ads

শুক্রবার , ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৩ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

জিএসপি স্থগিতের সিদ্ধান্ত শ্রমিক স্বার্থবিরোধী : প্রধানমন্ত্রী

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৩ ৭:৫৭ অপরাহ্ণ

Hasina jkশ্যামলবাংলা ডেস্ক : শ্রমিকদের কল্যাণ, নিরাপত্তা ও কমপ্ল্যাইয়েন্সের নামে যুক্তরাষ্ট্রের জেনারেলাইজড সিস্টেম অব প্রিফারেন্স (জিএসপি) সুবিধা স্থগিত সমর্থনযোগ্য নয় এবং তা শ্রমিক স্বার্থবিরোধী বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, কিছু দুর্ঘটনার কারণে জিএসপি সুবিধা স্থগিত সমর্থনযোগ্য হতে পারে না। শিল্পক্ষেত্রে ওই ধরনের দুর্ঘটনা বিশ্বের অন্যান্য স্থানে এমনকি উন্নত বিশ্বেও অনবরত ঘটে থাকে। নিউইয়র্কে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী ২৬ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার তাঁর হোটেল স্যুটে যুক্তরাষ্ট্র চেম্বার অব কমার্সের যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ ওয়ার্কিং গ্রুপের এক বৈঠকে ওই কথা বলেন। এসময় তিনি বাংলাদেশি পণ্যের জন্য জিএসপি সুবিধা স্থগিতের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে বোঝানোর জন্য দেশটির ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, জিএসপি স্থগিতের ফলে তা জিএসপি কমপ্ল্যাইয়েন্স এবং শ্রমিকদের কল্যাণ নিশ্চিতের পরিবর্তে শ্রমিকদের স্বার্থ ক্ষতিগ্রস্ত করবে।
শেখ হাসিনা রানা প্লাজা ধ্বসের ঘটনায় নিহত গার্মেন্ট শ্রমিকদের পরিবার ও আহতদের আর্থিক সহায়তা প্রদানে সরকারের নেয়া পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পরপরই গার্মেন্ট শ্রমিকদের বেতন ও অন্যান্য সুবিধা বৃদ্ধির পদক্ষেপ নিয়েছে এবং আবারও তাদের বেতন বৃদ্ধির প্রক্রিয়া চলছে। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী সাংবাদিকদের প্রেস ব্রিফিংয়ে ওই খবর নিশ্চিত করেন। এসময় তিনি
যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের উদ্বৃতি দিয়ে জানান, তারা জিএসপি সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানে আগ্রহী। কারণ তারা মনে করেন, নীতিগত দিক থেকে জিএসপি বাতিল সঠিক হয়নি। শিগগিরই জিএসপি সুবিধা বাতিলের আদেশ প্রত্যাহারের আশা প্রকাশ করে চেম্বার নেতৃবৃন্দ বলেন, তারা ইতিমধ্যে মার্কিন সরকারকে তাদের মতামতের কথা জানিয়েছেন। বৈঠকে মার্কিন বাণিজ্য প্রতিনিধিদল বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ এগিয়ে নিতে সরকারি ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের মধ্যে উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
উল্লেখ্য, গত বছর ঢাকায় ২৬ মে থেকে ২৮ মে যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ অংশীদারিত্ব বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

error: কপি হবে না!