ads

বৃহস্পতিবার , ২৯ মে ২০১৪ | ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

চুয়াডাঙ্গায় স্ত্রীকে হত্যা করে সেফটি ট্যাংকে লাশ ফেলে দিয়েছে পাষণ্ড স্বামী

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
মে ২৯, ২০১৪ ৮:৫৮ অপরাহ্ণ
চুয়াডাঙ্গায় স্ত্রীকে হত্যা করে সেফটি ট্যাংকে লাশ ফেলে দিয়েছে পাষণ্ড স্বামী

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার জোড়গাছায় পায়খানার সেফটিক ট্যাংক থেকে মরিয়ম খাতুন (৩৫) নামে এক নারীর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি আলমডাঙ্গা উপজেলার জোড়গাছা গ্রামের আমির হোসেনের স্ত্রী। বুধবার রাত ৯টার দিকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

Shamol Bangla Ads

পুলিশ জানায়, গত রোববার দিবাগত রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে পাষণ্ড স্বামী আমির হোসেন তার স্ত্রী মরিয়ম খাতুনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এরপর লাশ বস্তায় ভরে নিজ পায়খানার সেফটিক ট্যাংকের মধ্যে রেখে পালিয়ে যায়। সোমবার সকালে পরিবারের সদস্যরা স্বামী-স্ত্রীকে ঘরে না পেয়ে আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে খোঁজ করে। অবশেষে তিনদিন পর বুধবার বিকেলে নিহতের ভাই নাসির উদ্দীন আলমডাঙ্গা থানা পুলিশকে তাদের নিখোঁজের ঘটনাটি জানায়।
বুধবার রাত ৮টার দিকে পায়খানার সেফটিক ট্যাংকের মধ্যে মরিয়মের বস্তাবন্দি লাশ দেখে পরিবারের সদস্যরা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়।
নিহতের ভাই নাসির উদ্দীনের জানান, যৌতুকের কারণে ভগ্নিপতি তার বোন মরিয়মকে হত্যা কওে সেফটিক ট্যাংকে ফেলে পালিয়ে যায়।
আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পারিবারিক কলহের কারণে পাষণ্ড স্বামী মরিয়মকে হত্যা করে পায়খানার সেফটিক ট্যংকে ফেলে পালিয়ে গেছে। তাকে ধরতে পুলিশ জোর তৎপর রয়েছে।
আজ সকালে লাশ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ময়না তদন্ত করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ।

error: কপি হবে না!