ads

সোমবার , ১৪ অক্টোবর ২০১৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

সৈয়দপুরে প্রধান দুই দলেই মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি, নির্বাচনের আগে কাউন্সিল হচ্ছে না

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ১৪, ২০১৩ ৫:৩৪ অপরাহ্ণ

AL-BNP-Flagএম. এ করিম মিষ্টার, নীলফামারী : নীলফামারীর সৈয়দপুরে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে চলছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ও জাতীয় পার্টির কার্যক্রম। ফলে কেউ কারো উপর আস্থা রাখতে পারছেন না, বাড়ছে বর্তমান নেতৃত্বের প্রতি তৃণমুলের ক্ষোভ। এদিকে চলতি বছরের গেল জুলাই মাসে তৃণমুল আওয়ামী লীগের কাউন্সিল হওয়ার কথা থাকলেও তা আজও হয়নি। তবে আওয়ামী লীগের মধ্যে কাউন্সিল করার তৎপরতা শোনা গেলেও স্থানীয় বিএনপি’র কোন উদ্যোগই লক্ষ্য করা যায়নি।
সৈয়দপুরে প্রধান দুই দল কেন্দ্রীয় কর্মসূচি সুচারুরূপে পালন করলেও কাউন্সিল নিয়ে উভয় দল রয়েছে বিপাকে। আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে কাউন্সিল হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। তবে দলকে চাঙ্গা করা ও আন্দোলন গতিশীল করতে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি পূর্ণগঠনের জন্য অনেক দিন ধরে তৃণমুল নেতা-কর্মীরা দাবি জানিয়ে আসছেন। সূত্র জানায়, ২০০৪ সালে কাউন্সিলের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের সৈয়দপুর উপজেলা ও পৌর কমিটি গঠন করা হয়। কিন্ত দলের কাউন্সিল না হওয়ায় এ কমিটি দীর্ঘ ৯ বছর দলের নেতৃত্বে আছেন। ফলে নানা টানাপোড়নে দলের সাংগঠনিক অবস্থা স্থবির হয়ে পড়ে। দল ক্ষমতায় থাকলেও দলের সাংগঠনিক কর্মকান্ড না থাকায় নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েন নেতা- কর্মীরা। গেল জুলাই মাসে দলের কাউন্সিল অনুষ্ঠানের ঘোষণা আসায় দলের নেতা-কর্মীদের মাঝে প্রাণ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। শুরু হয় দলের নতুন সদস্য সংগ্রহ অভিযান। আর কমিটিতে স্থান পেতে বিগত সময় বঞ্চিতরা বিশেষভাবে সক্রিয় হয়ে উঠেন। তবে সেই কাউন্সিল আজও না হওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন দলের নেতা-কর্মীরা।
এদিকে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কাউন্সিল না হওয়ায় তৃণমুলে কাউন্সিল সম্ভব হয়নি। আর কাউন্সিল না হওয়ায় সৈয়দপুরে বর্তমান কমিটি দীর্ঘ ৯ বছর ধরে দলের নেতৃত্বে রয়েছে। নির্বাচনের আগে নতুন কমিটি গঠন করা সম্ভব হচ্ছে না বলে সংশি¬ষ্ট সূত্রে জানা গেছে। তবে কাউন্সিল না হওয়ায় দলীয় কর্মীদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। নানা প্রতিকুলতার কারণে কাউন্সিল অনুষ্ঠিত না হলেও আন্দোলনে এর কোন প্রভাব পড়বে না বলে জানিয়েছেন দলের প্রভাবশালী নেতারা। দল পূর্ণগঠনের কোনো সম্ভাবনা আপাতত নেই বলে জানান তারা।
শুধু প্রধান দুই দল নয় সৈয়দপুরে জাতীয় পার্টিও মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে। দলটি নির্বাচনমুখী থাকলেও সাংগঠনিকমুখী না হওয়ায় কাউন্সিল করে নতুন কমিটি গঠন সম্ভব হচ্ছে না। নীলফামারীর সৈয়দপুরে দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্রের চর্চার অভাব, দলীয় আদর্শ এবং কোন্দলের কারণে নির্দিষ্ট সময়ে কাউন্সিল করতে পারছে না দলগুলো। তবে দলের সাংগঠনিক মজবুত ও সম্প্রসারণের জন্য যথাসময়ে কাউন্সিল করে নতুন নেতৃত্ব তৈরি করা উচিত। তা নাহলে এর প্রভাব আগামি নির্বাচনে পড়বে বলে মত সচেতনমহলের।

error: কপি হবে না!