ads

রবিবার , ৬ জুলাই ২০১৪ | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

বালিয়াডাঙ্গী সীমান্ত দিয়ে গরুর সাথে অবাধে আসছে মাদক

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
জুলাই ৬, ২০১৪ ৮:২৭ অপরাহ্ণ
বালিয়াডাঙ্গী সীমান্ত দিয়ে গরুর সাথে অবাধে আসছে মাদক

বালিয়াডাঙ্গী (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বেশ কয়েকটি সীমান্ত রুট দিয়ে ভারত থেকে প্রতিনিয়ত চোরাকারবারীরা গরুর সাথে অবাধে মাদক এনে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করছে। এ যেন দেখার কেউ নেই? 

Shamol Bangla Ads

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার নাগরভিটা বিজিবি কোম্পানীর সদর দপ্তর ক্যাম্পের অধীনস্থ্য জগদল, নাগরভিটা, বেউরঝারী, রতœাই সীমান্ত ও পাড়িয়া বিজিবি কোম্পানী সদর দপ্তর ক্যাম্পের অধীনস্থ্য মন্ডুমালা, পাড়িয়া, কান্তিভিটা ও ধনতলা সীমান্ত রুট দিয়ে ভারত থেকে প্রতিনিয়ত চোরাকারবারিরা গরুর সাথে অবাধে মাদক এনে দেশের বিভিন্ন স্থানে মাদক দ্রব্য পাচার করছে। উপজেলার হরিণমারী হাটে সরকারিভাবে করিডোর কেন্দ্র থাকলেও এলাকার চোরাকারবারীরা শতকরা আশি ভাগ গরু করিডোর না করে অবাধে বিভিন্ন হাট বাজারে বিক্রি করছে। এতে করে সরকার বিপুল পরিমান রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অপরদিকে গরুর রাখালরা ভারত থেকে গরুর সাথে অবাধে মাদক এনে দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রেরণ করছে। এ যেন দেখার কেউ নেই? উলে¬খ্য যে, গত বুধবার বিকাল পৌনে ৪টায় নাগরভিটা সীমান্তে ৩৭৮/১এস সাব পিলারের নিকট দিয়ে প্রকাশ্যে দিবালোকে মাদক ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে বস্তা ভর্তি ফেন্সিডিল নিয়ে আসার পথে নাগরভিটা ক্যাম্পের বিজিবির টহল দলের নজরে পড়লে ওই সময় ধাওয়া করলে মাদক ব্যবসায়ীরা বস্তা ফেলে পালিয়ে যায়। পরে বিজিবি টহল দল বস্তা উদ্ধার করে ভারতীয় ৪৩ বোতল ফেন্সিডিল দেখতে পেয়ে ক্যাম্পে নিয়ে আসে। অপরদিকে, কিছুদিন পূর্বে পৃথকভাবে পাড়িয়া ও কান্তিভিটা বিজিবি সীমান্তে বিজিবির টহলদল মাদকসহ সামশুজ্জোহা (৩০) ৩ বোতল ফেন্সিডিল ও কোহিনুর ইসলাম (৪০) ভারতীয় দুই হাজার রুপী ও ২০ বোতল ফেন্সিডিলসহ দু‘জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে স্থানীয় থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করে। তাদের গ্রেফতারের পর থেকে পারিয়া কোম্পানী সদর দপ্তর ক্যাম্পের অধীনস্থ ক্যাম্পগুলি দিয়ে পরবর্তীতে চোরাকারবারীদের যাতায়াত বন্ধ হয়ে যায়। সম্প্রতি ওই কোম্পানী সদর দপ্তরের কোম্পানী কমান্ডার সুবেদার রেজাউল ইসলাম অন্যত্র বদলী হলে ওই এলাকার চোরাকারবারীরা আবারও মাদক ব্যবসায় ঝুঁকে পড়েছে। এ যেন দেখার কেউ নেই?

error: কপি হবে না!