ads

বৃহস্পতিবার , ৫ জুন ২০১৪ | ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

ভাসমান ব্যবসায়ীদের দখলে ফুটপাত : পেকুয়া বাজারে অসহনীয় যানজট

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
জুন ৫, ২০১৪ ৩:৩৯ অপরাহ্ণ
ভাসমান ব্যবসায়ীদের দখলে ফুটপাত : পেকুয়া বাজারে অসহনীয় যানজট

এম.আবদুল্লাহ আনসারী, পেকুয়া (কক্সবাজার) : মগনাম-বরইতলি সড়কের ওপর প্রতিষ্ঠিত উপকূলীয় অঞ্চলের প্রধান ও ব্যস্ততম বাণিজ্যিক কেন্দ্র পেকুয়ার এলাকায় অসহনীয় যানঝটে যাত্রী পথচারী সহ ক্রেতা বিক্রেতাদের চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। সড়কের দুপাশের ফুটপাত ভাসমান ব্যবসায়ীরা দখল করে ব্যবসা করায় পথচারীরা মূল সড়ক দিয়ে চলাচল করার কারণে যানঝট সৃষ্টি হয়্। এছাড়া পেকুয়া বাজার এলাকায় রিক্সা, সি.এন.জি ট্রাক প্রধান সড়কে অবস্থান করে। মগনামা বানিয়ার ছড়া সড়কে চলাচলকারী যাবতীয় যাত্রীবাহি গাড়ীর কাউন্টারও প্রধান সড়কে হওয়ায় সারাক্ষণ যানঝট লেগেই থাকে। পেকুয়া বাজারের পশ্চিম মাথার ওয়াপদা অফিস থেকে পূবেৃ কবির আহমদ চৌধুরী বাড়ীর গেইট পর্যন্ত সকাল থেকে রাত পর্যন্ত স্বাভাবিক ভাবে গাড়ী চলাচল করতে পারেনা। গাড়ী চালক ও যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানাগেছে, পেকুয়া বাজার পার হতে ৩০ মিনিট থেকে ১ঘন্টা সময় আটকে থাকতে হয়। মগনামা উজানটিয়া কুতুবদিয়া থেকে যাত্রীরা বাজারে এসে আটকে পড়ে। রাজাখালী ও ফাঁসিয়াখালী থেকে ব্রীজের ওপারে আটকে ্থাকে। একই ভাবে পূর্ব পাশ থেকে যাওয়া যাত্রীরাও বাজারের পুর্ব পাশে আটকে থাকে বলে অভিযোগ করেন।বাজার এলাকায় একজন লোক যান চলাচলে দেখা শুনা করলেও কোন কাজ হচ্ছেনা। একই ভাবে পেকুয়া বাজারের ইউনিয়ন পরিষদ সড়ক ও পান বাজার সড়কটিও সারাক্ষণ যানঝট লেগেই থাকে। ওই সড়ক দিয়ে কাচাবাজার মাছ বাজার, ফার্ণিচার বাজার ও গাছের দোকান সহ বিশাল কয়েকটি মার্কেট থাকায় ক্রেতা বিক্রেতাদের আনাগোনা বেশি থাকায় যানঝটের কারণে নিত্যদিন সমস্যার মুখোমূখী হচ্ছে সবাই। সাধারণ ক্রেতারা সওদা কিনে পায়ে হেটে পর্যন্ত আসা সম্ভব হয়না বলে প্রতিবেদককে জানিয়েছে। এব্যাপারে ব্যবসায়ীদের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, কিছু রকমারী মৌসুমী ফল ব্যবসায়ী নির্দিষ্ঠ জায়গায় পসরা না বসিয়ে সড়ক গুলোতে বসে পড়লে এ যানঝটের সৃষ্টি হয় বিশেষ করে পরিষদ সড়কের মাথায় চৌরাস্তায় যানঝটের সূত্র পাত হয়। এব্যাপারে পেকুয়া বাজার ব্যবসায়ী কো অপারেটিভ সোসাইটির সম্পাদ মিনহাজ উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি যানঝটের কারণে ব্যবসা বাণিজ্য ও চলাচলের ব্যাপক ক্ষতির কথা স্বীকার করে বলেন, রাস্তায় লাল দাগ দিয়ে রিক্সা সি.এন.জি চলাচলের জন্যে নির্দিষ্ঠ করে দেয়া হলেও তারা তা না মানায় এ সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, ১জন ট্রাফিক দায়িত্ব পালন করার পরও যত্রতত্র গাড়ী পার্কিং ও যাত্রী ওঠা নামায় এ যানঝট তীব্র আকার ধারণ করেছে যার কারণে সকলে ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।

পেকুয়ার প্রতিবন্ধী খালেদা ৪দিন ধরে নিখোঁজ

Shamol Bangla Ads

পেকুয়ার বাক প্রতিবন্ধী খালেদা বেগম,(১৯) ৪দিন ধরে নিখোঁজ। জানাযায়, পেকুয়া সদরের পূর্ব গোয়াখালীর জাফর আলমের মেয়ে খালেদা ২৮মে বাড়ী থেকে বের হয়ে এখনো ফিরে আসেনি। তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন ও বাক প্রতিবন্ধী হওয়ায় কথা বলতেও পারেনা আবার কেউ কিছু বললে তা বুঝতেও পারেনা। বের হওয়ার সময় তার পরনে সাদা ও লাল রংয়ের কাজড় ছিল। তার পরিবার এ বাক প্রতিবন্ধিকে উদ্বিগ্ন হয়ে খুজছে। কেউ এধরণের প্রতিবন্ধীকে দেখলে ০১৮৫৯-৯০২৪২৬/ ০১৯১২-০১৯১০৪ নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য তার পিত জাফর আলম অনুরোধ জানিয়েছেন।

পেকুয়ার নন্দীরপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভূয়া কমিটি গঠনের অভিযোগ

পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের নন্দীরপাড়া রেজি: প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কর্তৃক বিধি বহির্ভূত ভূয়া পরিচালনা কমিটি গঠনের অভিযোগ পাওয়া ওঠেছে। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে বিদ্যালয়ের সভাপতি আমির হোছাইন লিখিতভাবে উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। জানাযায় উপজেলা চেয়ারম্যান শাফায়াত আজিজ রাজু অভিযোগটি আমলে নিয়ে পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে এক সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। অভিযোগে জানা যায় পেকুয়ার নন্দীরপাড়া রেজি: প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তার নিজের ইচ্ছেমত অতিগোপনে একটি পরিচালনা কমিটি শিক্ষা অফিসে দাখিল করেন। পূর্বের কমিটিকে না জানিয়ে, বিনা নোটিশে অভিভাবক ও ছাত্র/ছাত্রীদের নিকট কোন প্রকার প্রচার না করে একমিটি গঠন করে জমা দিয়েছেন। পূর্বের কমিটির অভিযোগ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি গঠন সম্পর্কে কোন প্রস্ততি সভা ও মতবিনিময় সভা না করে একটি পকেট কমিটি জমা দিয়েছেন। বিদ্যালয়ের বৃহত্তর স্বার্থে দাখিলকৃত ভূয়া ও জালিয়তি কমিটি বাতিল করে পুনরায় ম্যানিজিং কমিটি গঠন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেন। ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার তপন কান্তি চৌধুরীকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি এর আগেও তার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ পেয়েছেন উল্লেখ করে বলেন, সহকারী শিক্ষা অফিসার বেলাল হোছাইনকে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে প্রতিবেদন হস্তগত হলে বিহীত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক নুরুল আলমের সাথে যোগাযোগ করতে তার মোবাইলে বার বার চেষ্ঠা করেও সংযোগ না পাওয়ায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

error: কপি হবে না!