ads

শুক্রবার , ১৮ অক্টোবর ২০১৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

রাজীবপুরে শিবির কর্মী ধর্ষণ করেছে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
অক্টোবর ১৮, ২০১৩ ২:২০ অপরাহ্ণ

Rape-7জিয়াউর রহমান জিয়া, রাজিবপুর (কুড়িগ্রাম) : ৪র্থ শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে এক লম্পট ছাত্রশিবির কর্মী। ১৭ অক্টোবর বৃহষ্পতিবার কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার প্রত্যন্ত পল্লী নয়াচর ফকিরপাড়া গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে। তবে ঘটনার দু’দিন পরও কোন মামলা হয়নি। অভিযোগ উঠেছে, স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল ওই ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার পায়তারা করছে। এ নিয়ে এলাকায় চলছে ব্যাপক তোলপাড়।
জানা যায়, নয়াচর ফকিরপাড়া গ্রামের দিনমজুরের সন্তান ওই স্কুলছাত্রীকে একই গ্রামের আজাদ হোসেনের লম্পট পুত্র সাহিদুল ইসলাম (১৮)  ফুসলিয়ে ডেকে নিয়ে তার ঘরে ধর্ষণ করে। ওই সময় সাহিদুলের বাড়িতে কেউ ছিল না। স্কুলছাত্রীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে গিয়ে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়।  ঘটনার পর থেকে লাপাত্তা হয় ধর্ষক সাহিদুল। ওই ঘটনায় ধর্ষিতা স্কুলছাত্রীকে প্রথমে হাসপাতালে নিতে বাধা দেয় স্থানীয় একটি মহল। এরপর থেকে তারা উঠেপড়ে লেগেছে মামলা ঠেকিয়ে ধর্ষককে রক্ষায়। এলাকাটি জামায়াত অধ্যুষিত এবং ধর্ষকের পরিবার জামায়াতের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত থাকায় একটি মহল এখন পুরো ঘটনাটিকেই ধামাচাপা দিতে নানা পথ বেছে নিয়েছে। তবে ওই ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকার নিরীহ সাধারণ মানুষ। ধর্ষিতার পারিবারের পাশাপাশি তারাও ঘটনার বিচার দাবি করেছেন।
এদিকে স্থানীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, ওই ঘটনা ধামাচাপার চেষ্টা চললেও শিবির কর্মী  সাহিদুলকে বহিস্কারের প্রক্রিয়া চলছে।

error: কপি হবে না!