ads

মঙ্গলবার , ২২ অক্টোবর ২০১৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

বগুড়ায় বিএনপি’র মিছিল : প্রতিষ্ঠানে হামলা-ভাংচুর, গাড়ীতে অগ্নিসংযোগ

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ২২, ২০১৩ ১১:২৯ অপরাহ্ণ

Bnp-02এস.গুলবাগী, বগুড়া : সাবেক প্রধানমন্ত্রী, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার গাড়ী বহরে পুলিশি হামলা ও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাবেক সভাপতি সুলতান সালাউদ্দীন টুকুকে আটকের প্রতিবাদে বগুড়ায় বিক্ষোভ করেছে বিএনপি ও ছাত্রদল। ২১ অক্টোবর সোমবার গভীর রাতে ওই বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। এ সময় তারা শহরের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক ভাংচুর চালিয়ে যাত্রীবাহী বাস ও মালবোঝাই ট্রাকে অগ্নিসংযোগসহ বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের গাড়ীসহ বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক ও বিক্ষিপ্তভাবে অন্তত: ২০টি গাড়ি ভাঙচুর করে। এসময় শহরের বিভিন্ন স্থানে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।
জানা যায়, বেগম জিয়ার গাড়ী বহরে পুলিশের হামলা ও ছাত্রদল এর সাবেক সভাপতি টুকুর আটকের খবর পেয়ে সোমবার রাত ১২টার দিকে বিএনপি ও ছাত্রদল বগুড়া জেলা ছাত্রদল শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। একপর্যায়ে বিক্ষোভ মিছিল থেকে শহরের ঝোপগাড়ি এলাকায় বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে বিভিন্ন যানবাহনে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও তান্ডব চালায় । এসময় তারা চলমান নৈশ কোচ, বাস, পণ্যবাহী ট্রাক ও সিএনজি থ্রি হুইলারসহ কমপক্ষে ২০টি যানবাহন ভাংচুর করে। একই সময়ে এলাকার দোয়েল ফিলিং ষ্টেশনের সামনে সৌকত পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী বাস ও একটি কলাবাহী ট্রাকে অগ্নি সংযোগ করে বিক্ষোভকারীরা। এতে করে দু’টি গাড়ী আগুনে পুড়ে ভস্মিভূত হয়। পরে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ।একই সময়ে তারা একই এলাকায় দোয়েল পেট্রোল পাম্পে ভাংচুর চালায়। এদিকে এঘটনার পরপরই শহরের দত্তবাড়ী সহ শহরের বিভিন্ন এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। রাতের আধারে মূর্হুমূহু ককটেল বিস্ফোরন এর বিকট শব্দে শহরে সাধারন মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে ।
বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ সহিদ আলম জানান, রাত সাড়ে ১২টায় শহরে বিএনপি ও ছাত্র দলের বিক্ষোভ মিছিলের পরপরই বাস ট্রাকে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। এরপর থেকেই শহরের বিভিন্ন স্থানে পুলিশকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে।

error: কপি হবে না!