ads

বুধবার , ২৩ অক্টোবর ২০১৩ | ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

আত্রাইয়ে দেশী প্রজাতি মাছের সংকট: দিশেহারা মৎস্যজীবী ও শুঁটকি ব্যবসায়ীরা

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ২৩, ২০১৩ ৬:৩৯ অপরাহ্ণ

atraiতাপস কুমার, আত্রাই (নওগাঁ) : নওগাঁর আত্রাইয়ে এবার দেশী প্রজাতি মাছের তীব্র সংকটে দিশেহারা হয়ে পড়েছে মৎস্যজীবী ও শুঁটকি ব্যবসায়ীরা । অন্যান্য বছর এ সময় নদীর পানি নামার সাথে সাথে উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে জেলেদের জালে  ধরা পরে দেশি প্রজাতির মাছ। মৎস্যজীবীদের মুখে হাঁসি ফুটে উঠে এবং শুঁটকি  ব্যবসায়ীরা কাটায় ব্যস্ত  সময় । কিন্তু  এ বছরের চিত্রটা সম্পূর্ণ উল্টো। দেশী মাছ বাজারে সংকট থাকায় উভয় পেশার মানুষের মাঝে হতাশার ছাপ পরিলক্ষিত হচ্ছে। উওর জনপদের মৎস্যখাত আত্রাই উপজেলার বেশির ভাগ শুঁটকি চাতাল মাছের অভাবে বন্ধ প্রায়। আত্রাই রেলওয়ে ষ্টেশন সংলগ্ন পূর্ব পার্শে রয়েছে বিশাল মাছের  আড়ৎ । এই আড়ৎ গুলো থেকে প্রতিদিন দেশের  বিভিন্ন জেলায় মাছ বাজারজাত করা হয়। সেই সুবাদে আত্রাইয়ে গড়ে উঠেছে বিশাল শুঁটকির চাতাল। বছরে শ্রাবন, ভাদ্র, আশ্বিন ও কার্তিক মাস শুঁটকি ব্যবসায়ীদের ব্যস্ত সময় কাটানোর মাস। এ সময় এলাকার নদী ও খালবিল থেকে প্রতি বছর  প্রচুর পরিমানে মাছ ধরা পরে। আর এ মাছ গুলো এক রকম খুবই স্বল্প মূল্যে বিক্রি হয়ে  থাকে। এ মাছ গুলো শুঁটকি ব্যবসায়ীরা ক্রয় করে শুঁটকি তৈরি করে দেশের প্রায় ১০ টি জেলায় বাজারজাত করে থাকে। এসব শুঁটকি ব্যবসায়ীদের উপর এলাকার শত শত নারী –পুরুষ শুঁটকি চাতাল গুলোতে মাছ কাটা, শুকানো, বাছাই করা, প্যাকেট জাত কাজে তারা প্রত্যক্ষ ভাবে জড়িত থেকে তাদের জীবিকা নির্বাহ করে কিন্তু এবার তার উল্টোটা হওয়ায় পরিবার গুলোতে নেমে এসেছে হতাশা ছায়া। আত্রাই রেলষ্টেশন সংলগ্ন ভরতেঁতুলিয়া গ্রাম শুঁটকি উৎপাদনের জন্য বিখ্যাত । উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে গড়ে তোলা হয়েছে শুঁটকির চাতাল। রোদ-বৃষ্টি, ভাপসা গরম ও তীব্র দুর্গন্ধ উপেক্ষা করে তৈরি করা হয় এসব শুঁটকি। সরেজমিনে গিয়ে উপজেলা শুঁটকি ব্যবসায়ী রাম, মাজেদুল,পচু, গেদা ও ছাত্রা এর সঙ্গে কথা বলে জানাযায়, প্রতি বছর এ সময় তারা দেশী মাছের বিশেষ করে পুঁটি, রাইখোর, চান্দা, টাকি, শোল, বোয়াল মাছের শুঁটকি বানিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় বাজারজাত করে থাকে। বিশেষ করে রংপুর, কুড়িগ্রাম, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, রাজধানী  ঢাকা সহ কিশোরগঞ্জে এসব শুঁটকির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে, কিন্তু এবার চাহিদা মত মাছ না পাওয়ার কারনে আমাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। খালবিল দ্রুত পানিশূন্য হওয়ায় মূলত মাছ সংকটের অন্যতম কারন বলে জানিয়েছে মৎস্য সংশ্লিষ্ঠরা।

error: কপি হবে না!