ads

বৃহস্পতিবার , ৩১ জুলাই ২০১৪ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

গোখরা সাপের কামড়েও বেঁচে গেলেন কবিরাজ!

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
জুলাই ৩১, ২০১৪ ১:১৪ অপরাহ্ণ

Snake-1নালিতাবাড়ী (শেরপুর) প্রতিনিধি : 

Shamol Bangla Ads

গোখরা সাপের কামড়েও প্রাণে বেঁচে গেলেন কবিরাজ বাদশা মিয়া (২৮)। ৩১ জুলাই বৃহস্পতিবার শেরপুরের নালিতাবাড়ী সীমান্ত পল্লীতে ওই ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
জানা যায়, নালিতাবাড়ী উপজেলার পোড়াগাঁও ইউনিয়নের আন্ধারুপাড়া গ্রামের বাসিন্দা সেলিম মিয়ার বাড়িতে বুধবার রাত ২টার দিকে কবুতরের খোপে একটি গোখরা সাপ দেখতে পান। পরে ওই সাপটিকে মারতে গেলে বসত ঘরের মাটির দেয়ালের ফাঁকে ঢুকে পড়ে আত্মরক্ষা করে। তিনি ভোরের আলো ফুটতেই খুজতে থাকেন সাপ ধরার কবিরাজ। একপর্যায়ে খুঁজে পান বাতকুচি আমবাগান গ্রামের জাহেদ আলীর পুত্র বাদশা মিয়াকে। তবে তিনি পেশাদার সাপুড়ে, ওঝা কিংবা কবিরাজ নন। মাঝে-মধ্যে মানুষের বসত ঘরের সাপ ধরে উপকার করে থাকেন। সাপ ধরতে তিনি কোন টাকা-পয়সা নেন না। খবর পেয়ে তিনি বৃহস্পতিবার সকালে সেলিম মিয়ার বসত ঘরের মাটির দেয়াল ভেঙ্গে ৩ ফুট ৯ ইঞ্চি লম্বা একটি (কালি গোমা) গুখরা সাপ ধরেন।
প্রত্যক্ষদর্শী বুলবুল, আলমগীর, ময়না ও স্বাধীন জানান, সাপ ধরার সময় সাপুড়ে বাদশা মিয়ার ডান হাতের আঙ্গুলে একটি কামড় বসিয়ে দেয়। ওই সময় আঙ্গুল থেকে রক্ত ঝরতে থাকে। সাপুড়ে বাদশা মিয়া জানান, গোখরা সাপে কামড় দেয়ার সাথে সাথে তিনি সেলিম মিয়ার বাড়ির ৩শ গজ দক্ষিণে গণকবরস্থান ও ঈদগাঁহ মাঠ থেকে একটি গাছের শেকড় তুলে নিয়ে চিবিয়ে খান। এরপর থেকেই সাপের বিষ পানি হয়ে যায়। বর্তমানে সাপুড়ে বাদশা মিয়া সম্পুর্ণ সুস্থ্য আছেন।

সর্বশেষ - ব্রেকিং নিউজ

error: কপি হবে না!