দুপুর ২:৩৪ | বৃহস্পতিবার | ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শ্রীবরদীতে আমন ধানের ভাসমান বীজতলা

শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি ॥ বন্যায় বীজতলা ক্ষতির আশংকায় এবার শেরপুরের শ্রীবরদীতে আমন ধানের ভাসমান বীজতলা করেছেন নূর মোহাম্মদ নামে এক কৃষক। তিনি উপজেলার খড়িয়াকাজীরচর ইউনিয়নের লংগড়পাড়া গ্রামের ছায়েদ আলীর ছেলে ও ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তার এই ভাসমান বীজতলা দেখে বন্যা কবলিত এলাকার লোকজনের মধ্যে সাড়া পড়েছে। ১৭ আগস্ট সোমবার সরেজমিন গেলে তিনি তুলে ধরেন তার এই ভাসমান বীজতলার সফলতার কথা।

img-add

কৃষক নূর মোহাম্মদ জানান, তাদের এলাকায় প্রতি বছর বন্যায় আমন ধানের বীজতলা পানিতে ডুবে যায়। এতে বীজতলার ব্যাপক ক্ষতি হয়। বন্যার কারণে অনেক কৃষক আমন ধানের চারার অভাবে সময় মতো ক্ষেতে চারা রোপন করতে পারেন না। অনেকের ক্ষেত পড়ে থাকে বিরান ভূমি। প্রায় এক মাস আগে তিনি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন দিলদারের পরামর্শে আমন ধানের ভাসমান বীজতলা তৈরি করেন। এক একর জমির জন্যে ৮ কেজি হাইব্রীড জাতের ধানের চারার জন্যে পানির ওপর ৮টি বেড তৈরি করেন। এতে তার খরচ হয় প্রায় ৫ হাজার টাকা। তিনি বলেন, ভাসমান বীজতলায় আমন ধানের চারা বন্যার হাত থেকে রক্ষা পাবে। এই ভাসমান আমন ধানের বীজতলা দেখে তার এলাকার লোকজনও আগ্রহ প্রকাশ করছেন। স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য জাবের মিয়া বলেন, খড়িয়াকাজীরচর ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকা বন্যার পানিতে তলিয়ে যায়। এতে আমন ধানের বীজতলার সংকট দেখা দেয়। বন্যায় এই ভাসমান এই বীজতলার কোনো ক্ষতি হবে না। এই জন্য অনেকেই আগামিতে ভাসমান বীজতলা করবে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন দিলদার বলেন, বন্যা কবলিত এলাকায় ভাসমান বীজতলা করার পরামর্শ দেয়া হয়। যাতে বীজতলার অভাবে আমন ধান চাষের বিঘœ না ঘটে। এতে ব্যয় একটু বেশি হলেও আমন ধানের চারার অভাব পড়বে না।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ইতালির ড্রোন ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শেরপুরের আয়মান নাকীব

» যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে গেলেন সাকিব

» শেরপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২ লক্ষাধিক শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল

» সরকারি অনুদানে নির্মিত ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমার শুটিং শেষ

» ব্যবসায়ীরা ভালো থাকলে ব্যাংকগুলোও ভালো থাকবে : অর্থমন্ত্রী

» শেরপুরে বিক্রি হওয়া শিশু সন্তানকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল পুলিশ

» ডিএনসিসিতে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন শুরু ৪ অক্টোবর

» ৩ অক্টোবরের পরও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়বে : শিক্ষামন্ত্রী

» বিএনপির আন্দোলন পত্রিকার পাতা আর ফেসবুক স্ট্যাটাসে সীমাবদ্ধ: কাদের

» শ্রীবরদীতে গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে মানববন্ধন-স্মারকলিপি প্রদান

» রিফাত হত্যায় স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

» নকলায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস পালিত

» বার্সার স্বার্থেই সবসময় খেলেছি : মেসি

» ঢাকায় নৌকার টিকিট পেলেন হাবিব, সিরাজগঞ্জে শাকিল

» বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় সব আসামি খালাস

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  দুপুর ২:৩৪ | বৃহস্পতিবার | ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শ্রীবরদীতে আমন ধানের ভাসমান বীজতলা

শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি ॥ বন্যায় বীজতলা ক্ষতির আশংকায় এবার শেরপুরের শ্রীবরদীতে আমন ধানের ভাসমান বীজতলা করেছেন নূর মোহাম্মদ নামে এক কৃষক। তিনি উপজেলার খড়িয়াকাজীরচর ইউনিয়নের লংগড়পাড়া গ্রামের ছায়েদ আলীর ছেলে ও ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তার এই ভাসমান বীজতলা দেখে বন্যা কবলিত এলাকার লোকজনের মধ্যে সাড়া পড়েছে। ১৭ আগস্ট সোমবার সরেজমিন গেলে তিনি তুলে ধরেন তার এই ভাসমান বীজতলার সফলতার কথা।

img-add

কৃষক নূর মোহাম্মদ জানান, তাদের এলাকায় প্রতি বছর বন্যায় আমন ধানের বীজতলা পানিতে ডুবে যায়। এতে বীজতলার ব্যাপক ক্ষতি হয়। বন্যার কারণে অনেক কৃষক আমন ধানের চারার অভাবে সময় মতো ক্ষেতে চারা রোপন করতে পারেন না। অনেকের ক্ষেত পড়ে থাকে বিরান ভূমি। প্রায় এক মাস আগে তিনি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন দিলদারের পরামর্শে আমন ধানের ভাসমান বীজতলা তৈরি করেন। এক একর জমির জন্যে ৮ কেজি হাইব্রীড জাতের ধানের চারার জন্যে পানির ওপর ৮টি বেড তৈরি করেন। এতে তার খরচ হয় প্রায় ৫ হাজার টাকা। তিনি বলেন, ভাসমান বীজতলায় আমন ধানের চারা বন্যার হাত থেকে রক্ষা পাবে। এই ভাসমান আমন ধানের বীজতলা দেখে তার এলাকার লোকজনও আগ্রহ প্রকাশ করছেন। স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য জাবের মিয়া বলেন, খড়িয়াকাজীরচর ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকা বন্যার পানিতে তলিয়ে যায়। এতে আমন ধানের বীজতলার সংকট দেখা দেয়। বন্যায় এই ভাসমান এই বীজতলার কোনো ক্ষতি হবে না। এই জন্য অনেকেই আগামিতে ভাসমান বীজতলা করবে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন দিলদার বলেন, বন্যা কবলিত এলাকায় ভাসমান বীজতলা করার পরামর্শ দেয়া হয়। যাতে বীজতলার অভাবে আমন ধান চাষের বিঘœ না ঘটে। এতে ব্যয় একটু বেশি হলেও আমন ধানের চারার অভাব পড়বে না।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!