ads

সোমবার , ১৪ অক্টোবর ২০১৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

কোরবানীর ঈদে হোক রাজনৈতিক জেদের কোরবান -রফিকুল ইসলাম আধার

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
অক্টোবর ১৪, ২০১৩ ৪:৫৭ অপরাহ্ণ

01 Adharএবারও শুভেচ্ছা বিনিময়ে কেবল ঈদ কার্ডের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থেকেছেন আমাদের রাষ্ট্র, রাজনীতি আর উন্নয়ন-অগ্রগতি, সম্ভাবনা-সমস্যার দুই প্রধান নেত্রী শেখ হাসিনা ও বেগম খালেদা জিয়া। একজন সরকারের প্রধানমন্ত্রী ও দেশের প্রাচীন বৃহত সংগঠন আওয়ামী লীগের সভানেত্রী এবং অন্যজন আরেক বৃহত সংগঠন বিএনপির চেয়ারপারসন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা হয়েও তাদের মাঝে দূরত্ব এমনই যে, একজনের ছায়া দেখার সুযোগ হয়না অন্যজনের। এটি আমাদের প্রচলিত রাজনীতি ব্যবস্থায় নি:সন্দেহে কষ্টের বিষয়। দীর্ঘদিন যাবত এই দুই নেত্রীর মুখোমুখি সাক্ষাত না হলেও কেবল কার্ডের মাধ্যমে ঈদ আর নববর্ষে অনেকটা গতানুগতিকভাবেই চলে আসছে তাদের ওই শুভেচ্ছা বিনিময়ের রেওয়াজ।
তবে এবারের শুভেচ্ছা কার্ড বিনিময়ের বিষয়টি অন্যান্য সময়ের চেয়ে একটু ব্যতিক্রমই ভাবা যায় এজন্য যে, বর্তমানে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গণে চরম বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকার আর বিএনপির নেতৃত্বাধীন বিরোধী দল এখন পরস্পর মুখোমুখি। ঈদের পর আকস্মিক বা নাটকীয় কোন মোড় না নিলে ২৪ অক্টোবরের পর থেকেই সংঘাত-হানাহানির সমূহ আশঙ্কা ছড়িয়ে আছে সর্বত্র। ইতোমধ্যে ২৫ অক্টোবর বিরোধী দল রাজধানীতে মহাসমাবেশের মাধ্যমে সরকারকে তত্বাবধায়ক দাবি আদায়ে বাধ্য করার ঘোষণা দিয়েছে। একই দিনে পাল্টা মহাসমাবেশের মাধ্যমে বিরোধী দলকে মোকাবেলা বা প্রতিহত করতেও চিন্তা-ভাবনা করছে আওয়ামী লীগ। এ বিষয়ে মহাজোটের দ্বিতীয় বৃহত্তম শরিক জাতীয় পার্টির অস্পষ্ট অবস্থান ও উল্টা-পাল্টা কথাবার্তা শুনা গেলেও বিএনপির প্রধান মিত্র জামায়াত দন্ডিত যুদ্ধাপরাধীসহ নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষায় সরকারবিরোধী চূড়ান্ত আন্দোলন ডাকের অপেক্ষায় যুদ্ধংদেহী ও রণসজ্জায় প্রস্তুত। ইতোমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে তাদের অবস্থান। প্রকাশিত তথ্যে বলা হয়েছে, ২৪ অক্টোবরের পর দেশ অচল করে দিতে সহিংসতার সবরকম প্রস্তুতি তাদের সম্পন্ন। আর ওই অবস্থায় সরকারের আইন প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম সিদ্দিকী’র লম্ফজম্ফ হচ্ছে ‘২৫ অক্টোবর ঢাকার কোথাও বিএনপি, জামায়াত ও হেফাজত কেন তাদের অনুসারী একটি  পিপড়াকেও খুজে পাওয়া যাবে না।’
অল্প কিছুদিন আগেও দেশবাসী শুনেছে সরকার ও বিরোধী দলের ‘চুলতত্বের বাহাস’। সরকারের মেয়াদের শেষ মুহূর্তে এখন ওই একই আদলে দুই বলয়ের অতি উৎসাহী আদুলী মার্কা নেতারা  লম্ফজম্ফ আর আস্ফালন যতই করুন না কেন, দেশবাসী ওইসব আস্ফালনে মোটেই আসক্ত নয়। বরং তারা ততধিক শঙ্কিত এই ভেবে যে, ২৫ অক্টোবরই হচ্ছে রাজনীতির ডেডলাইন। সুতরাং চলমান সঙ্কটের দ্রুত সমাধান না হলে সংঘাত অনিবার্য। আর অনিবার্য পরিস্থিতিতে অনির্বাচিত তৃতীয় শক্তির ক্ষমতা দখলের আশঙ্কাকেও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। কেবল তাই নয়, বিগত ওয়ান ইলেভেনের প্রেক্ষাপটে রাষ্ট্র পরিচালনার উচ্চাভিলাষ নিয়ে বিশেষ সহায়তায় গড়ে ওঠা ‘কিংস পার্টি’র আদলে এবারও নতুন ‘কিংস পার্টি’র জন্ম হতে পারে- এমন আশঙ্কাও রয়েছে। এমনই অবস্থায় রাজনৈতিক সঙ্কটের দ্রুত সমাধান না হলে দেশ এক অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে পা রাখবে-এমনই মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। সুতরাং নিবার্চনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে স্ব-স্ব অবস্থান থেকে ছাড় দিয়ে হলেও এখন যত দ্রুতই সমঝোতায় পৌঁছা যায়, দেশের জন্য আর ভবিষ্যতের জন্য ততই মঙ্গল।
বলা বাহুল্য, দেশ আর রজনীতির আকাশে দূর্যোগের ঘনঘটার মাঝেও মুসলিম আর সনাতন ধর্মাবলম্বীদের যে বৃহত ধর্মীয় উৎসব (ঈদুল আজহা ও শারদীয় দূর্গোৎসব) পালিত হচ্ছে, তার মূল মর্মার্থ হচ্ছে আত্মত্যাগ আর আত্মবিসর্জনের মধ্য দিয়ে আত্মশুদ্ধি লাভ করা। সুতরাং ওই উৎসবের ঢেউ বাংলাদেশের হৃদয় ছুয়ে দেশবাসীর মত আমাদের প্রধান দুই নেত্রীকেও যেহেতু ছাপিয়ে তুলেছে, সেহেতু তাঁরা জেদের আগুনে অন্যদের পোড়াতে গিয়ে একই আগুনে নিজেদের পোড়ার অবস্থা তৈরি থেকে বিরত হয়ে,   উৎসবের সেই মর্মার্থকে হৃদয়ে ধারণ করে অন্তত: এবারের কোরবানীর ঈদে কোরবান দিবেন নিজেদের চলমান রাজনৈতিক জেদের। উৎসবের পবিত্র মাহেন্দ্রক্ষণে শপথের দীক্ষায় দীক্ষা নিয়ে দ্রুত নিরসন করবেন চলমান সঙ্কট। দেশবাসীকে রক্ষা করবেন সংঘাত-হানাহানির যাতাকল থেকে। রাজনীতিতে ফিরিয়ে আনবেন শান্ত-শীতল বাতাস। সেইসাথে শুভেচ্ছা বিনিময়ে কেবল কার্ডে সীমাবদ্ধ না থেকে মুখোমুখি-পাশাপাশি বসার ও কুশল বিনিময়ের অনিন্দ্য প্রত্যাশার পরিবেশ তৈরি করবেন- এমন প্রত্যাশাও আমাদের।
লেখক : সম্পাদক, শ্যামলবাংলা২৪ডটকম, ই-মেইল : press.adhar@gmail.com

Shamol Bangla Ads

 

error: কপি হবে না!