বিকাল ৫:২২ | বুধবার | ২৭শে মে, ২০২০ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে করোনা শনাক্ত হওয়া সেই ২ নারীর সংস্পর্শে থাকা ২০ জনের নমুনা সংগ্রহ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরে হাসপাতালের এক নারী স্টাফসহ ২ নারীর শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ায় তাদের সংস্পর্শে থাকা আরও ২০ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। ৫ এপ্রিল রবিবার রাতে সাতানি শ্রীবরদী এলাকার বাসিন্দা ও শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়া (৫০) এবং সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের ছনকান্দা এলাকার গৃহবধূর (৪০) শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরপরই প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ ও এলাকায় হুলস্থুল শুরু হয়। ফলে রাতেই ওই ২ নারীকে জেলা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেইসাথে ওই আয়ার কর্মস্থল শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, যাতায়াতকারী স্থানীয় প্রাইভেট ক্লিনিক নিবিড় ডায়াগনোস্টিক সেন্টার ও তার বসতবাড়িসহ আশেপাশের ২০টি বাড়ি এবং ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়িসহ পার্শ্ববর্তী লছমনপুর ইউনিয়নের লছমনপুর গ্রামস্থ পিতার বাড়িসহ আশেপাশের ৪০টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করে স্থানীয় প্রশাসন। তবে ৬ এপ্রিল সোমবার দুপুর থেকে শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগ সীমিতভাবে চালু করা হয়েছে।
এদিকে শেরপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ একেএম আনওয়ারুর রউফ জানান, সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ওই আয়ার সংস্পর্শে থাকা শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক ও বাড়ির লোকজনসহ ১০ এবং ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়ির ও পিতার বাড়ির ৪ জন করে ৮ জনসহ তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া ২ পল্লী চিকিৎসকের নমুনা সংগ্রহ করেছে স্ব-স্ব উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। ইতোমধ্যে ৯ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে পাঠানো হয়েছে। বাকিগুলো আগামীকাল সকালে পাঠানো হবে। এছাড়া রবিবার ঝিনাইগাতী উপজেলার ৪ জন ও শ্রীবরদী উপজেলার আরও ২ জনের সংগ্রহ করা নমুনা সোমবার সকালে ওই করোনা ইউনিটে পৌঁছানো হয়েছে। তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত সেগুলো পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যায়নি। এর আগে রবিবার পর্যন্ত জেলায় মোট ১৬ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হলে ১৪ জনের রিপোর্টই নেগেটিভ আসে।

img-add

অন্যদিকে সম্ভাব্য পরিস্থিতি মোকাবেলাসহ করোনা রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে জেলা সদর হাসপাতালে ৫০টিসহ ৫ উপজেলায় ১৫০টি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা করোনা ভাইরাস সেবা ইউনিটের দায়িত্বে থাকা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোবারক হোসেন। তিনি আরও জানান, জেলায় এখন পর্যন্ত সরকারিভাবে ১৫শ, জেলা বিএমএ ২০, ইদ্রিস গ্রুপ অব কোম্পানি ৫০ ও জেলা প্রাণীসম্পদ বিভাগের তরফ থেকে ৩৫টিসহ মোট ১৬০৫টি পিপিই (প্রাইভেট প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট) পাওয়া গেছে। তার তথ্যমতে, জেলা সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ড শুরু হওয়ায় দৈনিক ওই হাসপাতালে জরুরি বিভাগসহ ৯টি পিপিই (একবার ব্যবহারযোগ্য) ব্যবহার হচ্ছে।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শেরপুরে প্রেমের অভিনয়ে মোবাইল ফোনে স্কুলছাত্রীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ : ধর্ষকসহ গ্রেফতার ৩

» ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা বেগমের মৃত্যু

» এবার বিয়ে বিতর্কে নোবেল

» ভারত মহাসাগরের টেকটনিক প্লেট ভেঙে দু’টুকরা, ভয়াবহ ভূমিকম্পের আশঙ্কা

» সিরাজগঞ্জে নৌকাডুবি, শিশুসহ ৩ জনের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ ৩০

» মালদ্বীপ থেকে ফিরলেন ১২০০ জন

» ঈদের দিনও বিষোদগার থেকে বেরুতে পারেনি বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

» ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত ১১৬৬, মৃত্যু ২১

» করোনায় নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যু

» ঝিনাইগাতীতে কালবৈশাখীর ছোবলে ঘরবাড়ি ও সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি

» শেরপুরে ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি করায় কলেজ শিক্ষার্থী গ্রেফতার

» শেরপুরে করোনা পরিস্থিতে মসজিদে মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়

» ভিন্ন এক আবহে অন্যরকম ঈদ উদযাপন

» সম্প্রীতির শিক্ষা ছড়িয়ে পড়ুক, গড়ে উঠুক সমৃদ্ধ দেশ : রাষ্ট্রপতি

» শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ পালন করুন : কাদের

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  বিকাল ৫:২২ | বুধবার | ২৭শে মে, ২০২০ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে করোনা শনাক্ত হওয়া সেই ২ নারীর সংস্পর্শে থাকা ২০ জনের নমুনা সংগ্রহ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরে হাসপাতালের এক নারী স্টাফসহ ২ নারীর শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ায় তাদের সংস্পর্শে থাকা আরও ২০ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। ৫ এপ্রিল রবিবার রাতে সাতানি শ্রীবরদী এলাকার বাসিন্দা ও শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়া (৫০) এবং সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের ছনকান্দা এলাকার গৃহবধূর (৪০) শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরপরই প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ ও এলাকায় হুলস্থুল শুরু হয়। ফলে রাতেই ওই ২ নারীকে জেলা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেইসাথে ওই আয়ার কর্মস্থল শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, যাতায়াতকারী স্থানীয় প্রাইভেট ক্লিনিক নিবিড় ডায়াগনোস্টিক সেন্টার ও তার বসতবাড়িসহ আশেপাশের ২০টি বাড়ি এবং ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়িসহ পার্শ্ববর্তী লছমনপুর ইউনিয়নের লছমনপুর গ্রামস্থ পিতার বাড়িসহ আশেপাশের ৪০টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করে স্থানীয় প্রশাসন। তবে ৬ এপ্রিল সোমবার দুপুর থেকে শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগ সীমিতভাবে চালু করা হয়েছে।
এদিকে শেরপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ একেএম আনওয়ারুর রউফ জানান, সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ওই আয়ার সংস্পর্শে থাকা শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক ও বাড়ির লোকজনসহ ১০ এবং ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়ির ও পিতার বাড়ির ৪ জন করে ৮ জনসহ তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া ২ পল্লী চিকিৎসকের নমুনা সংগ্রহ করেছে স্ব-স্ব উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। ইতোমধ্যে ৯ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে পাঠানো হয়েছে। বাকিগুলো আগামীকাল সকালে পাঠানো হবে। এছাড়া রবিবার ঝিনাইগাতী উপজেলার ৪ জন ও শ্রীবরদী উপজেলার আরও ২ জনের সংগ্রহ করা নমুনা সোমবার সকালে ওই করোনা ইউনিটে পৌঁছানো হয়েছে। তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত সেগুলো পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যায়নি। এর আগে রবিবার পর্যন্ত জেলায় মোট ১৬ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হলে ১৪ জনের রিপোর্টই নেগেটিভ আসে।

img-add

অন্যদিকে সম্ভাব্য পরিস্থিতি মোকাবেলাসহ করোনা রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে জেলা সদর হাসপাতালে ৫০টিসহ ৫ উপজেলায় ১৫০টি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা করোনা ভাইরাস সেবা ইউনিটের দায়িত্বে থাকা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোবারক হোসেন। তিনি আরও জানান, জেলায় এখন পর্যন্ত সরকারিভাবে ১৫শ, জেলা বিএমএ ২০, ইদ্রিস গ্রুপ অব কোম্পানি ৫০ ও জেলা প্রাণীসম্পদ বিভাগের তরফ থেকে ৩৫টিসহ মোট ১৬০৫টি পিপিই (প্রাইভেট প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট) পাওয়া গেছে। তার তথ্যমতে, জেলা সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ড শুরু হওয়ায় দৈনিক ওই হাসপাতালে জরুরি বিভাগসহ ৯টি পিপিই (একবার ব্যবহারযোগ্য) ব্যবহার হচ্ছে।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!