সকাল ৮:৫১ | মঙ্গলবার | ২৬শে মে, ২০২০ ইং | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সওজ’র রাস্তাগুলো প্রশস্ত না করলে ভবিষ্যতে অচল হয়ে পড়বে ময়মনসিংহ নগরী

রাস্তা প্রশস্ত না হলে কোনো ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং কাজে লাগবে না : পুলিশ সুপার

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ ॥ বিলুপ্ত ময়মনসিংহ পৌরসভা স্থাপিত হয়েছিলো ৮ই এপ্রিল ১৮৬৯ সালে। আর ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন স্থাপিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৮ সালে। প্রায় দেড়শত বছরের পূরনো প্রাচীণ ঐতিহ্যবাহী ময়মনসিংহ নগরীতে সোয়া ৮ লাখ লোক বসবাস করছে। নগরীতে মানুষ, যানবাহন, ঘরবাড়ি, বহুগুণে বৃদ্ধি পেলেও বাড়েনি রাস্তাঘাটের আকার। উপরন্তু অপরিকল্পিতভাবে বহুতল আবাসিক ঘরবাড়ি, অফিস-আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মার্কেট, বিপনীবিতান, শপিংমলের সংখ্যা বহুগুণে বৃদ্ধির পাশাপাশি বৃদ্ধি পেয়েছে নগরীর মানুষ, যানবাহন, ঘরবাড়ি ও আয়তন। অস্বাভাবিক হারে মানুষ ও যানবাহন বৃদ্ধির ফলে অপ্রশস্ত সড়কগুলো এখন ধারণ ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে। মহানগরীর অভ্যন্তরীন প্রধান প্রধান সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের (সওজ) এর সড়কগুলো অপ্রশস্ত হওয়ার কারণে দিনরাত তীব্র যানজট লেগেই থাকে। যানজট নগরবাসীর কাছে দুর্ভোগের প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখনই শহরের ভিতর দিয়ে মানুষ ও যান চলাচল করতে পারে না। তা ছাড়া শহরের ভিতর দিয়ে ট্রেন লাইনের কারণেও যানজট অন্যতম কারণ। তাই ট্রেনলাইনটি শহর থেকে স্থানান্তর করা উচিত। সওজ এর অধীন সড়কগুলো অবিলম্বে প্রশস্তকরণ না করলে অদূর ভবিষ্যতে অচল হয়ে পড়বে ময়মনসিংহ নগরী। এছাড়া নগরীর ভিতর দিয়ে কয়েকটি জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কের বয়ে গেলেও সংযোগ রক্ষাকারী ওইসব সড়কগুলো এখনো অপ্রশস্ত রয়ে গেছে। অথচ নগরীর বাইরের সড়কগুলো ইতিমধ্যেই চারলেনে প্রশস্ত করা হয়ে গেছে। তাই আগামী প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য নগরী উপহার দেয়ার জন্য জনস্বার্থেই বাড়িÑঘর ভেঙ্গে হলেও সড়কগুলো প্রশস্তকরণের কোনো বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন ময়মনসিংহের নবাগত পুলিশ সুপার মোহা. আহমান উজ্জামান। রাস্তা প্রশস্ত না করলে কোনো ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং কাজে লাগবে না বলেও তিনি সতর্ক করে দেন। তাই সকলে মিলে রাস্তা প্রশস্তকরণে এগিয়ে আসার পরামর্শ দেন মোহা. আহমান উজ্জামান।

img-add

চৌকস অফিসার ময়মনসিংহের নবাগত পুলিশ সুপার মোহা. আহমান উজ্জামান এক একান্ত সাক্ষাৎকারে এই প্রতিবেদককে জানান, ময়মনসিংহে যোগদানের পর সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে কথা বলেছি। ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন ) সৈয়দ মাহবুবুর রহমানকে নিয়ে প্রায় পুরো শহর ঘুরেছি। সবশেষে আমার পর্যবেক্ষণ হলো রাস্তা প্রশস্ত না করলে কোনো ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিংএ কাজে আসবে না।
জেলা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন ) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান জানান, ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি ব্যারিস্ট্রার হারুন অর রশিদ ও ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার মোহা. আহমান উজ্জামান ময়মনসিংহে যোগদানের পর শহরের যানজট নিরসনকল্পে একটি কমিটি করে দিয়েছেন। এই কমিটি রিপোর্ট তৈরী করছে। সুপারিশমালা তৈরি করে তা বাস্তবায়নের জন্য বাস্তবায়নকারী সংস্থার কাছে রিপোর্ট পাঠানো হবে। তার চাকরিজীবণে দেশে-বিদেশে নানা অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমান জানান, ময়মনসিংহ নগরীর যানজন নিরসন এবং স্বাচ্ছন্দে মানুষ যান চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিশেষ করে সওজএর রাস্তাগুলো প্রশস্তকরণের কোনো বিকল্প নেই। এখনই এর উদ্যোগ না নিলে আগামী দিনে ভয়াবহ পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে শহরবাসীকে।
ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমান আরো জানান, পাটগুদাম মোড় বাস্টস্ট্যান্ড, ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ট ও টাঙ্গাইল বাসস্ট্যান্ডসহ শহরের ভিতরের তিনটি বাসস্ট্যান্ডই সরাতে হবে। তাছাড়াও ট্রাক স্ট্যান্ডও সরাতে হবে। বিভিন্ন ট্রাফিক মোড়গুলো প্রশস্ত করে ইন্টারসেকশন তৈরি করা বিশেষ প্রয়োজন।
এদিকে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু নগরীর তীব্র জনজট ও নগরবাসীর দুর্ভোগ নিরসনকল্পে জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কের সাথে সংযোগ রক্ষাকারী ওইসব সড়কগুলোকে প্রশস্তকরণের জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী বরাবরে একটি ডিও লেটার দিয়েছেন। বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং সচিব মোঃ নজরুল ইসলাম সওজ এর সড়কগুলোকে অবিলম্বে প্রশস্তকরণের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মেয়র ইকরামুল হক টিটু। মেয়র ইকরামুল হক টিটু আরো জানান, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, রংপুরসহ বিভিন্ন সিটি কর্পোরেশনে বড় বড় বিল্ডিং ভেঙ্গে বিভিন্ন সড়ক প্রশস্ত করা হয়েছে। এ শহরটিতেও সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো প্রশস্ত না করলে আগামী দিনগুলোতে এ শহরটি দিয়ে যান চলাচল করা অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়বে। তাই আগামী প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য শহর উপহার দিতে জনস্বার্থে সওজ-এর রাস্তাগুলো চারলেন করে নির্মাণ এবং নগরীর ভিতর থেকে রেললাইন স্থানান্তর করা এখন সময়ের উপযুক্ত দাবী। রাস্তা প্রশস্তকরণসহ সব ধরণের উন্নয়নমূলক কাজে নগরবাসীর আন্তরিক সহযোগীতা কামনা করেছেন মেয়র টিটু।
ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের আয়তন ৯০.১৭৩ বর্গ কিলোমিটার। ৩৩টি ওয়ার্ডে মোট ২৯ হাজার ৭২৪টি হোল্ডিং এ প্রায় সোয়া ৮ লাখ লোকের বসবাস। সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের জাতীয় মহাসড়ক ও আঞ্চলিক মহাসড়কের প্রায় ৫০ কি.মি সড়ক রয়েছে। এছাড়া শহরে মোট সড়কের পরিমাণ এক হাজার ৪৬০ কি.মি. তন্মধ্যে পাকা রাস্তা ৪৮৬.৭৮ কি.মি, কাঁচা সড়ক ৯৪৫.৩৬ কি.মি, এইচবিবি ৫.৪১ কি.মি, আরসিসি ২২.৪৫ কি.মি.। বর্তমানে ময়মনসিংহ নগরীতে ১২ হাজার রিকশা ও ৭ হাজার অটোবাইক, কয়েক শত কার, মাইক্রোবাস চলাচল করছে।
এছাড়াও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ বাংলাদেশ (সিবিএমসিবি), নটরডেম কলেজ, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, আনন্দমোহন কলেজ, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বড় বড় শতাধিক বাস শহরের অভ্যন্তরে অপ্রশস্ত রাস্তা দিয়ে চলাচল করছে। এছাড়া শহরের মাঝখানে সিকেঘোষ রোডে পুরাতন ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড হতে প্রতিদিন ৫০টি বাস ত্রিশাল, বালিপাড়া ও ভালুকা রুটে চলাচল করছে। এছাড়াও আঞ্চলিক পরিবহন কমিটির একাধিক সভায় দিনের বেলায় শহরের অভ্যন্তরে ট্রাক প্রবেশ না করার সিদ্ধান্ত থাকলেও তা রহস্যজনক কারণে কার্যকর হচ্ছেনা। শহরের ভিতরে অধিক পরিমাণে বাস-ট্রাক চলাচলের কারণে যানজট আরো তীব্র হচ্ছে। যেস এগুলো দেখার কেউ নেই।
ময়মনসিংহ বিভাগ উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি বর্ষিয়ান প্রবীণ রাজণীতিবিদ অ্যাডভোকেট মোঃ আনিসুর রহমান খান জানান, ময়মনসিংহ শহরে বিগত ৫০ বছর পূর্বে যে পরিমাণ সড়ক ছিলো আজো সেই রকমই রয়ে গেছে। মানুষ বেড়েছে বহুগুণ কিন্ত সড়কের প্রশস্ততা বাড়ানো হয় নাই। ফলে শহরটিতে এখনই চলাচলের অনেকটা অযোগ্য হয়ে পড়েছে। তাই আগামী প্রজন্মে জন্য একটি বাসযোগ্য নগরী গড়ে তুলতে সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো জনস্বার্থেই চারলেন করে নির্মাণ করা এখন সর্বস্তরের মানুষের দাবী।
ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমীন কালাম জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের ১২তম ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন সৃৃষ্টি করেছেন। এই শহরটিতে ইদানিং তীব্র যানজটে মানুষ অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। অপ্রশস্ত সড়কে যানজট এখন নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার। অবিলম্বে শহরের সড়কগুলো প্রশস্ত করে নির্মাণ না করা হলে আগামী দিনগুলোতে অচল হয়ে পড়বে। তাই অবিলম্বে সিটি মেয়র টিটু প্রস্তাবিত সড়কগুলোসহ শহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রশস্তকরণ করার জন্য সশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আহবান জানিয়েছেন তিনি।
গণকল্যাণ পরিষদ (জিকেপি) নির্বাহী পরিচালক, শম্ভুগঞ্জ জিকেপি অনার্স কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও গভর্নিং বডির সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লায়ন ড. মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহবাসীর প্রতি সদয় হয়ে ১২তম সিটি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এই শহরটিকে একটি বাসযোগ্য নিরাপদ সুন্দর নগরীতে রূপান্তর করতে সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো জনস্বার্থে চারলেন করে নির্মাণ করাসহ বড় বড় রাস্তা আরো প্রশস্ত করাসহ প্রয়োজনীয় সব ধরণের উন্নয়নের পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন।
ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন এলাকার প্রধান সমস্যা সওজ এর অপ্রশস্ত সড়ক ও তীব্র যাজট। বিগত চার বছরেও বিভাগীয় শহরে দৃশ্যমান উল্লেখযোগ্য কোনো অগ্রগতি নেই। ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যানবাহন চলাচলের কারণে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজটের কবল থেকে রেহাই পাচ্ছেনা নগরবাসী, ফলে ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরটি বর্তমানে চলাচলের অনেকটা অযোগ্য হয়ে পড়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক সাবেক মূখ্য সমন্বয়ক মোঃ আবুল কালাম আজাদ বিগত সময়ে ময়মনসিংহে দুটি বৃহৎ সভায় বিভাগীয় শহরের সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো প্রশস্ত ও চারলেন করে নির্মাণের লক্ষ্যে প্রকল্প তৈরির নির্দেশনা দিলেও এখনো তা বাস্তবায়নের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। তাই অবিলম্বে জনস্বার্থে বিভাগীয় শহরের প্রধান প্রধান রাস্তাগুলো ৪ লেনে উন্নীতসহ শহরের সকল রাস্তা প্রশস্ত করা এবং ময়মনসিংহ শহরের মাঝখান দিয়ে চলমান রেল লাইনটি স্থানান্তর করা বিশেষ প্রয়োজন। নগরীর সওজসহ প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রশস্ত করে নির্মাণ করা না হলে আগামী প্রজন্ম আমাদের ক্ষমা করবে না।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» সম্প্রীতির শিক্ষা ছড়িয়ে পড়ুক, গড়ে উঠুক সমৃদ্ধ দেশ : রাষ্ট্রপতি

» শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ পালন করুন : কাদের

» তিনটি জীবন্ত ‘করোনা ভাইরাস’ ছিল উহানের ল্যাবে!

» ঘরে বসেই ঈদের আনন্দ উপভোগ করার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর

» শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে, কাল ঈদ

» সাধারণ ছুটি বাড়বে কিনা সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

» শেরপুরে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলেন হুইপ আতিক

» শেরপুরের ৭ গ্রামে আগাম ঈদুল ফিতর পালিত

» সাবেক এমপি শ্যামলী ॥ মানবতার এক অনন্য ফেরীওয়ালা

» শেরপুরে পত্রিকার হকারদের মাঝে পুলিশের ঈদ উপহার

» শেরপুরে আরও দুইজনের করোনা শনাক্ত ॥ জেলায় মোট আক্রান্ত ৭৭

» ঈদে শবনম ফারিয়ার চমক

» করোনায় একদিনে রেকর্ড ২৮ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৫৩২

» শেরপুরে ৩ হাজার দরিদ্র ও অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান

» শেরপুরের সূর্যদীর সেই শহীদ পরিবার ও যুদ্ধাহত পরিবারগুলোর পাশে জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  সকাল ৮:৫১ | মঙ্গলবার | ২৬শে মে, ২০২০ ইং | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সওজ’র রাস্তাগুলো প্রশস্ত না করলে ভবিষ্যতে অচল হয়ে পড়বে ময়মনসিংহ নগরী

রাস্তা প্রশস্ত না হলে কোনো ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং কাজে লাগবে না : পুলিশ সুপার

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ ॥ বিলুপ্ত ময়মনসিংহ পৌরসভা স্থাপিত হয়েছিলো ৮ই এপ্রিল ১৮৬৯ সালে। আর ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন স্থাপিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৮ সালে। প্রায় দেড়শত বছরের পূরনো প্রাচীণ ঐতিহ্যবাহী ময়মনসিংহ নগরীতে সোয়া ৮ লাখ লোক বসবাস করছে। নগরীতে মানুষ, যানবাহন, ঘরবাড়ি, বহুগুণে বৃদ্ধি পেলেও বাড়েনি রাস্তাঘাটের আকার। উপরন্তু অপরিকল্পিতভাবে বহুতল আবাসিক ঘরবাড়ি, অফিস-আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মার্কেট, বিপনীবিতান, শপিংমলের সংখ্যা বহুগুণে বৃদ্ধির পাশাপাশি বৃদ্ধি পেয়েছে নগরীর মানুষ, যানবাহন, ঘরবাড়ি ও আয়তন। অস্বাভাবিক হারে মানুষ ও যানবাহন বৃদ্ধির ফলে অপ্রশস্ত সড়কগুলো এখন ধারণ ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে। মহানগরীর অভ্যন্তরীন প্রধান প্রধান সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের (সওজ) এর সড়কগুলো অপ্রশস্ত হওয়ার কারণে দিনরাত তীব্র যানজট লেগেই থাকে। যানজট নগরবাসীর কাছে দুর্ভোগের প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখনই শহরের ভিতর দিয়ে মানুষ ও যান চলাচল করতে পারে না। তা ছাড়া শহরের ভিতর দিয়ে ট্রেন লাইনের কারণেও যানজট অন্যতম কারণ। তাই ট্রেনলাইনটি শহর থেকে স্থানান্তর করা উচিত। সওজ এর অধীন সড়কগুলো অবিলম্বে প্রশস্তকরণ না করলে অদূর ভবিষ্যতে অচল হয়ে পড়বে ময়মনসিংহ নগরী। এছাড়া নগরীর ভিতর দিয়ে কয়েকটি জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কের বয়ে গেলেও সংযোগ রক্ষাকারী ওইসব সড়কগুলো এখনো অপ্রশস্ত রয়ে গেছে। অথচ নগরীর বাইরের সড়কগুলো ইতিমধ্যেই চারলেনে প্রশস্ত করা হয়ে গেছে। তাই আগামী প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য নগরী উপহার দেয়ার জন্য জনস্বার্থেই বাড়িÑঘর ভেঙ্গে হলেও সড়কগুলো প্রশস্তকরণের কোনো বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন ময়মনসিংহের নবাগত পুলিশ সুপার মোহা. আহমান উজ্জামান। রাস্তা প্রশস্ত না করলে কোনো ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং কাজে লাগবে না বলেও তিনি সতর্ক করে দেন। তাই সকলে মিলে রাস্তা প্রশস্তকরণে এগিয়ে আসার পরামর্শ দেন মোহা. আহমান উজ্জামান।

img-add

চৌকস অফিসার ময়মনসিংহের নবাগত পুলিশ সুপার মোহা. আহমান উজ্জামান এক একান্ত সাক্ষাৎকারে এই প্রতিবেদককে জানান, ময়মনসিংহে যোগদানের পর সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে কথা বলেছি। ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন ) সৈয়দ মাহবুবুর রহমানকে নিয়ে প্রায় পুরো শহর ঘুরেছি। সবশেষে আমার পর্যবেক্ষণ হলো রাস্তা প্রশস্ত না করলে কোনো ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিংএ কাজে আসবে না।
জেলা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন ) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান জানান, ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি ব্যারিস্ট্রার হারুন অর রশিদ ও ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার মোহা. আহমান উজ্জামান ময়মনসিংহে যোগদানের পর শহরের যানজট নিরসনকল্পে একটি কমিটি করে দিয়েছেন। এই কমিটি রিপোর্ট তৈরী করছে। সুপারিশমালা তৈরি করে তা বাস্তবায়নের জন্য বাস্তবায়নকারী সংস্থার কাছে রিপোর্ট পাঠানো হবে। তার চাকরিজীবণে দেশে-বিদেশে নানা অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমান জানান, ময়মনসিংহ নগরীর যানজন নিরসন এবং স্বাচ্ছন্দে মানুষ যান চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিশেষ করে সওজএর রাস্তাগুলো প্রশস্তকরণের কোনো বিকল্প নেই। এখনই এর উদ্যোগ না নিলে আগামী দিনে ভয়াবহ পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে শহরবাসীকে।
ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমান আরো জানান, পাটগুদাম মোড় বাস্টস্ট্যান্ড, ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ট ও টাঙ্গাইল বাসস্ট্যান্ডসহ শহরের ভিতরের তিনটি বাসস্ট্যান্ডই সরাতে হবে। তাছাড়াও ট্রাক স্ট্যান্ডও সরাতে হবে। বিভিন্ন ট্রাফিক মোড়গুলো প্রশস্ত করে ইন্টারসেকশন তৈরি করা বিশেষ প্রয়োজন।
এদিকে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু নগরীর তীব্র জনজট ও নগরবাসীর দুর্ভোগ নিরসনকল্পে জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কের সাথে সংযোগ রক্ষাকারী ওইসব সড়কগুলোকে প্রশস্তকরণের জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী বরাবরে একটি ডিও লেটার দিয়েছেন। বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং সচিব মোঃ নজরুল ইসলাম সওজ এর সড়কগুলোকে অবিলম্বে প্রশস্তকরণের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মেয়র ইকরামুল হক টিটু। মেয়র ইকরামুল হক টিটু আরো জানান, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, রংপুরসহ বিভিন্ন সিটি কর্পোরেশনে বড় বড় বিল্ডিং ভেঙ্গে বিভিন্ন সড়ক প্রশস্ত করা হয়েছে। এ শহরটিতেও সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো প্রশস্ত না করলে আগামী দিনগুলোতে এ শহরটি দিয়ে যান চলাচল করা অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়বে। তাই আগামী প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য শহর উপহার দিতে জনস্বার্থে সওজ-এর রাস্তাগুলো চারলেন করে নির্মাণ এবং নগরীর ভিতর থেকে রেললাইন স্থানান্তর করা এখন সময়ের উপযুক্ত দাবী। রাস্তা প্রশস্তকরণসহ সব ধরণের উন্নয়নমূলক কাজে নগরবাসীর আন্তরিক সহযোগীতা কামনা করেছেন মেয়র টিটু।
ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের আয়তন ৯০.১৭৩ বর্গ কিলোমিটার। ৩৩টি ওয়ার্ডে মোট ২৯ হাজার ৭২৪টি হোল্ডিং এ প্রায় সোয়া ৮ লাখ লোকের বসবাস। সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের জাতীয় মহাসড়ক ও আঞ্চলিক মহাসড়কের প্রায় ৫০ কি.মি সড়ক রয়েছে। এছাড়া শহরে মোট সড়কের পরিমাণ এক হাজার ৪৬০ কি.মি. তন্মধ্যে পাকা রাস্তা ৪৮৬.৭৮ কি.মি, কাঁচা সড়ক ৯৪৫.৩৬ কি.মি, এইচবিবি ৫.৪১ কি.মি, আরসিসি ২২.৪৫ কি.মি.। বর্তমানে ময়মনসিংহ নগরীতে ১২ হাজার রিকশা ও ৭ হাজার অটোবাইক, কয়েক শত কার, মাইক্রোবাস চলাচল করছে।
এছাড়াও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ বাংলাদেশ (সিবিএমসিবি), নটরডেম কলেজ, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, আনন্দমোহন কলেজ, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বড় বড় শতাধিক বাস শহরের অভ্যন্তরে অপ্রশস্ত রাস্তা দিয়ে চলাচল করছে। এছাড়া শহরের মাঝখানে সিকেঘোষ রোডে পুরাতন ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড হতে প্রতিদিন ৫০টি বাস ত্রিশাল, বালিপাড়া ও ভালুকা রুটে চলাচল করছে। এছাড়াও আঞ্চলিক পরিবহন কমিটির একাধিক সভায় দিনের বেলায় শহরের অভ্যন্তরে ট্রাক প্রবেশ না করার সিদ্ধান্ত থাকলেও তা রহস্যজনক কারণে কার্যকর হচ্ছেনা। শহরের ভিতরে অধিক পরিমাণে বাস-ট্রাক চলাচলের কারণে যানজট আরো তীব্র হচ্ছে। যেস এগুলো দেখার কেউ নেই।
ময়মনসিংহ বিভাগ উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি বর্ষিয়ান প্রবীণ রাজণীতিবিদ অ্যাডভোকেট মোঃ আনিসুর রহমান খান জানান, ময়মনসিংহ শহরে বিগত ৫০ বছর পূর্বে যে পরিমাণ সড়ক ছিলো আজো সেই রকমই রয়ে গেছে। মানুষ বেড়েছে বহুগুণ কিন্ত সড়কের প্রশস্ততা বাড়ানো হয় নাই। ফলে শহরটিতে এখনই চলাচলের অনেকটা অযোগ্য হয়ে পড়েছে। তাই আগামী প্রজন্মে জন্য একটি বাসযোগ্য নগরী গড়ে তুলতে সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো জনস্বার্থেই চারলেন করে নির্মাণ করা এখন সর্বস্তরের মানুষের দাবী।
ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমীন কালাম জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের ১২তম ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন সৃৃষ্টি করেছেন। এই শহরটিতে ইদানিং তীব্র যানজটে মানুষ অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। অপ্রশস্ত সড়কে যানজট এখন নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার। অবিলম্বে শহরের সড়কগুলো প্রশস্ত করে নির্মাণ না করা হলে আগামী দিনগুলোতে অচল হয়ে পড়বে। তাই অবিলম্বে সিটি মেয়র টিটু প্রস্তাবিত সড়কগুলোসহ শহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রশস্তকরণ করার জন্য সশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আহবান জানিয়েছেন তিনি।
গণকল্যাণ পরিষদ (জিকেপি) নির্বাহী পরিচালক, শম্ভুগঞ্জ জিকেপি অনার্স কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও গভর্নিং বডির সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লায়ন ড. মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহবাসীর প্রতি সদয় হয়ে ১২তম সিটি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এই শহরটিকে একটি বাসযোগ্য নিরাপদ সুন্দর নগরীতে রূপান্তর করতে সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো জনস্বার্থে চারলেন করে নির্মাণ করাসহ বড় বড় রাস্তা আরো প্রশস্ত করাসহ প্রয়োজনীয় সব ধরণের উন্নয়নের পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন।
ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন এলাকার প্রধান সমস্যা সওজ এর অপ্রশস্ত সড়ক ও তীব্র যাজট। বিগত চার বছরেও বিভাগীয় শহরে দৃশ্যমান উল্লেখযোগ্য কোনো অগ্রগতি নেই। ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যানবাহন চলাচলের কারণে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজটের কবল থেকে রেহাই পাচ্ছেনা নগরবাসী, ফলে ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরটি বর্তমানে চলাচলের অনেকটা অযোগ্য হয়ে পড়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক সাবেক মূখ্য সমন্বয়ক মোঃ আবুল কালাম আজাদ বিগত সময়ে ময়মনসিংহে দুটি বৃহৎ সভায় বিভাগীয় শহরের সড়ক বিভাগের রাস্তাগুলো প্রশস্ত ও চারলেন করে নির্মাণের লক্ষ্যে প্রকল্প তৈরির নির্দেশনা দিলেও এখনো তা বাস্তবায়নের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। তাই অবিলম্বে জনস্বার্থে বিভাগীয় শহরের প্রধান প্রধান রাস্তাগুলো ৪ লেনে উন্নীতসহ শহরের সকল রাস্তা প্রশস্ত করা এবং ময়মনসিংহ শহরের মাঝখান দিয়ে চলমান রেল লাইনটি স্থানান্তর করা বিশেষ প্রয়োজন। নগরীর সওজসহ প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রশস্ত করে নির্মাণ করা না হলে আগামী প্রজন্ম আমাদের ক্ষমা করবে না।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!