ads

সোমবার , ২২ জুলাই ২০১৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল
  1. ENGLISH
  2. অনিয়ম-দুর্নীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আমাদের ব্লগ
  6. ইতিহাস ও ঐতিহ্য
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন-অগ্রগতি
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কৃষি ও কৃষক
  11. ক্রাইম
  12. খেলাধুলা
  13. খেলার খবর
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয় সংবাদ

বগুড়ার চাঞ্চল্যকর ২ পুত্রসহ পিতা হত্যা মামলা : ফাঁসির ১২ আসামিসহ ১৬ আসামীকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট

রফিকুল ইসলাম আধার , সম্পাদক
জুলাই ২২, ২০১৩ ১১:৩৯ পূর্বাহ্ণ

Courtশ্যামলবাংলা ডেস্ক : বগুড়ার চাঞ্চল্যকর ২ পুত্রসহ পিতা হত্যা মামলায় নিম্ন আদালতে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত ১২ ও  যাবজ্জীবন দন্ডিত ৪ আসামীকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও ইমদাদুল হক আজাদ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিতকরণ এবং জেল আপিলের শুনানি শেষে রোববার ওই রায় দেন। আদালতে আসামিদের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও ব্যারিস্টার আনোয়ারুল ইসলাম শাহীন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আমিনুর রহমান চৌধুরী। ফাঁসির দণ্ড থেকে খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- আবদুর রশিদ, সাইফুল ইসলাম, খত জামাল, ফারায়েজুল, নিপুণ, গণি, বাসেত, লাল মিয়া, গাফফার আলী, শফিকুল, আশরাফ আলী মালেক ও বাচ্চু। যাবজ্জীবন দণ্ড থেকে খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- জাহিদুল, ওয়াজেদুল, সফের ও মহসীন।
মামলা সূত্রে প্রকাশ, বগুড়ার ধুনট উপজেলার বড়চাপড়া গ্রামের আবদুল বাকী এবং তার দুই ছেলে ইয়াছিন ও আবদুল আজিজকে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে পরিকল্পিতভাবে ২০০৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর রাতে খুন করা হয়। পরদিন নিহত বাকীর ভাই কাফী বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে ধুনট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।  তদন্ত শেষে ২০০৫ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৪০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়।
২০০৭ সালের ৬ নভেম্বর রাজশাহী দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল ১২ জনকে ফাঁসি ও ৪ জনকে যাবজ্জীবন দণ্ড দিয়ে রায় দেন। বাকি ২৪ জনকে খালাস দেওয়া হয়। ওই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে ২০০৭ সালে জেল আপিল করেন আসামিরা। এ আবেদনের শুনানি শেষে হাইকোর্ট সাজাপ্রাপ্ত সব আসামিকে খালাসের রায় দেন।

error: কপি হবে না!