ads

বৃহস্পতিবার , ২২ মে ২০১৪ | ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

কুলাউড়া-শাহবাজপুর ট্রেন চালুসহ সিলেট সেকশনের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করা হবে

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
মে ২২, ২০১৪ ২:৫০ অপরাহ্ণ

kulaura Rail-GIBR-pic-22-Mayমো: খালেদ পারভেজ বখ্শ, মৌলভীবাজার থেকে: গভর্মেন্ট ইন্সপেক্টার অব বাংলাদেশ রেলওয়ের (জিআইবিআর) মোঃ আকতারুজ্জামান হায়দার বলেছেন, কুলাউড়া-শাহবাজপুর ট্রেনলাইন চালু সহ সিলেট সেকশনের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। শাহবাজপুর ট্রেনলাইন চালুর জন্য রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যে ডিপিপিতে প্রনোয়ন করা হয়েছে যা অনুমোদনের প্রক্রিয়াধীন। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার রেলওয়ের ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় দীর্ঘদিনের বন্ধ থাকা কুলাউড়া-শাহবাজপুর ট্রেনলাইন চালুর ব্যাপারে আন্তরিক । আগামী অর্থবছরের বাজেটের পর এ সেকশনের কাজ শুরু হবে। তিনি গতকাল ২২মে সকালে কুলাউড়া জংশন ষ্টেশনের বিভিন্ন কার্যালয় পরিদর্শন শেষে ষ্টেশনের ভিআইপি রুমে সাংবাদিকদের বিভিন্ন পশ্নের জবাবে এ কথাগুলো বলেন।
জিআইবিআর মোঃআকতারুজ্জামান হায়দার কুলাউড়া জংশন ষ্টেশনের পানি ও স্যানিটেশন সমস্যা, সিলেট-কুলাউড়া- আখাউড়া সেকশনের বন্ধ ষ্টেশনগুলো চালুর উদ্যোগ এবং সিলেট-ঢাকা এবং সিলেট-চট্রগ্রাম রুটে চলাচলের জন্য কুলাউড়া ষ্টেশনের টিকেটে আসন সংখ্যা বৃদ্ধি সহ সকল সমস্যা পর্যায়ক্রমে সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন। এছাড়াও অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে রেলওয়ের বেহাত হওয়া ভূমি উদ্ধার করা হবে।
পরিদর্শন ও মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) মকবুল হোসেন, বিভাগিয় প্রকৌশলী প্রধান তানভীর আহমদ, বিভাগীয় প্রকৌশলী সিগন্যাল জাকির হোসেন, ডিআরএম মোঃ কামরুল ইসলাম, ডিসিও মাহবুবুর রহমান, ডিটিও নাজমুল ইসলাম, কুলাউড়া প্রেসক্লাব এর সাবেক সভাপতি সুশীল সেন গুপ্ত, সম্পাদক খালেদ পারভেজ বখশ, কুলাউড়া রেলওয়ে টিআইসি আতাউর রহমান ও ষ্টেশন মষ্টার মুহিদুর রহমান প্রমুখ।
উল্লেখ্য রেলওয়ে সূত্র জানায়, ২০০২ সালের ৭ জুলাই মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইনটি কর্তৃপক্ষ বন্ধ করে দেয়। রেললাইন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা, জুড়ী ও কুলাউড়া এবং সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার ছয় থেকে সাত লাখ মানুষ যাতায়াত ও পণ্য পরিবহনে সমস্যায় পড়েন। সড়কপথে ভাড়া বেশি হওয়ায় এলাকাবাসীর যাতায়াত ও পণ্য পরিবহন খরচ বেড়ে যায়। জুড়ী, দক্ষিণভাগ, কাঁঠালতলী, বড়লেখা, মুড়াউল ও শাহবাজপুর এই ছয়টি রেলস্টেশন স্থবির হয়ে পড়ে।
তবে ২০১১ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) এক বৈঠকে বাংলাদেশ রেলওয়ের কুলাউড়া-শাহবাজপুর সেকশন পুনর্বাসন নামে একটি প্রকল্প পাস হয়। এই প্রকল্পে রেললাইন পুননির্মাণ, রেলস্টেশনের ভবন সংস্কার, সংকেত-ব্যবস্থার উন্নতিসহ ৪২ কিলোমিটার দীর্ঘ কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন আধুনিকায়নের লক্ষ্যে ১১৭ কোটি টাকা অনুমোদন দেওয়া হয়। কিন্তু এই অর্থ তৎকালিন সময় বরাদ্দ দেয়া হয়নি।

error: কপি হবে না!