[bangla_time] | [bangla_day] | [english_date] | [bangla_date]

শেরপুর পৌরসভার মেয়র গোলাম কিবরিয়া লিটনের ৬০তম জন্মদিন আজ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঐতিহ্যবাহী শেরপুর পৌরসভার দু’দফায় নির্বাচিত মেয়র, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বিশিষ্ট সংগঠক আলহাজ্ব গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটনের ৬০তম জন্মদিন আজ (৬ নভেম্বর)। মেধা-মনন ও পরিচ্ছন্নতায় ব্যতিক্রমী ব্যক্তিত্ব লিটন ১৯৫৯ সালের এই দিনে শেরপুর শহরের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা শেরপুর অঞ্চলের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা ও প্রয়াত সাবেক এমপি নিজাম উদ্দিন আহমেদ। মাতা মরহুমা হোসনেয়ারা বেগম। স্ত্রী শাহিনা আক্তার পারভীন পৌর লেডিস ক্লাবের সভানেত্রী ও উইমেন্স চেম্বার অব কমার্সের সহ-সভানেত্রী। জ্যেষ্ঠ সন্তান একমাত্র পুত্র শিহাব আহমেদ কিবরিয়া শ্রাবণ ব্রিটিশ ল’ কলেজের শিক্ষার্থী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক। একমাত্র কন্যা নাফিসা আহমেদ কিবরিয়া বর্ষা শিক্ষার্থী। এদিকে ৬০তম জন্মদিন উপলক্ষে পৌরসভাসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় অভিসিক্ত করার প্রস্তুতি চলছে।
৬০ তম জন্মদিন উপলক্ষে শ্যামলবাংলা২৪ডটকমের তরফ থেকে গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন ও তার স্বজনদের সাথে কথা বলে তুলে ধরা হলো তার বর্ণাঢ্য জীবনের সম্যক চিত্র। তার প্রাথমিক শিক্ষা জীবন কাটে শহরের নয়ানীবাজারস্থ বাগড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এরপর তিনি জিকে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করলেও ১৯৭৫ সালে এসএসসি পাস করেন রাজধানী ঢাকার মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। পরে ১৯৭৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি ও পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন।
ছাত্রজীবন থেকেই তিনি আওয়ামী লীগের আদর্শের ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। ওই অবস্থায় মান্নান-নানকের সময়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সুলতান-রহমান কমিটির সময়কালে শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক এবং হাবিব-অসীম কমিটির সময়কালে ১নং সদস্য নির্বাচিত হন। ছাত্র রাজনীতির সুবাদে এরশাদবিরোধী আন্দোলনে তিনি দীর্ঘ ৯ মাস কারাবন্দী ছিলেন। এরপর নানা ঘাত-প্রতিঘাতের দীর্ঘ সময় পেরিয়ে তিনি প্রথমে ২০০৩ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও ২০১৫ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে এখন পর্যন্ত ওই দায়িত্বে রয়েছেন।
রাজনীতির পাশাপাশি তিনি পারিবারিক সূত্রে অভিজাত ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে জড়িত রয়েছেন। সেই সুবাদে তিনি ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন শেরপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির ৩ দফায় নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন। এছাড়া জেলা চাউল কল মালিক সমিতিরও তিনি নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন। তিনি কাকলী বহুমুখী সঞ্চয় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা এবং বর্তমান প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। এছাড়া শহরের মডেল গার্লস ডিগ্রী কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও জেলার একমাত্র ইংলিশ মিডিয়াম ইন্টারন্যাশনাল স্কুল শেরপুরের প্রতিষ্ঠাতা-চেয়ারম্যান।
সামাজিক-সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও তার রয়েছে বিস্তর বিচরণ। এ সুবাদে তিনি শেরপুর ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বৃহত্তর ময়মনসিংহ সাংস্কৃতিক ফোরাম জেলা শাখার সভাপতি, সাংস্কৃতিক সংসদ শেরপুরের সভাপতি, শেরপুর রোটারী ক্লাবের পাস্ট প্রেসিডেন্ট, জেলা উদীচীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, শেরপুর ডায়াবেটিক সমিতির নির্বাহী সদস্য।
তিনি ২০০৪ সালে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে প্রথমবারের মতো শেরপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তার মেয়াদকালেই পৌর চেয়ারম্যান পদবী পরিবর্তন করে মেয়র করা হয়। পরের নির্বাচনে তিনি অংশ না নিলেও ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর দ্বিতীয় দফায় নৌকা প্রতীকে অংশ নিয়ে ফের মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি দীর্ঘ সময় মেয়রের দায়িত্ব পালনের সুবাদে শেরপুর শহরকে একটি পরিচ্ছন্ন ও আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। মেয়র হিসেবে তার বড় সৌভাগ্য হচ্ছে তার সময়েই এ বছর পৌরসভার ১৫০ বছর পূর্তি উদযাপিত হয়েছে। আর ওই উৎসবের মধ্য দিয়ে শহরে শেখ হাসিনার নামে একটি সু-উচ্চ টাওয়ার, শেখ রাসেল মাল্টিপারপাস স্পোর্টিং কমপ্লেক্স ও শাহ কামালের মাজার উন্নয়নসহ সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।
মেয়র হিসেবে তিনি ভারত, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ফ্রান্স, সাউথ কোরিয়া কোরিয়া ও থাইল্যান্ড ভ্রমণ করে যথেষ্ট অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছেন। ওই সফরগুলোর মাধ্যমে অর্জিত অভিজ্ঞতার আলোকে তিনি বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, স্যানিটেশন ও শহরে সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে রয়েছে পৌর গেইট ও এটিআইয়ের সামনে নান্দনিক ঝরণা, থানা মোড়ে রাজসিক ঘোড়ার স্থাপত্য, নিউমার্কেট চত্ত্বরে স্পাইডার ম্যান ও বসার বেঞ্চ ইত্যাদি।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার সুবাদে বর্তমানে তার প্রতিষ্ঠিত বন্ধুমহলের সংখ্যাও নেহায়েত কম নয়। তাদের মধ্যে রয়েছেন বর্তমান মন্ত্রীপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, সেনা প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আব্দুল আজিজ, সাবেক বিমান বাহিনীর প্রধান এনামুল বারী, আর্থিক ও ব্যাংক পরিষদ সচিব আসাদুল ইসলাম, পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক।
জীবনের ৬০ বছর পূর্তির অভিব্যক্তি ব্যক্ত করতে গিয়ে তিনি শ্যামলবাংলা২৪ডটকমকে বলেন, এটি মনে করিয়ে দেয় বয়স অনেক হয়েছে। তবে আমার তরফ থেকে যতটুকু করা উচিত ছিলো তা আমি সমাজ ও দেশের জন্য করতে পারিনি। মেয়র হিসেবে মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছি। আল্লাহতায়ালা দীর্ঘজীবী ও সুস্থ রাখলে সমাজ ও দেশের জন্য অনেক কিছু করার ইচ্ছে রয়েছে। পাশাপাশি আরও এগিয়ে যেতে চাই রাজনীতিতে।
কর্মসূচি : পৌর মেয়র লিটনের ৬০তম জন্মদিন উপলক্ষে আজ বুধবার সকালে নিজাম উদ্দিন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শহরের পৌর অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী সংসদের উদ্যোগে সন্ধ্যায় পৌর পরিষদ সভাকক্ষে আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» মোহাম্মদ জাকির হোসাইনের কবিতা ‘প্রণাম যোগ্য তুমি’

» শেরপুরে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যানদের পরিচিতি ও মতবিনিময় সভা

» শেরপুরে সংকটের গুজবে বাজারে লবণ কেনার ধুম ॥ ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে জরিমানা

» অনির্দিষ্টকালের জন্য পণ্য পরিবহন বন্ধ ঘোষণা

» প্রেম করছি, আগামী বছর বিয়েও করব : জয়া আহসান

» লবণের ঘাটতি নেই, গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান মন্ত্রণালয়ের

» শাহাদাতকে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ করল বিসিবি

» পেঁয়াজের পর চালের দাম বাড়ানোর ষড়যন্ত্র চলছে : নাসিম

» নকলায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে ভুট্টা বীজ ও সার বিতরণ

» শেরপুরে সহযোগীসহ ভূয়া ডিবি পুলিশ গ্রেফতার

» ঝিনাইগাতীতে প্রান্তিক চাষীদের মাঝে কৃষি প্রণোদনা বিতরণ

» শেরপুরে জয়যাত্রা টেলিভিশনের ১ম বর্ষপূর্তি ও অফিস উদ্বোধন

» শ্রীবরদী পৌরসভায় পাইপ লাইন স্থাপন কাজের উদ্বোধন

» শেরপুরে তৃতীয় লিঙ্গ হিজড়া কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা

» শেরপুরে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক আমজাদ হোসেন স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

কারিগরি সহযোগিতায় BD iT Zone

,

শেরপুর পৌরসভার মেয়র গোলাম কিবরিয়া লিটনের ৬০তম জন্মদিন আজ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঐতিহ্যবাহী শেরপুর পৌরসভার দু’দফায় নির্বাচিত মেয়র, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বিশিষ্ট সংগঠক আলহাজ্ব গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটনের ৬০তম জন্মদিন আজ (৬ নভেম্বর)। মেধা-মনন ও পরিচ্ছন্নতায় ব্যতিক্রমী ব্যক্তিত্ব লিটন ১৯৫৯ সালের এই দিনে শেরপুর শহরের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা শেরপুর অঞ্চলের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা ও প্রয়াত সাবেক এমপি নিজাম উদ্দিন আহমেদ। মাতা মরহুমা হোসনেয়ারা বেগম। স্ত্রী শাহিনা আক্তার পারভীন পৌর লেডিস ক্লাবের সভানেত্রী ও উইমেন্স চেম্বার অব কমার্সের সহ-সভানেত্রী। জ্যেষ্ঠ সন্তান একমাত্র পুত্র শিহাব আহমেদ কিবরিয়া শ্রাবণ ব্রিটিশ ল’ কলেজের শিক্ষার্থী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক। একমাত্র কন্যা নাফিসা আহমেদ কিবরিয়া বর্ষা শিক্ষার্থী। এদিকে ৬০তম জন্মদিন উপলক্ষে পৌরসভাসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় অভিসিক্ত করার প্রস্তুতি চলছে।
৬০ তম জন্মদিন উপলক্ষে শ্যামলবাংলা২৪ডটকমের তরফ থেকে গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন ও তার স্বজনদের সাথে কথা বলে তুলে ধরা হলো তার বর্ণাঢ্য জীবনের সম্যক চিত্র। তার প্রাথমিক শিক্ষা জীবন কাটে শহরের নয়ানীবাজারস্থ বাগড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এরপর তিনি জিকে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করলেও ১৯৭৫ সালে এসএসসি পাস করেন রাজধানী ঢাকার মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। পরে ১৯৭৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি ও পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন।
ছাত্রজীবন থেকেই তিনি আওয়ামী লীগের আদর্শের ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। ওই অবস্থায় মান্নান-নানকের সময়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সুলতান-রহমান কমিটির সময়কালে শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক এবং হাবিব-অসীম কমিটির সময়কালে ১নং সদস্য নির্বাচিত হন। ছাত্র রাজনীতির সুবাদে এরশাদবিরোধী আন্দোলনে তিনি দীর্ঘ ৯ মাস কারাবন্দী ছিলেন। এরপর নানা ঘাত-প্রতিঘাতের দীর্ঘ সময় পেরিয়ে তিনি প্রথমে ২০০৩ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও ২০১৫ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে এখন পর্যন্ত ওই দায়িত্বে রয়েছেন।
রাজনীতির পাশাপাশি তিনি পারিবারিক সূত্রে অভিজাত ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে জড়িত রয়েছেন। সেই সুবাদে তিনি ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন শেরপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির ৩ দফায় নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন। এছাড়া জেলা চাউল কল মালিক সমিতিরও তিনি নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন। তিনি কাকলী বহুমুখী সঞ্চয় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা এবং বর্তমান প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। এছাড়া শহরের মডেল গার্লস ডিগ্রী কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও জেলার একমাত্র ইংলিশ মিডিয়াম ইন্টারন্যাশনাল স্কুল শেরপুরের প্রতিষ্ঠাতা-চেয়ারম্যান।
সামাজিক-সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও তার রয়েছে বিস্তর বিচরণ। এ সুবাদে তিনি শেরপুর ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বৃহত্তর ময়মনসিংহ সাংস্কৃতিক ফোরাম জেলা শাখার সভাপতি, সাংস্কৃতিক সংসদ শেরপুরের সভাপতি, শেরপুর রোটারী ক্লাবের পাস্ট প্রেসিডেন্ট, জেলা উদীচীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, শেরপুর ডায়াবেটিক সমিতির নির্বাহী সদস্য।
তিনি ২০০৪ সালে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে প্রথমবারের মতো শেরপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তার মেয়াদকালেই পৌর চেয়ারম্যান পদবী পরিবর্তন করে মেয়র করা হয়। পরের নির্বাচনে তিনি অংশ না নিলেও ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর দ্বিতীয় দফায় নৌকা প্রতীকে অংশ নিয়ে ফের মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি দীর্ঘ সময় মেয়রের দায়িত্ব পালনের সুবাদে শেরপুর শহরকে একটি পরিচ্ছন্ন ও আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। মেয়র হিসেবে তার বড় সৌভাগ্য হচ্ছে তার সময়েই এ বছর পৌরসভার ১৫০ বছর পূর্তি উদযাপিত হয়েছে। আর ওই উৎসবের মধ্য দিয়ে শহরে শেখ হাসিনার নামে একটি সু-উচ্চ টাওয়ার, শেখ রাসেল মাল্টিপারপাস স্পোর্টিং কমপ্লেক্স ও শাহ কামালের মাজার উন্নয়নসহ সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।
মেয়র হিসেবে তিনি ভারত, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ফ্রান্স, সাউথ কোরিয়া কোরিয়া ও থাইল্যান্ড ভ্রমণ করে যথেষ্ট অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছেন। ওই সফরগুলোর মাধ্যমে অর্জিত অভিজ্ঞতার আলোকে তিনি বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, স্যানিটেশন ও শহরে সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে রয়েছে পৌর গেইট ও এটিআইয়ের সামনে নান্দনিক ঝরণা, থানা মোড়ে রাজসিক ঘোড়ার স্থাপত্য, নিউমার্কেট চত্ত্বরে স্পাইডার ম্যান ও বসার বেঞ্চ ইত্যাদি।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার সুবাদে বর্তমানে তার প্রতিষ্ঠিত বন্ধুমহলের সংখ্যাও নেহায়েত কম নয়। তাদের মধ্যে রয়েছেন বর্তমান মন্ত্রীপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, সেনা প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আব্দুল আজিজ, সাবেক বিমান বাহিনীর প্রধান এনামুল বারী, আর্থিক ও ব্যাংক পরিষদ সচিব আসাদুল ইসলাম, পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক।
জীবনের ৬০ বছর পূর্তির অভিব্যক্তি ব্যক্ত করতে গিয়ে তিনি শ্যামলবাংলা২৪ডটকমকে বলেন, এটি মনে করিয়ে দেয় বয়স অনেক হয়েছে। তবে আমার তরফ থেকে যতটুকু করা উচিত ছিলো তা আমি সমাজ ও দেশের জন্য করতে পারিনি। মেয়র হিসেবে মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছি। আল্লাহতায়ালা দীর্ঘজীবী ও সুস্থ রাখলে সমাজ ও দেশের জন্য অনেক কিছু করার ইচ্ছে রয়েছে। পাশাপাশি আরও এগিয়ে যেতে চাই রাজনীতিতে।
কর্মসূচি : পৌর মেয়র লিটনের ৬০তম জন্মদিন উপলক্ষে আজ বুধবার সকালে নিজাম উদ্দিন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শহরের পৌর অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী সংসদের উদ্যোগে সন্ধ্যায় পৌর পরিষদ সভাকক্ষে আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

কারিগরি সহযোগিতায় BD iT Zone

error: Content is protected !!