ads

শনিবার , ৫ জুলাই ২০১৪ | ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শ্রীবরদীতে ডাকাতের কবলে সাংবাদিক : দুর্বৃত্তদের গ্রেফতারসহ লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধারে এসপি’র কঠোর নির্দেশ

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
জুলাই ৫, ২০১৪ ২:৫৫ অপরাহ্ণ

Followup-Logo2শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি : শেরপুরের পুলিশ সুপার মোঃ মেহেদুল করিম ৩ সাংবাদিকের মোটর সাইকেল, ক্যামেরা, মোবাইল ও নগদ অর্থ লুণ্ঠনের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারসহ লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধারে কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন শ্রীবরদীর ওসি বেলাল উদ্দিন তরফদারকে। ৫ জুলাই শনিবার দুপুরে শেরপুর প্রেস ক্লাবের তরফ থেকে পুলিশ সুপারের সাথে সাক্ষাত করে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ওই ঘটনায় তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করলে তিনি আগামী ২ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে ওই নির্দেশ দেন। এসময় প্রেস ক্লাব সভাপতি রফিকুল ইসলাম আধার শেরপুর-শ্রীবরদী ভায়া লঙ্গরপাড়া সড়কে মাঝে-মধ্যেই ডাকাতি-ছিনতাইসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডের বিষয়ে পুলিশ সুপারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এবং সাংবাদিকসহ জনমানুষের নিরাপত্তা বিধানে পুলিশের তৎপরতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। পুলিশ সুপার বিষয়গুলো মনোযোগ সহকারে শুনে আন্তরিকতার সাথে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। সাক্ষাতকালে প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা, সিনিয়র নির্বাহী সদস্য সঞ্জীব চন্দ বিল্টু, রফিক মজিদ ও মাসুদ হাসান বাদলসহ শ্রীবরদীর ডাকাতির শিকার ৩ সংবাদকর্মী কেএম ফারুক, এনামুল কবীর ও আব্দুল বাতেন উপস্থিত ছিলেন। 

Shamol Bangla Ads

উল্লেখ্য, ২১ জুন শনিবার রাতে শেরপুর শহরে প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কার্যকরী পরিষদের পরিচিতি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষে একই মোটরসাইকেলে আরোহনকারী শ্রীবরদীর ৩ সংবাদকর্মী বাড়ি ফেরার পথে লঙ্গরপাড়া সংলগ্ন গলাকাটা ব্রীজের কাছে ডাকাতের কবলে পড়েন। ওইসময় ডাকাতদল পথরোধ করে দেশীয় অস্ত্র দ্বারা ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের হাত-পা বেঁধে একটি প্লাটিনা মোটরসাইকেল, ৩টি ক্যামেরা, ৫টি মোবাইল সেট ও নগদ অর্থ লুটে নেয়। পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ওই ঘটনায় একটি মামলা রুজু হলেও দু’জনকে আটক ছাড়া ঘটনার দু’সপ্তাহ পরও তদন্তে অগ্রগতি বা লুণ্ঠিত কোন মালামাল উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে সাংবাদিকদের মাঝে চরম উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে।

error: কপি হবে না!