ads

বুধবার , ২৫ ডিসেম্বর ২০১৩ | ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

মুজিবনগরের মোনাখালীর মাথাভাঙ্গা মাঠে গুটি ইউরিয়া প্রদর্শনী প্ল¬টের ফসল কর্তন ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
ডিসেম্বর ২৫, ২০১৩ ৮:১০ অপরাহ্ণ

Meherpur Pic-1মেহের আমজাদ, মেহেরপুর : কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর, মুজিবনগরের সহযোগিতায় এবং আইএফডিসি’র আপি ওয়ালমার্ট ফাউন্ডেশন কার্যক্রমের আওতায় মহিলা কৃষকদের নিয়ে বুধবার দুপুরের মেহেরপুর মুজিবনগর উপজেলার মোনাখালী মাথাভাঙ্গা মাঠে গুটি ইউরিয়া প্রদর্শনী প্ল¬টের ফসল কর্তন ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়।

Shamol Bangla Ads

Shamol Bangla Ads

Meherpur Pic-2মোনাখালী ইউপি সদস্য আফরোজা খাতুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আপি ওয়ালমার্ট ফাউন্ডেশনের সহকারি প্রশিক্ষণ অফিসার তানজিনা তাহসিন। অনুষ্ঠানে বিষেশ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আপি ওয়ালমার্ট ফাউন্ডেশনের চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরের ফিল্ড সুপার ভাইজার লাভলী আক্তার, মুজিবনগর কৃষি স¤প্রসারন অধিদপ্তরের এসএসপিপিও মিজানুর রহমান, মোনাখালী ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি আসকার মিয়া। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহিলা কৃষক চায়না খাতুন প্রমৃখ। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন মুজিবনগর কৃষি স¤প্রসারন অধিদপ্তরের এসএএও খসরু আলম।

প্রধান অতিথি তানজিনা তাহসিন তার বক্তব্যে বলেন, দেশের উন্নয়নে মহিলারা অনেক অবদান রেখে চলেছেন। সবজি চাষ ও সবজি চাষের সাথে আমাদের দেশের মহিলাদের একটি বিশাল অংশ কোন না কোন ভাবে জড়িত আছেন। তাই সবজি চাষের উপর তাদের প্রশিক্ষণ থাকা খুবই জরুরী। তিনি আরো বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন ও পুষ্টি বিষয়ক সতেচনতা সৃষ্ঠি করায় তাদের প্রকল্পের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

Meherpur Pic-3 অনুষ্ঠানে মোনাখালী গ্রামের মনিরুল ইসলামের স্ত্রী চায়না খাতুনের ফুলকপি’র প¬ট পরিদর্শন করা হয়। এ সময় তিনি বলেন, তিনি যশোর থেকে সবজি চাষের উপর প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন। চায়না খাতুন আরো বলেন, চলতি মৌসুমে তিনি মোনাখালী মাথাভাঙ্গা মাঠে ১০ শতক জমিতে ফুল কপির চাষ করেছেন। যার ৫ শতকে ৮ কেজি গুটি ইউরিয়া সার ও অপর ৫ শতকে ১৫ কেজি গুড়া ইউরিয়া সার ব্যবহার করেন। এতে সমপরিমান জমিতে গুটি ইউরিয়া সার কম ব্যবহার করেও ফলন পেয়েছেন দ্বিগুন।

সর্বশেষ - ব্রেকিং নিউজ

error: কপি হবে না!