রাত ৮:০২ | মঙ্গলবার | ১০ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে শীতের তীব্রতায় বাড়ছে ঠান্ডাজনিত রোগের প্রকোপ

জাহিদুল খান সৌরভ, শেরপুর : শীতের শুরুতেই ঘন কুয়াশা আর হিমেল বাতাসে শেরপুরের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ। বিভিন্ন রোগ-বালাইয়ে আক্রান্ত হচ্ছেন শিশু ও বৃদ্ধরা। বিশেষ করে ছোট্ট শিশুদের মাঝে ঠান্ডাজনিত ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া প্রকোপ বেড়েছে।
পৌষের শুরুতেই প্রচণ্ড শীত যেন এবার শেরপুরবাসীকে জানান দিচ্ছে, আগামী দিনগুলোতে আরও বাড়বে শীতের তীব্রতা। নিতান্ত পেটের দায়ে যেসব খেটে খাওয়া দিন-মজুর শ্রেণির লোকজন বাইরে বের হচ্ছেন, তারা হাড় কাঁপানো শীতের তীব্রতায় হচ্ছেন জবু-থবু। অপরদিকে লেপ-কাঁথা, কম্বল আর গরম কাপড় যাদের ভাগ্যে জুটে না, তারা সামান্য খড়-কুটোয় আগুন জ্বেলে শীতের তীব্রতাকে মোকাবেলা করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় দরিদ্র মানুষরা ভীড় করছেন ফুটপাতের পুরনো গরম কাপড়ের বিক্রেতাদের কাছে।
এদিকে প্রচন্ড শীতের কারণে শিশুদের ডায়রিয়া ও শ্বাসকষ্ট বা নিউমোনিয়াসহ ঠান্ডাজনিত রোগ আশংকাজনক হারে বেড়েছে। শেরপুরের বেশ কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিক ও সরকারি হাসপাতালে ঘুরে দেখা যায়, সেখানকার শিশু ওয়ার্ডগুলিতে ওই রোগে আক্রান্ত শিশুদের ভীড়। হাসপাতালগুলির সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন হাসপাতালে গড়ে ৪-৫টি শিশু প্রতিদিন ভর্তি হচ্ছে। যা বিগত যেকোনো বছরের তুলনায় বেশি বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
সদর উপজেলার দড়িপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মনিজা খাতুন শ্যামলবাংলা২৪ডটকমকে জানান, আমার মেয়ে মারিয়া জান্নাত (৩ মাস) কে নিয়ে এক সপ্তাহ ধরে সদর হাসপাতালে ভর্তি আছি, তার সমস্যা হলো নিউমোনিয়া ও শ্বাসকষ্ট।
জেলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মনিকা রায় চৌধুরী জানান, গত এক সপ্তাহে বহির্বিভাগে ঠান্ডাজনিত রোগ সর্দি, জ্বর, কাশি এবং ডায়রিয়াজনিত শতাধিক রোগীর চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ট্রফি বিহীন অধিনায়কদের অবাক ফটোসেশন !

» শ্রীবরদীতে অষ্টকালীন লীলা কীর্ত্তণ অনুষ্ঠিত

» শ্রীবরদীতে লটারির মাধ্যমে ধান বিক্রির সুযোগ পেয়েছে ১৭৪৩ জন কৃষক

» শেরপুরের নবীন লেখিকা অরবিয়া তানজীল নিশির ‘প্রস্থান’

» ‘বাল্যবিবাহকে না বলুন, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সহায়তা করুন’

» শেরপুরে আমন ধান সংগ্রহ অভিযান উদ্বোধন করলেন হুইপ আতিক

» বঙ্গবন্ধু জাদুঘর ঘুরে গেলেন মাশরাফি-তামিমরা

» মিস ইউনিভার্স হলেন দক্ষিণ আফ্রিকার তুনজি

» শেরপুর থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ ॥ ভোগান্তিতে যাত্রী সাধারণ

» সব খেলা থেকে নিষিদ্ধ হল রাশিয়া !

» শহীদ মিনারে অজয় রায়ের প্রতি সর্বস্তরের মানুষের শেষ শ্রদ্ধা

» বিশ্ব মানবাধিকার দিবস আজ

» শেরপুরে বিশ্ব মানবাধিকার দিবসে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» মিয়ানমারকে আন্তর্জাতিকভাবে বয়কটের ডাক

» রাজশাহীর টিপু রাজাকারের রায় কাল

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  রাত ৮:০২ | মঙ্গলবার | ১০ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে শীতের তীব্রতায় বাড়ছে ঠান্ডাজনিত রোগের প্রকোপ

জাহিদুল খান সৌরভ, শেরপুর : শীতের শুরুতেই ঘন কুয়াশা আর হিমেল বাতাসে শেরপুরের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ। বিভিন্ন রোগ-বালাইয়ে আক্রান্ত হচ্ছেন শিশু ও বৃদ্ধরা। বিশেষ করে ছোট্ট শিশুদের মাঝে ঠান্ডাজনিত ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া প্রকোপ বেড়েছে।
পৌষের শুরুতেই প্রচণ্ড শীত যেন এবার শেরপুরবাসীকে জানান দিচ্ছে, আগামী দিনগুলোতে আরও বাড়বে শীতের তীব্রতা। নিতান্ত পেটের দায়ে যেসব খেটে খাওয়া দিন-মজুর শ্রেণির লোকজন বাইরে বের হচ্ছেন, তারা হাড় কাঁপানো শীতের তীব্রতায় হচ্ছেন জবু-থবু। অপরদিকে লেপ-কাঁথা, কম্বল আর গরম কাপড় যাদের ভাগ্যে জুটে না, তারা সামান্য খড়-কুটোয় আগুন জ্বেলে শীতের তীব্রতাকে মোকাবেলা করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় দরিদ্র মানুষরা ভীড় করছেন ফুটপাতের পুরনো গরম কাপড়ের বিক্রেতাদের কাছে।
এদিকে প্রচন্ড শীতের কারণে শিশুদের ডায়রিয়া ও শ্বাসকষ্ট বা নিউমোনিয়াসহ ঠান্ডাজনিত রোগ আশংকাজনক হারে বেড়েছে। শেরপুরের বেশ কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিক ও সরকারি হাসপাতালে ঘুরে দেখা যায়, সেখানকার শিশু ওয়ার্ডগুলিতে ওই রোগে আক্রান্ত শিশুদের ভীড়। হাসপাতালগুলির সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন হাসপাতালে গড়ে ৪-৫টি শিশু প্রতিদিন ভর্তি হচ্ছে। যা বিগত যেকোনো বছরের তুলনায় বেশি বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
সদর উপজেলার দড়িপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মনিজা খাতুন শ্যামলবাংলা২৪ডটকমকে জানান, আমার মেয়ে মারিয়া জান্নাত (৩ মাস) কে নিয়ে এক সপ্তাহ ধরে সদর হাসপাতালে ভর্তি আছি, তার সমস্যা হলো নিউমোনিয়া ও শ্বাসকষ্ট।
জেলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মনিকা রায় চৌধুরী জানান, গত এক সপ্তাহে বহির্বিভাগে ঠান্ডাজনিত রোগ সর্দি, জ্বর, কাশি এবং ডায়রিয়াজনিত শতাধিক রোগীর চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!