সকাল ৮:৫৭ | শনিবার | ৮ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করে সংকট সমাধান করতে হবে, সরকারকে অধিকার

4848_1ঢাকা: ‘স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের ইতিহাসে অন্যতম ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ ও সহিংসতায়’ গভীর উদ্বেগ জানিয়ে দেশের শীর্ষ মানবাধিকার সংস্থা- অধিকার মঙ্গলবার বলেছে, ‘সরকারকে অবিলম্বে নিরাপত্তা বাহিনীর ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করতে হবে এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে এই হত্যার দায় নিয়ে পদত্যাগ করতে হবে’। অধিকার একইসঙ্গে জোর দিয়ে বলেছে যে, ‘সরকারকে অবিলম্বে সকল পক্ষের সঙ্গে কথা বলে এই চলমান সংকটের সমাধান করতে হবে’।

img-add

এমন পরিস্থিতির মধ্যে ‘হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ীঘর ও উপসানালয় জ্বালিয়ে দেয়া’র ব্যাপারে ‘চরম ক্ষোভ’ জানিয়ে অধিকার আরো দাবি করছে যে, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে এই হত্যার দায় নিয়ে অবিলম্বে পদত্যাগ করতে হবে; নতুবা এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি দেশকে এক কঠিন পরিনতির দিকে নিয়ে যাবে, যার সমস্ত দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে’। দেশের ‘অসাম্প্রদায়িক ও শান্তিপ্রিয় জনগণ’কে সংখ্যালঘুদের সুরক্ষায় এগিয়ে আসারও আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

সহিংসতা দমনের অজুহাতে ফেব্রুয়ারি মাসের ৫ তারিখ থেকে মার্চের ০৪ তারিখ পর্যন্ত পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অন্ততপক্ষে ৯৮ জনকে গুলি চালিয়ে হত্যা করেছে; রাজনৈতিক কর্মী ছাড়াও এর মধ্যে রয়েছেন নারী, শিশু ও সাধারণ মানুষ। এই সময়ে বিপুল সংখ্যক মানুষ আহত হয়েছেন এবং ৫ জন পুলিশ বিক্ষোভকারীদের হাতে নিহত হয়েছেন। এই খবর প্রকাশ করা পর্যন্ত সময়ে আরো মৃত্যুর খবর আসছে।

এসব ঘটনায় ‘শোকাহত ও এই সহিংস পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন’ হবার কথা জানিয়ে এই প্রখ্যাত মানবাধিকার সংস্থাটি বিকেলে এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘দেশব্যাপী এক চরম নিরাপত্তাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হয়েছে। প্রতিনিয়ত মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে’।

সভাপতি ড. সি আর আবরার ও সম্পাদক আদিলুর রহমান খান স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা বিশেষভাবে উৎকণ্ঠিত যে, এই সময়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ীঘর ও উপসানালয় জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। অধিকার সরকার ও সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রতি অবিলম্বে হিন্দু সম্প্রদায়ের জান মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য দাবি জানাচ্ছে। সেইসঙ্গে বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক ও শান্তিপ্রিয় জনগণ ও মানবাধিকার কর্মীদের এইসব দুর্বৃত্তদের আক্রমণ থেকে হিন্দু প্রতিবেশীদের রক্ষার জন্য তাঁদের পাশে দাঁড়াতে অনুরোধ জানাচ্ছে’।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন বিএনপি-জামায়াত নেতাদের ফাঁসির দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে সমাবেশ শুরু হবার পর কয়েকজন ব্লগারের ব্লগে আল্লাহ ও মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) সম্পর্কে কটুক্তি, এই ঘটনার জের ধরে সহিংসতা ও এই সময় পুলিশের নির্বিচারে চালানো গুলিতে ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ২২ জন নিহত হয়েছেন। এই সময়ে নারী ও শিশুরাও হতাহতের শিকার হয়েছেন।

২৮ শে ফেব্রুয়ারী সহিংসতা মারাত্মক আকার ধারণ করে। এদিন জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীকে প্রথম আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল একাত্তর সালে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের জন্য ফাঁসির আদেশ দেয়ার পর জামায়াতে ইসলামী সহিংস বিক্ষোভ শুরু করে। এতে পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গুলি চালালে বিভিন্ন জায়গায় হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় পুলিশ ও অন্যান্য আাইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রাণঘাতী অস্ত্র ব্যবহার করে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে অনেক মানুষকে হত্যা করে। এমন হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ মানুষ থানা, স্থানীয় প্রশাসন এবং সরকারী স্থাপনা ঘেরাও ও হামলা করে।

সংস্থাটি বলছে, ‘অধিকার এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট মানবাধিকার কর্মীদের বিভিন্ন জেলা থেকে পাঠানো তথ্য থেকে জানা যায় যে, গুলিতে নিহত ব্যক্তিদের অনেকেই ছিলেন সাধারণ ছাত্র-কৃষক-জনতা এবং যারা রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না। বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলেও পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিক্ষোভরত নিরস্ত্র জনগণের দিকে অস্ত্র তাক করে গুলি ছুঁড়তে দেখা গেছে’।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘অধিকার এই হত্যাযজ্ঞের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। সহিংসতায় ব্যাপক প্রাণহানি এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করছে। অধিকার সরকারের প্রতি দাবি জানাচ্ছে যে, অবিলম্বে নির্বিচারে মানুষ হত্যা বন্ধ করতে হবে এবং বিদ্যমান সহিংস পরিস্থিতি সমাধানের লক্ষ্যে এবং মানবাধিকার, গণতন্ত্র ও সর্বোপরি দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার্থে রাজনৈতিক দল-মত নির্বিশেষে সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত এই সংকটের মোকাবেলা করতে হবে’।

দেশের মানবাধিকার সংস্থাগুলোর মধ্যে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে সম্মানজনক স্বীকৃতি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে অধিকার। দেশজুড়ে ‘মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মী’ রয়েছে সংস্থাটির। নিকট অতীতে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ও সীমান্তে ভারতীয় বাহিনীর হত্যাকাণ্ড প্রামাণ্য আকারে তুলে ধরতে একক ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সাথে যৌথভাবে নানা উদ্যোগ নিয়ে কাজ করেছে অধিকার।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর
26 ডিসেম্বর : মোহাম্মদ হাফিজ ও শোয়েব মালিক জুটির ১০৬ রানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভারতের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ৫ উইকেটে জিতে নিয়েছে পাকিস্তান। টস জিতে স্বাগতিকদের প্রথমে ব্যাটিং-এ পাঠায় মো. হাফিজ ৭৭ রানের উদ্বোধনী জুটির পরও ভারতকে থামতে হয় ১৩৩ রানে। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ভুবনেশ্বরের বোলিং তোপে পড়ে পাকিস্তান। দলীয় ১২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্য থেকে ছিটকে পড়ার উপক্রম হয়েছিলো সফরকারীদের। অভিষেকে ভুবনেশ্বর প্রথম ২ ওভারে ৩ রান দিয়ে নাসির জামশেদ, আহমেদ শেহজাদ ও উমর আকমলকে সাজঘরে ফিরিয়ে পাকিস্তানকে খাদের কিনারে পৌঁছে দেন। এরপর বাকিটুকু শুধুই পাকিস্তানেরই মোহাম্মদ হাফিজ ও শোয়েব মালিকের ব্যাটিংয়ে ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে চতুর্থ উইকেটে ১০৬ রানের জুটি গড়ে বিপদ কাটিয়ে দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেন এই দুই ব্যাটসম্যান। হাফিজ ৪৪ বলে ৬১ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন। তার ইনিংসে ছিলো ছয়টি চার ও দুটি ছয়ের মার। অন্যদিকে ৫০ বলে তিনটি চার ও তিন ছয়ে শোয়েব অপরাজিত ৫৭ রান করেন। ভারত: ১৩৩/৯ (২০ ওভার) পাকিস্তান: ১৩৪/৫ (১৯.৪ ওভার) ফল: পাকিস্তান ৫ উইকেটে জয়ী

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শেরপুরে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন

» ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন বঙ্গবন্ধুর বিশ্বস্ত সহচর : প্রধানমন্ত্রী

» শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীমের করোনা শনাক্ত

» বঙ্গবন্ধুর নীতি আদর্শ অনুসরণ করতে হবে ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

» স্বর্ণের দাম বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে

» কক্সবাজারে সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ টহল চলবে: আইএসপিআর

» বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে সর্বোচ্চ আন্তরিকতায় কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

» শ্রীবরদীতে দিনমজুর আইয়ুব আলী হত্যার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন ও বিক্ষোভ মিছিল

» নকলায় জাতীয় শোক দিবসের প্রস্তুতিমূলক সভা

» গারো পাহাড়ের হতদরিদ্র শিশুর পরিবাররা পেল খাদ্য সহায়তা

» দেশে করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু, শনাক্ত ২৯৭৭

» শেরপুরে প্রয়াত আলোকচিত্রী এস এ শাহরিয়ার রিপনের স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল

» শ্রীবরদীতে আদিবাসী নারীর ওপর হামলা

» নকলায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল শিক্ষার্থী

» শেরপুরে শেখ কামালের ৭১ তম জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  সকাল ৮:৫৭ | শনিবার | ৮ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করে সংকট সমাধান করতে হবে, সরকারকে অধিকার

4848_1ঢাকা: ‘স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের ইতিহাসে অন্যতম ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ ও সহিংসতায়’ গভীর উদ্বেগ জানিয়ে দেশের শীর্ষ মানবাধিকার সংস্থা- অধিকার মঙ্গলবার বলেছে, ‘সরকারকে অবিলম্বে নিরাপত্তা বাহিনীর ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করতে হবে এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে এই হত্যার দায় নিয়ে পদত্যাগ করতে হবে’। অধিকার একইসঙ্গে জোর দিয়ে বলেছে যে, ‘সরকারকে অবিলম্বে সকল পক্ষের সঙ্গে কথা বলে এই চলমান সংকটের সমাধান করতে হবে’।

img-add

এমন পরিস্থিতির মধ্যে ‘হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ীঘর ও উপসানালয় জ্বালিয়ে দেয়া’র ব্যাপারে ‘চরম ক্ষোভ’ জানিয়ে অধিকার আরো দাবি করছে যে, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে এই হত্যার দায় নিয়ে অবিলম্বে পদত্যাগ করতে হবে; নতুবা এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি দেশকে এক কঠিন পরিনতির দিকে নিয়ে যাবে, যার সমস্ত দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে’। দেশের ‘অসাম্প্রদায়িক ও শান্তিপ্রিয় জনগণ’কে সংখ্যালঘুদের সুরক্ষায় এগিয়ে আসারও আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

সহিংসতা দমনের অজুহাতে ফেব্রুয়ারি মাসের ৫ তারিখ থেকে মার্চের ০৪ তারিখ পর্যন্ত পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অন্ততপক্ষে ৯৮ জনকে গুলি চালিয়ে হত্যা করেছে; রাজনৈতিক কর্মী ছাড়াও এর মধ্যে রয়েছেন নারী, শিশু ও সাধারণ মানুষ। এই সময়ে বিপুল সংখ্যক মানুষ আহত হয়েছেন এবং ৫ জন পুলিশ বিক্ষোভকারীদের হাতে নিহত হয়েছেন। এই খবর প্রকাশ করা পর্যন্ত সময়ে আরো মৃত্যুর খবর আসছে।

এসব ঘটনায় ‘শোকাহত ও এই সহিংস পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন’ হবার কথা জানিয়ে এই প্রখ্যাত মানবাধিকার সংস্থাটি বিকেলে এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘দেশব্যাপী এক চরম নিরাপত্তাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হয়েছে। প্রতিনিয়ত মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে’।

সভাপতি ড. সি আর আবরার ও সম্পাদক আদিলুর রহমান খান স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা বিশেষভাবে উৎকণ্ঠিত যে, এই সময়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ীঘর ও উপসানালয় জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। অধিকার সরকার ও সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রতি অবিলম্বে হিন্দু সম্প্রদায়ের জান মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য দাবি জানাচ্ছে। সেইসঙ্গে বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক ও শান্তিপ্রিয় জনগণ ও মানবাধিকার কর্মীদের এইসব দুর্বৃত্তদের আক্রমণ থেকে হিন্দু প্রতিবেশীদের রক্ষার জন্য তাঁদের পাশে দাঁড়াতে অনুরোধ জানাচ্ছে’।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন বিএনপি-জামায়াত নেতাদের ফাঁসির দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে সমাবেশ শুরু হবার পর কয়েকজন ব্লগারের ব্লগে আল্লাহ ও মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) সম্পর্কে কটুক্তি, এই ঘটনার জের ধরে সহিংসতা ও এই সময় পুলিশের নির্বিচারে চালানো গুলিতে ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ২২ জন নিহত হয়েছেন। এই সময়ে নারী ও শিশুরাও হতাহতের শিকার হয়েছেন।

২৮ শে ফেব্রুয়ারী সহিংসতা মারাত্মক আকার ধারণ করে। এদিন জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীকে প্রথম আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল একাত্তর সালে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের জন্য ফাঁসির আদেশ দেয়ার পর জামায়াতে ইসলামী সহিংস বিক্ষোভ শুরু করে। এতে পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গুলি চালালে বিভিন্ন জায়গায় হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় পুলিশ ও অন্যান্য আাইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রাণঘাতী অস্ত্র ব্যবহার করে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে অনেক মানুষকে হত্যা করে। এমন হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ মানুষ থানা, স্থানীয় প্রশাসন এবং সরকারী স্থাপনা ঘেরাও ও হামলা করে।

সংস্থাটি বলছে, ‘অধিকার এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট মানবাধিকার কর্মীদের বিভিন্ন জেলা থেকে পাঠানো তথ্য থেকে জানা যায় যে, গুলিতে নিহত ব্যক্তিদের অনেকেই ছিলেন সাধারণ ছাত্র-কৃষক-জনতা এবং যারা রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না। বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলেও পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিক্ষোভরত নিরস্ত্র জনগণের দিকে অস্ত্র তাক করে গুলি ছুঁড়তে দেখা গেছে’।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘অধিকার এই হত্যাযজ্ঞের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। সহিংসতায় ব্যাপক প্রাণহানি এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করছে। অধিকার সরকারের প্রতি দাবি জানাচ্ছে যে, অবিলম্বে নির্বিচারে মানুষ হত্যা বন্ধ করতে হবে এবং বিদ্যমান সহিংস পরিস্থিতি সমাধানের লক্ষ্যে এবং মানবাধিকার, গণতন্ত্র ও সর্বোপরি দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার্থে রাজনৈতিক দল-মত নির্বিশেষে সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত এই সংকটের মোকাবেলা করতে হবে’।

দেশের মানবাধিকার সংস্থাগুলোর মধ্যে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে সম্মানজনক স্বীকৃতি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে অধিকার। দেশজুড়ে ‘মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মী’ রয়েছে সংস্থাটির। নিকট অতীতে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ও সীমান্তে ভারতীয় বাহিনীর হত্যাকাণ্ড প্রামাণ্য আকারে তুলে ধরতে একক ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সাথে যৌথভাবে নানা উদ্যোগ নিয়ে কাজ করেছে অধিকার।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর
26 ডিসেম্বর : মোহাম্মদ হাফিজ ও শোয়েব মালিক জুটির ১০৬ রানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভারতের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ৫ উইকেটে জিতে নিয়েছে পাকিস্তান। টস জিতে স্বাগতিকদের প্রথমে ব্যাটিং-এ পাঠায় মো. হাফিজ ৭৭ রানের উদ্বোধনী জুটির পরও ভারতকে থামতে হয় ১৩৩ রানে। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ভুবনেশ্বরের বোলিং তোপে পড়ে পাকিস্তান। দলীয় ১২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্য থেকে ছিটকে পড়ার উপক্রম হয়েছিলো সফরকারীদের। অভিষেকে ভুবনেশ্বর প্রথম ২ ওভারে ৩ রান দিয়ে নাসির জামশেদ, আহমেদ শেহজাদ ও উমর আকমলকে সাজঘরে ফিরিয়ে পাকিস্তানকে খাদের কিনারে পৌঁছে দেন। এরপর বাকিটুকু শুধুই পাকিস্তানেরই মোহাম্মদ হাফিজ ও শোয়েব মালিকের ব্যাটিংয়ে ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে চতুর্থ উইকেটে ১০৬ রানের জুটি গড়ে বিপদ কাটিয়ে দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেন এই দুই ব্যাটসম্যান। হাফিজ ৪৪ বলে ৬১ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন। তার ইনিংসে ছিলো ছয়টি চার ও দুটি ছয়ের মার। অন্যদিকে ৫০ বলে তিনটি চার ও তিন ছয়ে শোয়েব অপরাজিত ৫৭ রান করেন। ভারত: ১৩৩/৯ (২০ ওভার) পাকিস্তান: ১৩৪/৫ (১৯.৪ ওভার) ফল: পাকিস্তান ৫ উইকেটে জয়ী

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!