ads

শুক্রবার , ১১ জুলাই ২০১৪ | ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

চুয়াডাঙ্গায় ভারতীয় মদ ফেনসিডিল আটক

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
জুলাই ১১, ২০১৪ ৪:৪০ অপরাহ্ণ
চুয়াডাঙ্গায় ভারতীয় মদ ফেনসিডিল আটক

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার সুলতানপুর ও কুতুবপুর সীমান্ত থেকে ১১৭ বোতল ভারতীয় মদ ও ৩০০ বোতল ফেনসিডিল আটক করেছে বিজিবি। আটককৃত মাদকের মূল্য ৩ লক্ষাধিক টাকা।

Shamol Bangla Ads

বিজিবি জানায়, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে চুয়াডাঙ্গাস্থ-৬ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে: কর্ণেল এস এম মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে মুন্সীপুর ক্যাম্পের কমান্ডার আব্দুল মতিন ও সুলতান ক্যাম্পের কমান্ডার আসাদুল করিম সঙ্গীয় ফোর্স সহ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে কুতুবপুর ও সুলতানপুর সীমান্তে অভিযান চালিয়ে ১১৭ বোতল ভারতীয় মদ ও ৩০০ বোতল ফেনসিডিল আটক করে।

জামায়াত নেতার পানবরজ কেটেছে আ.লীগ কর্মীরা

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে শত্রুতার জের ধরে জামায়াত নেতার ১৮ শতাংশ জমির পান বরজ কেটে দিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার সেনেরহুদা গ্রামের এ ঘটনা ঘটে।

Shamol Bangla Ads

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাতে উপজেলার সেনেরহুদা গ্রামের আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলীর নেতৃত্বে একই গ্রামের জামায়াত নেতা ওহিদুল ইসলামের ১৮ শতাংশ জমির পান বরজ কেটে দিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

জামায়াত নেতা ওহিদুল ইসলাম জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আলীর নেতৃত্বে পান বরজ কর্তন করা হয়।
আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আলীর সাথে বারবার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

চুয়াডাঙ্গায় বিভিন্ন মামলায় আটক ৭

চুয়াডাঙ্গা জেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যা মামলার আসামিসহ ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ ।
পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার রাশিদুল হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি বিশেষ দল অভিযান চালিয়ে দামুড়হুদা উপজেলার চন্দ্রবাস গ্রামের মোক্তার গুলির ছেলে ইব্রাহিম গুলি (৩৫), কোমরপুর গ্রামের শাহাদত মোল্লার ছেলে শফি (৪০), দক্ষিণ চাঁদপুর গ্রামের আকালউদ্দীনের ছেলে জসিম উদ্দীন (২৯), কালিয়াবকরি গ্রামের পাতার মন্ডলের ছেলে মিজানুর রহমান (৩৮) জীবননগর উপজেলার আশতলা পাড়ার আব্দুর রহমানের ছেলে রহম আলী (৪০), হাসপাতাল পাড়ার মৃত ডাক্তার তোফাজ্জেলের ছেলে আব্দুর রশিদ (৬০) ও আলমডাঙ্গা শহরের আফজাল উদ্দীনের ছেলে আব্দুস সামাদ (২৮) কে আটক করে।
সংশ্লিষ্ট থানার ওসিরা জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা, নারী নির্যাতন ও মাদকের মামলা রয়েছে।

দামুড়হুদার ৮ ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার নবগঠিত নাটুদহ ইউনিয়নসহ ৮ ইউনিয়ন বিএনপির ১১ সদস্য বিশিষ্ঠ আহবায়ক কমিটি গঠন ও নেতৃবৃন্দর নাম ঘোষনা করেছেন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মনিরুজ্জামান মনির ও যুগ্ন আহবায়ক রফিকুল হাসান তনু। বৃহস্পতিবার বেলা ৩ টার দিকে স্ব-স্ব ইউনিয়নের কমিটির নেতৃবৃন্দর হাতে উপজেলা কমিটির আহবায়ক ও যুগ্ন আহবায়ক স্বাক্ষরিত কমিটির নামের তালিকা তুলে দেওয়া হয়। নবগঠিত আহবায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দর নাম প্রকাশ হওয়ার পর প্রতিটি ইউনিয়নেই ঘোষিত আহবায়ক কমিটি নিয়ে তৃর্ণমূলের নেতাকর্মীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে। অভিযোগ তীর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ও যুগ্ন আহবায়ক এর দিকে।

উপজেলা বিএনপির দলীয় সূত্রে জানা যায়, চেয়ারপাসন খালেদা জিয়ার হাতকে শক্তিশালী ও সরকার পতনের আন্দোলন জোরদার করতে তৃর্ণমূল পর্যায় থেকে দলকে শক্তিশালী ও সুসংগঠিত করার জন্য প্রতিটি ইউনিয়নে বিএনপির ১১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। গঠিত আহবায়ক কমিটিকে আগামী ১০ দিনের মধ্যে উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মনিরুজ্জামান মনির ও যুগ্ন আহবায়ক রফিকুল হাসান তনু’র সাথে পরামর্শ করে ওয়ার্ড বিএনপির কমিটি গঠন করার জন্য সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। ইউনিয়ন ভিত্তিক আহবায়ক কমিটির সদস্যরা হলেন,
দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন ঃ আহবায়ক রহমান মালিথা, যুগ্নআহবায়ক আব্দুর রহিম, সদস্য একরামুল হক, দেলোয়ার হোসেন আহসান হাবিব, আব্দুল মজিদ, মন্টু মিয়া, একরামুল হোসেন, আরিফুল হক, কবির হোসেন ও বাবলু।
হাউলী ইউনিয়ন ঃ আহবায়ক মোহাম্মদ আলী শাহ মিন্টু, যুগ্নআহবায়ক আব্দুল ওয়াহেদ, সদস্য ইউসুফ আলী, ওয়াহেদুজ্জামান, তারিকুল ইসলাম, সলেমান মল্লিক, শামসুল আলম, মোশারফ হোসেন, মহিউদ্দিন, আলী রেজা ও আব্দুস সালাম।
কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন ঃ আহবায়ক আবুল কাশেম, যুগ্নআহবায়ক আবু সাঈদ বিশ্বাস, সদস্য শামসুল আলম, আব্দুর রাজ্জাক, মুজতবা আলী বকুল, জুলফিকার আলী ভুট্টু, আব্দুল মজিদ, আয়ুব আলী, আসলাম হোসেন, রফিকুল হক ও আপেল উদ্দিন।
জুড়ানপুর ইউনিয়ন ঃ আহবায়ক ইদ্রিস আলী, যুগ্নআহবায়ক সাইদুর রহমান লিপু, সদস্য আনোয়ার হোসেন, জুলমত আলী, নজরুল ইসলাম, আবুল কালাম আজাদ, আসাদুল হক তেলা, তমিজ উদ্দিন, আসলাম উদ্দিন, শফিকুল ইসলাম ও খুলিল উদ্দিন।
নতিপোতা ইউনিয়ন ঃ আহবায়ক অহিদুল ইসলাম, যুগ্নআহবায়ক আবুল কালাম আজাদ, সদস্য শফিকুল ইসলাম, আজগর আলী, সিরাজুল ইসলাম, ওমর আলী, জহির রায়হান, মাসুদ রানা, আনিছুর রহমান, আব্দুর আলীম ও বাবলুর রহমান বাবলু।
কুড়–লগাছি ইউনিয়ন ঃ আহবায়ক ইদ্রিস আলী ইদু, যুগ্নআহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবু, সদস্য আব্দুর রশিদ, হাসান বাগ, আব্দুল হক, হেলাল উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম, আব্দুল হামিদ, আওরঙ্গজেব টোটন, নূর ইসলাম ও আব্দুল হাকিম।
পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন ঃ আহবায়ক শফিউল্লাহ, যুগ্নআহবায়ক আশরাফুল হক বিপ্লব, সদস্য আমির হোসেন, আনোয়ার হোসেন, আশিক ইকবাল চঞ্চল, মোমিনূল হক, আবুল কাশেম, ছানোয়ার হোসেন, মজিবর রহমান, আক্তার হোসেন ও সাইফুল ইসলাম।
এবং নব গঠিত নাটুদহ ইউনিয়ন ঃ আহ্বায়ক শামসুল আলম, যুগ্নআহবায়ক উসমান গনি, সদস্য আমির হোসেন, শহিদুল ইসলাম পল্টু, আয়নাল হক, সদর আলী, আব্দুর রাজ্জাক, আব্দুর রশিদ, রমজান আলী টিটন,বাবু ও নূহুনবী।
অপরদিকে নবগঠিত আহবায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দর নাম প্রকাশ হওয়ার পর প্রতিটি ইউনিয়নেই ঘোষিত আহবায়ক কমিটি নিয়ে তৃর্ণমূলের নেতাকর্মীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ও যুগ্ন আহবায়ক তাদের অনুগত ধামাধরা দলীয় কর্মীদের আহবায়ক কমিটিতে নিয়ে আসায় প্রকৃত নেতাকর্মীদের স্থান হয়নি নবগঠিত আহবায়ক কমিটিতে।

error: কপি হবে না!