জানান। এদিকে মামলার প্রধান আসামী হাসপাতালের প্রধান সহকারী সজল দেবকে ঘটনার ৩ দিনের মাঝে নবীগঞ্জ থেকে প্রত্যাহার করে আজমিরীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বদলী করা হলেও এখনো নয়া কর্মস্থলে যোগদান না করে আত্মগোপনে রয়েছে ঘাতক সজল । সজল দেবকে গ্রেফতার করলেই অঞ্জনা সরকারের হত্যার রহস্য বেরিয়ে আসবে বলে মামলার বাদী দাবি করেছেন। অপর দিকে হাসপাতালের প্রধান সহকারী সজল কান্তি দেবের বাসায় কিশোরী অঞ্জনা সরকারের হত্যাকান্ড নিয়ে নবীগঞ্জ উপজেলার সর্বত্র তোলপাড়,এমনকি খোদ হাসপাতালে নানা আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছে। উল্লেখ্য, গত ১৬ আগষ্ট সকালে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডক্টরস কোর্য়াটারের হাসপাতালের প্রধান সহকারী সজল কান্তি দেবের ড্রইং রুমের মেঝ থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় কাজের মেয়ে অঞ্জনা সরকার (১৬) এর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। সজল দম্পতি ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে দাবী করলেও নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী অঞ্জনাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে দাবী করে ঘাতক সজলকে গ্রেফতারের দাবী জানান। পুলিশ প্রথম দিকে নিহতের স্বজনদের দাবী না মেনে সজলকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়। এর প্রতিবাদে এলাকাবাসীসহ সর্বস্তরের ছাত্র-জনতা আন্দোলনে নেমে আসে। জাতীয় ও স্থানীয় পত্র পত্রিকায় ফলাও করে একাধিক সংবাদ প্রকাশ করা হয়। পরে ১৯ আগষ্ট পুলিশ নিহত অঞ্জনার পিতা রাজেন্দ্র সরকারের দায়েরী মামলা গ্রহন করে । এ মামলায় সজল দেবকে প্রধান করে তার ২ স্ত্রী ও ২ পুত্রকে আসামী করা হয়েছে। মামলার পর পর থানা পুলিশ সজলকে গ্রেফতারের জন্য দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ও গ্রেপ্তার করতে পারেনি। গোপন সুত্রে জানা যায়,সজল দেব ও পরিবারের লোকজন এ মামলা তেকে নিজেদেরকে বাচাঁতে সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে পাশ্বাবর্তী দেশ ভারতে পাড়ি জমিয়েছে। ইতিমধ্যে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট নিহত অঞ্জনার ময়না তদন্তের রিপোর্ট পৌছে গেছে। উক্ত রির্পোটে দরিদ্র কিশোরী অঞ্জনা সরকারকে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে বলে উল্লেখ রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানাগেছে।

নবীগঞ্জে ঘরে ঘরে গ্যাসের দাবীতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে প্রতিকী অনশন পালন : ২২ সেপ্টেম্বর মহা সড়ক পুনরায় অবরোধের ঘোষনা

Shamol Bangla Ads

নবীগঞ্জের ঘরে ঘরে গ্যাসের দাবীতে প্রতিকী অনশন কর্মসূচি ও সমাবেশ গতকাল শনিবার ৪টা থেকে বিকাল ৬টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়েছে। ঢাকা- সিলেট মহা সড়কের আউশকান্দি কিবরিয়া চত্ত্বরে সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে আয়োজিত অনশন কর্মসূচিতে নবীগঞ্জের সকল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন। মঞ্চে বক্তব্য রাখেন, সরকারী ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা। বিকাল সাড়ে ৫টার সময় নবীগঞ্জ বাহুবল এলাকার সংসদ সদস্য জাতীয় পাটির যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু, অনশন কর্মসূচিতে অংশ গ্রহন করে আন্দোলনের সাথে একাত্বতা প্রকাশ করে সচেতন নাগরিক সমাজের নেতৃবৃন্দকে পানি পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করেন। এর পরই শুরু হয় সমাবেশের আলোচনা পর্ব। এলাকার বিশিষ্ট মুরব্বি শাহনুর আলমের সভাপতিত্বে ও সচেতন নাগরিক সমাজের অন্যতম নেতা শিহাব আহমদ ও আব্দুল মুকিতের যৌত পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, হবিগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মহিলা অধ্যাপক নাজমা বেগম, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল, নবীগঞ্জ পৌর সভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরী, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক মন্ত্রী ফরিদ গাজীর তনয় শাহ নেওয়াজ গাজী মিলাদ, সাবেক উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান, সাবেক সাধারন সম্পাদক আবু সিদ্দিক, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক কাজী ওবাদুল কাদের হেলাল, সিনিয়র সাংবাদিক এম এ আহমদ আজাদ, সচেতন নাগরিক সমাজের সাধারন সম্পাদক ও আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মুরশেদ আহমদ, বিশিষ্ট আইনজীবি ও সমাজ সেবক দেওয়ান মিনহাজ গাজী, সচেতন নাগরিক সমাজের অন্যতম নেতা হাজী আতাউর রহমান, ডাঃ আজিজুর রহমান, মাওলানা মুস্তফা আহমদ, সাবেক এমপি খলিলুর রহমান চৌধুরী রফির তনয় মিজানুর রহমান চৌধুরী শামিম, সিলেট জেলা বারের আইনজীবি এডভোকেট আবুল ফজল, পল¬ীবিদুৎ পরিচালক শফিউল আলম হেলাল, উপজেলা জাপা নেতা মুরাদ আহমেদ, আওয়ামীলীগ নেত্রী শেখ সইফা রহমান কাকুলী, বাংলাদেশ মানবাধিকার কাউন্সিল (বামাকা) হবিগঞ্জ জেলা শাখার অন্যতম নেতা শফিকুল ইসলাম সেলিম, সৈয়দ আনহার আলী, মাওলানা আব্দুর রকিব খক্কানী, কলেজ ছাত্রদল নেতা ওলিউর রহমান,কাজী হেলিম উদ্দিন, সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যমুনা টিভির শাহ ফখরুজ্জামান, মোহনা টিভির সানু মিয়া, যুগান্তরের সরওয়ার শিকদার, নয়া দিগন্তের কিবরিয়া চৌধুরী, লোকালয় বার্তা এম মুজিবুর রহমান, সমাচার প্রতিনিধি বুলবুল আহমদ মোঃ আলী লেদু প্রতিদিনের বাণীর সুলতান মাহমুদ। সমাবেশে আল্টিমেটাম দিয়ে বলা হয় দাবী পূরণ না হলে আগামী ২২ সেপ্টেম্ববর ঢাকা- সিলেট মহা সড়ক অবরোধ করার ঘোষনা দেওয়া হয়।

নবীগঞ্জে গৃহকর্মী অঞ্জনা হত্যাকারীদের বিচারের দাবী জানিয়েছেন
উপজেলা মানবাধিকার কাউন্সিলের নেতৃবৃন্দ

নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অফিস সহকারী সজল কান্তি দেবের বাসার কাজের মেয়ে অঞ্জনা রানী সরকারতে গলাটিপে হত্যার ঘটনাটি সুষ্ট তদন্তের মাধ্যমে সঠিক বিচারের দাবী জানিয়েছেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কাউন্সিল নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ। তদন্তের মাধ্যমে অভিযুক্ত সজল দেবসহ দোষীদের সুষ্ট বিচারের দাবীতে বিবৃতি জ্ঞাপনকারীরা হলেন,সংগঠনের সভাপতি পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক তোফাজ্জল ইসলাম চৌধুরী,সহ-সভাপতি সুখেন্দু রায় বাবুল, ফখরুল আহসান চৌধুরী,কালীপদ ভট্রচার্য্য,সাধারন সম্পাদক প্রভাষক উত্তম কুমার পাল হিমেল,যুগ্ম সম্পাদক শিক্ষক জাহাঙ্গীর বখত চৌধুরী,সাংগঠনিক সম্পাদক শিক্ষক মোঃ রুবেল মিয়া,সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক আনোয়ার হোসেন,অর্থ সম্পাদক আশফাকুজ্জামান চৌধুরী, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট রাজীব কুমার দে তাপস, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ নাজিমুল ইসলাম বাবলু,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সাবেক পৌর কাউন্সিলর দেবলা রানী দাশ,শিক্ষা সম্পাদক শিক্ষক মোঃ শামীম আহমদ,প্রচার সম্পাদক সরাজ মিয়া,কৃষি সম্পাদক এলেমান আহমদ,সাংস্কৃতিক সম্পাদক লোমেশ রঞ্জন দাশ,ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ অনু আহমদ,সাহিত্য সম্পাদক সলিল বরন দাশ,নির্বহী সদস্য আলহাজ্ব সাইফুল জাহান চৌধুরী,সাবেক পৌর কাউন্সিলর ফুর্শিদা ইয়াসমিন,পবিত্র বনিক,শুভ্রাংশু রায় পিকু,শিক্ষক রথীন্দ্র চন্দ্র দাশ,শিক্ষক মোঃ আব্দুল মজিদ,শিক্ষক সমীরন দে,আকিকুর রহমান সেলিম,পিন্টু চন্দ্র রায়,শিক্ষক মাহবুব আহমদ,শিক্ষক পলাশ চন্দ্র দাশ,সাংবাদিক রাকিল হোসেন,সাংবাদিক মোঃ সেলিম তালুকদার,পৃথ্বিশ চক্রবর্তী,মোঃ আব্দুল বাছিত,মোঃ আব্দুর রহিম,শিক্ষক মৃনাল কান্তি দাশ,মোঃ রহমত আলী প্রমূখ। বিবৃতিদাতার গৃহপরিচারিকা অঞ্জনা মৃত্যুর সাথে গৃহকর্তা সজল দেবসহ যারা জড়িত রয়েছে সুষ্ট তদন্ত করে তাদেরকে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।

নবীগঞ্জে শ্রমিক দলের নেতার পিতার মৃত্যুতে কলেজ ছাত্রদলের শোক প্রকাশ

নবীগঞ্জ উপজেলা শ্রমিকদলের সহ-সভাপতি আহমদ ঠাকুর রানার পিতার মৃত্যুতে কলেজ ছাত্রদলের শোক প্রকাশ। শোক জ্ঞাপনকারীরা হলেন,নবীগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ ছাত্রদলের আহবায়ক অলিউর রহমান অলি,যুগ্ম আহবায়ক মামুনুর রশিদ মামুন,দুলাল মিয়া,জুনেদ আহমদ,কাওছার আলম প্রমূখ। শোক জ্ঞাপনকারীরা মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

সর্বশেষ - ব্রেকিং নিউজ

error: কপি হবে না!