ads

শনিবার , ৫ অক্টোবর ২০১৩ | ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

আগামীবার নির্বাচনে বিজয়ী হলে সব যুদ্ধারাধীর বিচার করব : প্রধানমন্ত্রী

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
অক্টোবর ৫, ২০১৩ ৮:১১ অপরাহ্ণ

Pm_5শ্যামলবাংলা ডেস্ক : আগামীবার নির্বাচনে বিজয়ী হলে সব যুদ্ধারাধীর বিচার করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৫ অক্টোবর শনিবার কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ভারতের বিদ্যুৎ আমদানির জন্য সঞ্চালন উপকেন্দ্র উদ্বোধন শেষে স্থানীয় এক জনসভায় তিনি ওই কথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, বিরোধী দলীয় নেতা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বাঁচাতে চেয়েছিলেন, পারেননি।একই ভাবে যুদ্ধাপরাধীদেরও বাঁচাতে পারবেন না। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় বাংলার মাটিতেই কার্যকর হবে।
তিনি বলেন, বিএনপি আমলে মসজিদে কোরআন পড়া অবস্থায় মুসল্লীদের হত্যা করা হয়েছে। সার না দিয়ে কৃষকদের উপরে গুলি চালানো হয়েছে। তারা   পাকিস্তানি বাহিনীর মতো মা-বোনদের নির্যাতন করেছে তাদের হাত থেকে পুলিশ, মুক্তিযোদ্ধা, সাধারণ মানুষ কোনো বাবা-ভাইকে রেহাই পায়নি।
খালেদা জিয়ার দুই ছেলে তারেক রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর দুর্নীতির চিত্র তুলে  তিনি বলেন, উনি তো মিথ্যে বলায় ওস্তাদ। উনি বলেছেন হেফাজতের সমাবেশে নাকি হাজার হাজার মানুষকে হত্যা করা হয়েছে। যখন মৃতদের তালিকা চাওয়া হলো তখন তিনি দিতে পারলেন না।  কুষ্টিয়ার চারটি সংসদীয় আসনে ২০০৮ সালের মতো আবারো আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে জয়ী করার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।
জনসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পররাষ্ট্র মন্ত্রী দীপু মনি এবং প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহাবুব-উল-আলম হানিফ।

Shamol Bangla Ads

এর আগে প্রধানমন্ত্রী দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য হোস্টেল নির্মাণ (৩৭ ইউনিট) প্রকল্প, কৃষ্টিয়া জেলা সার্ভার স্টেশন ভবন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, ভেড়ামারা থানা ভবন, কুষ্টিয়া কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার , কুমারখালী উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন  ৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ, খোকসা উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবনও উদ্বোধন এবং

কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল স্থাপন প্রকল্প, মিরপুর থানা ভবন, কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, কুমারখালী উপজেলায় ‘সাংবাদিক কাঙ্গাল হরিণাথ’ স্মৃতি জাদুঘর, কুষ্টিয়া জেলার সদর উপজেলার পুলিশ লাইন স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাডেমিক ভবন, কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ঝাউদিয়া কলেজের একাডেমিক ভবন, ভেড়ামারা উপজেলার বিজেএম কলেজের একাডেমিক ভবন, ভেড়ামারা উপজেলার ভেড়ামারা মহিলা ডিগ্রি কলেজের একাডেমিক ভবন, মিরপুর উপজেলার সাগরখালী আইডিয়াল কলেজের একাডেমিক ভবন, কুমারখালী কলেজের একাডেমিক ভবন, দৌলতপুর উপজেলার নুরুজ্জামান বিশ্বাস ডিগ্রী কলেজের একাডেমিক ভবন, দৌলতপুর উপজেলা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তিন তলা একাডেমিক ভবন, কুমারখালী উপজেলার বাঁশগ্রাম আলাউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজের একাডেমিক ভবনের ভিত্তি ফলক উন্মোচন করেন।

সর্বশেষ - ব্রেকিং নিউজ

error: কপি হবে না!