ads

সোমবার , ৭ অক্টোবর ২০১৩ | ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শেরপুরের নবনির্মিত ‘বুরুঙ্গা সেতু’ : সীমান্তপথে যুগান্তকারী পরিবর্তনের দ্বার খুলে দিয়েছে

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
অক্টোবর ৭, ২০১৩ ৯:৪০ অপরাহ্ণ

Sherpur Pic-2ফারহানা পারভীন মুন্নী : শেরপুরের নবনির্মিত ‘বুরুঙ্গা সেতু’ সীমান্তপথে যুগান্তকারী পরিবর্তনের দ্বার খুলে দিয়েছে। এর ফলে এতদ অঞ্চলের মানুষের সহজ যোগাযোগ প্রতিষ্ঠা ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত হওয়ার পাশাপাশি যোগাযোগ নেটওয়ার্ক উন্নয়নে নব দিগন্তের সূচনা হয়েছে।
কুড়িগ্রাম থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত সীমান্তবর্তী অঞ্চলের মধ্য দিয়ে যোগাযোগে সীমান্ত সড়ক নির্মাণের লক্ষ্যে যুগান্তকারী পদক্ষেপের অংশ হিসেবে নালিতাবাড়ী উপজেলার সীমান্তবর্তী বুরুঙ্গা সেতু নির্মিত হয়েছে। ৬ অক্টোবর রবিবার সীমান্তবর্তী জনপদের মানুষের বহুল প্রতিক্ষিত ওই সেতুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এসময় প্রধান অতিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সাংসদ ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী।
কুড়িগ্রাম থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত সীমান্ত সড়ক নির্মাণের লক্ষ্যে নালিতাবাড়ী উপজেলার বুরুঙ্গা ও আন্ধারুপাড়া ওই দুই গ্রামের মধ্যবর্তী পাহাড়ি খরস্রোতা চেল্লাখালী নদীর ওপর বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে দরপত্র আহবানের পর ১৪ কোটি ৬৬ লাখ টাকায় এ স্থানে বুরুঙ্গা সেতু নির্মাণের কাজ পায় পারিসা ট্রেড সিস্টেমস লিমিটেড নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। ২০১১ সালের ২ এপ্রিল ১৬১ দশমিক ৫২ মিটার দীর্ঘ ওই সেতুটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা ইছাহাক আলী। বুরুঙ্গা সেতু ছাড়াও যোগাযোগমন্ত্রী একইদিন শেরপুর-নালিতাবাড়ী সড়কের সন্নাসীভিটা এলাকায় একই নদীর ওপর ৩৬ দশমিক ৫ মিটার দীর্ঘ Sherpur Pic-1চেল্লাখালী সেতুর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। চেল্লাখালি সেতুটির উভয়পাশে ৩শ মিটার সংযোগ সড়কসহ নির্মাণ ব্যয় হয়েছে ৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা। বর্তমান সরকারের আমলেই গুরুত্বপূর্ণ ওই সেতু দু’টির দরপত্র আহ্বান থেকে শুরু করে নির্মাণ কাজ শেষ করা হয়।
এদিকে, বুরুঙ্গা ও চেল্লাখালি সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে স্থানীয় অধিবাসীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে সীমান্তবর্তী এলাকার মানুষের মাঝে উৎসবের আমেজ দেখা যায়। সরকারের প্রভাবশালী এ দুই মন্ত্রীকে বরণ করতে এলাকায় সাজ সাজ রব দেখা যায়।
উল্লেখ্য, স্থানীয় সংসদ সদস্য কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর প্রচেষ্টায় ওই সেতু দু’টির নির্মাণকাজ নির্দিষ্ট মেয়াদের মধ্যেই শেষ হলে এ বছরের শুরুর দিকে জনসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে বুরুঙ্গা ও চেল্লাখালি সেতু দ’ুটি আগেই উন্মুক্ত করা দেওয়া হয়।

error: কপি হবে না!