ads

বুধবার , ২১ আগস্ট ২০১৩ | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

শ্রীবরদী সরকারী কলেজে নতুন অধ্যক্ষের যোগদান

শ্যামলবাংলা ডেস্ক
আগস্ট ২১, ২০১৩ ৭:৫৪ অপরাহ্ণ

NAsirএম,আর,টি মিন্টু, শ্রীবরদী : শেরপুরের শ্রীবরদী সরকারী কলেজে নতুন অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেছেন জামালপুর সদর উপজেলার অধিবাসী প্রফেসর এ.কে.এম নাছির উদ্দীন। সম্প্রতি বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিপত্র অনুযায়ী যোগদান করেন তিনি। জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় হতে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে বি,এ (সম্মান) এম.এ কৃতিত্বের সাথে কৃতকার্য হয়ে  ১৩ তম বিসিএস (শিক্ষা) ক্যাডারে উত্তীর্ণ হয়ে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা সরকারী কলেজে, তারপর ১৯৯৬ সালে শ্রীবরদী সরকারী কলেজে প্রভাষক হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন তিনি। অত:পর ২০০৪ সালে শেরপুর সরকারী কলেজে সহকারী অধ্যাপক ও ২০০৮ সালে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে অধ্যাপনা করাবস্থায় জামালপুর আশেক মাহমুদ সরকারী কলেজে বদলী হন। এরপর জামালপুর জাহেদা ছফির সরকারী মহিলা কলেজে দীর্ঘদিন কর্মরত থাকাবস্থায় ১০ মে ২০১৩ অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পেয়ে শ্রীবরদী সরকারী কলেজে ৮ম অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন তিনি। ইতোপূর্বে এই প্রতিষ্ঠানে গত বছরের জানুয়ারী পর্যন্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর আব্দুর রাজ্জাক। তার বিদায়ে প্রতিষ্ঠানটির উপাধ্যক্ষ এ,কে,এম আলিফ উল্লাহ আহসান চলতি ২ আগস্ট পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর বর্তমান অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন প্রফেসর এ.কে.এম নাছির উদ্দীন।
২১ আগস্ট বুধবার এক প্রতিক্রিয়ায় শ্যামলবাংলাকে নবাগত অধ্যক্ষ জানান, এই প্রতিষ্ঠানে অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করে তিনি নিজেকে ধন্য ও গর্বিত মনে করেন। সকলের সহযোগিতা পেলে শিক্ষক/কর্মচারীদের সহায়তায় সমৃদ্ধ কলেজ গঠন করে অনার্স কলেজ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন নৈতিক আদর্শের এই কর্মবীর। প্রতিষ্ঠানে ৩ জন প্রদর্শক, ১ জন শরীর চর্চা শিক্ষক, ৫ জন তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারী, ৮ জন চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী এবং ১৫ জন শিক্ষকের পদ শূন্য থাকায় শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত এবং চলতি বছর এ প্রতিষ্ঠানের এইচএসসি পরীক্ষার পাশের হার ৬১.২৪% ভাগ হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করে তিনি ওই জনবল সংকট কাটিয়ে উঠতে সরকারের দায়িত্বশীল মহলের সহযোগিতা কামনা করেন।

error: কপি হবে না!