ads

বুধবার , ১১ জুন ২০১৪ | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

নবাবগঞ্জে এক দুরন্ত শিশু কণ্যাকে পুলিশে সোপর্দ

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
জুন ১১, ২০১৪ ৬:৫৫ অপরাহ্ণ

PROনবাবগঞ্জ(দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে দুরন্তপনার কারনে অতিষ্ট হয়ে ঝরনা খাতুন(১২)  নামে এক শিশু কণ্যাকে পুলিশে সোপর্দ করেছে তার জন্মদাতা পিতামাতা। ঝরনা উপজেলার বিনোদনগর ইউনিয়নের বড়মাগুরা গ্রামের খালেকুল ইসলামের কণ্যা। তাকে  আজ ১১ জুন বুধবার নবাবগঞ্জ থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। থানায় ঝরনার মা আন্জুয়ারা বেগম দৈনিক করতোয়াকে জানালেন তার ২ ছেলে ২ মেয়ে। তারমধ্যে ঝরনা একজন। তিন ছেলে মেয়ে ভাল হলেও ঝরনা কঠিন দুরন্তপনা চরিত্রের। প্রতিদিনই তার বিরুদ্ধে প্রতিবেশীরা নানা অভিযোগ নিয়ে আসে। আজ কারো গাছ থেকে সুপারী চুরি, কাল কারো বাড়ী থেকে টাকা পয়সা বা অন্য কোন জিনিস চুরি এসবই তার কাজ।  সে স্থীর থাকতে পারে না। তার নিকট রাত কি আর দিন কি সবই সমান। তার মন যা চায় সে তাই করে।তার অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে তাকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করতে এসেছে। এসময় ঝরনা থানার একটি পিলারে হিলানী দিয়ে এক পা মাটিতে রেখে অপর পা পিলারে দিয়ে তার বিরুদ্ধে মায়ের করা অভিযোগের কথা মনযোগ সহকারে শুনছিল। তার চেহারা এবং মনোবল দেখে সহজেই অনুমান করা যাচ্ছিল আসলেই সে দুরন্ত। তাকে যে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে এরপরও সে এতটুকুও ভেঙে পড়েনি। দুষ্টমি ছেড়ে ভাল হবার কথা বললে সে  জানায় তার বিরুদ্ধে ওইসব অভিযোগ মিথ্যা। তাকে কেউ নাকি কোন দিন হাতে নাতে ধরতে পারে নাই।  এসময়ও  তার চোখে মুখে দুষ্টামির ছাপ স্পষ্ট পরিলক্ষিত হচ্ছিল। তাকে থানায় নিয়ে আসার সময় তার পিতা মাতা ছাড়াও স্থানীয় ইউ,পি সদস্য ও প্রতিবেশীরা এসেছিল। সবারই একই কথা তাকে ভাল করা যায় না। সে কারো কথা শোনেনা। তাই তাকে ভাল পথে ফেরার জন্য পুলিশে সোপর্দ করা হচ্ছে। থানার অফিসার ইনচার্জ আমিরুল ইসলাম জানালেন দরন্তপনা ঝরনা কে আদালতে সোপর্দ করে তাকে নিরাপত্তা হেফাজতে নেয়ার জন্য আবেদন জানানো হবে।

error: কপি হবে না!