প্রকাশকাল: 28 জুলাই, 2016

স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতীকের মর্যাদা রক্ষায় চাই কঠোর পদক্ষেপ

Editorial-2এ কথা অনস্বীকার্য যে জাতীয় পতাকার সাথে যে কোনো স্বাধীন সার্বভৌম দেশের নাগরিকসাধারণের সম্মান ও মর্যাদার বিষয়টি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। কারণ যে কোনো দেশের জাতীয় সঙ্গীত, জাতীয় পতাকা ও জাতীয় প্রতীক জাতির সম্মান ও মর্যাদার প্রতীক হিসেবে বিবেচিত হয়। যে কারণে ওইসবের অবমাননা হলে জাতির অপমান হয়, জাতির সম্মানহানি হয়। আর ওইসবের অবমাননা করা হলে একটি জাতিকে, একটি স্বাধীন, সার্বভৌম রাষ্ট্রকে অবমাননা করা হয়েছে বলে গণ্য করা হয়। ফলে ওই স্পর্শকাতর বিষয়গুলোর ব্যাপারে পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই কঠোরভাবে সাবধানতা অবলম্বন করা হয়। যার মধ্যে ন্যূনতম দেশপ্রেম বোধ আছে সে কখনও জাতীয় প্রতীকের প্রতি অবমাননা প্রদর্শন করতে পারে না। রাষ্ট্রীয় সম্মান বিবেচনায়ও তা রাষ্ট্রদ্রোহী কাজ হিসেবে গণ্য করা হয়।
বাংলাদেশেও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাধারী সব দেশপ্রেমিক নাগরিকই আমাদের জাতীয় সঙ্গীত ও জাতীয় প্রতীকগুলোর প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান প্রদর্শন করে থাকেন। কিন্তু একাত্তরের পরাজিত শক্তি, যারা এখনও বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বকে মেনে নিতে পারেনি, তারা বারবার আমাদের জাতীয় প্রতীকগুলোর প্রতি প্রকাশ্যে-অপ্রকাশ্যে অসম্মান প্রদানের স্পর্ধা দেখাচ্ছে। তারা সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদী তৎপরতার মাধ্যমে একদিকে পুরো দেশেই ভয়-ভীতি ছড়িয়ে ফায়দা লুটার চেষ্টা চালাচ্ছে, অন্যদিকে আমাদের মহান ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার প্রতীকগুলো অবমাননা ও হামলার টার্গেট করছে। অনেকে আবার না জেনে, না বুঝে জাতীয় প্রতীকের প্রতি অবহেলা প্রদর্শন করছে। জাতীয় স্বার্থে এ চিত্রের অবসান হওয়া জরুরি।
গণসাক্ষরতা অভিযানের এডুকেশন ওয়াচ রিপোর্ট ২০১৫ শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে, দেশের প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর ২৩ শতাংশেই গাওয়া হয় না জাতীয় সঙ্গীত। সেইসঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয় না ৯ শতাংশ প্রতিষ্ঠানে। মাদ্রাসা এবং বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চিত্র আরও খারাপ বলে ইতোমধ্যে বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে। অথচ শিশুদের দেশপ্রেম ও মানবিক মূল্যবোধ সৃষ্টির প্রথম ধাপ প্রাথমিক শিক্ষা। সেখান থেকেই শিশুরা জানতে পারে দেশ ও সমাজ সম্পর্কে। সেইসঙ্গে তার সুকুমারবৃত্তি চর্চারও প্রাথমিক পর্যায় এটি। অথচ সেখানেই জাতীয় প্রতীকগুলোর প্রতি অবহেলা ও অবমাননা প্রদর্শন করা হচ্ছে। সেখানেই নেই শিক্ষার্থীদের উৎকর্ষ সাধনে পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা। শিশুকাল থেকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ না হওয়া এবং সাংস্কৃতিক চর্চা না থাকায় তারা হাঁটছে বিপথে। সাম্প্রতিক বিভিন্ন জঙ্গি হামলার সাথে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। যদি শিক্ষার্থীদের জাতীয় প্রতীকগুলোর প্রতি সম্মান প্রদর্শন ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করার জন্যে স্কুলগুলো সুচিন্তিত কর্মসূচি গ্রহণ করতো, তাহলে হয়তো শিক্ষার্থীরা জঙ্গি হামলার মতো ন্যাক্কারজনক তৎপরতায় নিজেকে জড়াতো না। আবার জাতীয় পতাকা উত্তোলন না করা এবং জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন না করাও একটি গর্হিত কাজ। এর জন্যে কঠিন শাস্তি বিধান আছে। কিন্তু সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর নজরদারির অভাবে জাতীয় প্রতীক অবমাননা করেও পার পেয়ে যাচ্ছে অপরাধীরা।
প্রসঙ্গত, দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের প্রতীকগুলো সগৌরবে তুলে ধরতেই জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ও পাস হয়েছিল জাতীয় সঙ্গীত, পতাকা ও প্রতীক (সংশোধন) বিল ২০১০। আইনটি নিশ্চয়ই রাজনৈতিক দলমত নির্বিশেষে দেশপ্রেমিক সকলকে সচেতন করেছে। দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হতে অনুপ্রাণিত করেছে তরুণ প্রজন্মকে এর ইতিবাচক প্রভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে বলে দেশের পত্র-পত্রিকায় খবরও প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু আশা জাগানিয়া ওই সুসংবাদের পাশাপাশি দুঃসংবাদটি হচ্ছে এখনও একাত্তরের পরাজিত শক্তি ইচ্ছাকৃতভাবে আমাদের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতীকগুলোর প্রতি অবমাননা ও অসম্মান প্রদর্শনের মতো ঘৃণ্যতম কাজ করে যাচ্ছে হরহামেশাই। ওই ঘৃণ্য কাজ যারা করছে, তাদের আইনের আওতায় নিয়ে দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি বাস্তবায়ন করাও জরুরিÑ বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে এমনটাই প্রত্যাশা জাতির।

আপনার মতামত দিন

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

অবাধে মাছ নিধন অমানবিক নির্যাতনে শিশুর মৃত্যু আত্মহত্যা আহত ইয়াবা উদ্ধার উড়াল সড়ক খুন গাছে বেঁধে নির্যাতন গাছের চারা বিতরণ ঘূর্ণিঝড় 'কোমেন' চাঁদা না পেয়ে স্কুলে হামলা ছিটমহল জাতির জনকের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জাতীয় শোক দিবস জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার সূচি প্রকাশ ঝিনাইগাতী টেস্ট ড্র ড. গোলাম রহমান রতন পাঞ্জাবের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিহত প্রত্যেক বিভাগে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রধানমন্ত্রী বন্যহাতির তান্ডব বন্যহাতির পায়ে পিষ্ট হয়ে নিহত বাল্যবিয়ের হার ভেঙে গেছে ব্রিজ মতিয়া চৌধুরী মাদারীপুর মির্জা ফখরুলের মেডিকেল রিপোর্ট রিমান্ডে লাশ উদ্ধার শাবলের আঘাতে শিশু খুন শাহ আলম বাবুল শিশু রাহাত হত্যা শেরপুর শেরপুরে অপহরণ শেরপুরে বন্যা শেরপুরের নবাগত জেলা প্রশাসক শ্যামলবাংলা২৪ডটকম’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সংঘর্ষে নিহত ৫ স্কুলছাত্র রাহাত হত্যা স্কুলছাত্রী অপহরণ হাতি বন্ধু কর্মশালা হুইপ আতিক হুমকি ২ স্কুলছাত্রী হত্যা
error: Content is protected !!