বিকাল ৩:১২ | সোমবার | ২৫শে মে, ২০২০ ইং | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে ভুল চিকিৎসায় গর্ভের সন্তানের মৃত্যু ॥ তদন্ত কমিটির ইউনাইটেড হাসপাতাল পরিদর্শন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুর শহরের অনুমোদনবিহীন ইউনাইটেড হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় সিজারকালে অঙ্গ কেটে গর্ভের সন্তানের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে গঠিত তদন্ত কমিটি ওই হাসপাতাল পরিদর্শন করেছে। ৭ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে তদন্ত কমিটির সভাপতি জেলা সদর হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (গাইনী) ডাঃ লুৎফর রহমান, সদস্য সচিব সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোবারক হোসেন ও সদস্য সদর হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (শিশু) ডাঃ আসাদুজ্জামান ওই হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। ওইসময় তারা ওই হাসপাতালের জনবল, কাগজপত্র, চিকিৎসা সরঞ্জাম, পরিবেশ সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেন এবং উপস্থিত থাকাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তবে ওইসময় অভিযুক্ত হাসপাতাল মালিক মিলন তালুকদার, চিকিৎসক ডাঃ জসিম উদ্দিন ও ডাঃ মুসলিমা আক্তার মৌসুমী এবং পরিচালক দিদারুল ইসলামের মধ্যে কেউ ছিলেন না। ধারণা করা হচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রেকর্ড হওয়ায় তারা গাঁ ঢাকা দিয়েছেন।
ইউনাইটেড হাসপাতাল পরিদর্শন প্রসঙ্গে তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব ডাঃ মোবারক হোসেন বলেন, পরিদর্শনকালে মালিক-পরিচালক বা অভিযুক্ত চিকিৎসকদের কাউকে পাওয়া না গেলেও উপস্থিত থাকা ডাঃ রেজওয়ান তাদের সহায়তা করেছেন। শিশু মৃত্যুর ঘটনায় অভিযোগকারী এবং ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ওই প্রসূতির সিজারকালে উপস্থিত চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্যদেরসহ আগামী ১২ নভেম্বর সকাল ১০টায় জেলা সদর হাসপাতাল সভাকক্ষে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্তসহ তদন্ত কমিটির কাছে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। তিনি আশা করছেন, বেঁধে দেওয়া সময়-সীমার মধ্যে ওই শিশুর ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেশ করা সম্ভব হবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ওই হাসপাতালের অনুমোদনসংক্রান্ত কোন কাগজ পাওয়া যায়নি। কর্তৃপক্ষ অনুমোদনের জন্য আবেদন করেছেন মাত্র।
এ ব্যাপারে ছুটিতে থাকা সদ্য যোগদানকারী সিভিল সার্জন ডাঃ একেএম আনারুর রউফ বলেন, বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালের শিশু মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মেডিকেল বোর্ড গঠনের মাধ্যমে ওই শিশুর ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের আলোকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, শেরপুর শহরের খোয়ারপাড় এলাকার শাহিনুর রহমান পনিরের সন্তানসম্ভবা স্ত্রী তানিয়া (২২) ডাঃ হাসিনাতুল ফেরদৌস লোপার তত্ত্বাবধানে ছিলেন। ৪ নভেম্বর সোমবার সকালে তানিয়া ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হলে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই সময় ডাঃ লোপার স্বামী মিলন তালুকদারের পরামর্শে তানিয়াকে সন্ধ্যায় তাদের মালিকানাধীন ইউনাইটেড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে রোগীকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে মিলনের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ডাঃ মুসলিমা আক্তার মৌসুমী অস্ত্রোপচার করলে প্রসূতির গর্ভের সন্তান মারা যায়। ঘটনার পরে অস্ত্রোপচারকৃত প্রসূতির চিকিৎসা না দিয়ে ওই হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক ও নার্স কৌশলে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই প্রসূতি ও মৃত নবজাতককে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। ওই ঘটনায় প্রসূতির স্বামী শাহিনুর রহমান পনির বাদী হয়ে মালিক, ২ চিকিৎসক ও পরিচালকসহ ৪ জনকে স্ব-নামে ও অজ্ঞাতনামা আরও ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ পালন করুন : কাদের

» তিনটি জীবন্ত ‘করোনা ভাইরাস’ ছিল উহানের ল্যাবে!

» ঘরে বসেই ঈদের আনন্দ উপভোগ করার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর

» শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে, কাল ঈদ

» সাধারণ ছুটি বাড়বে কিনা সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

» শেরপুরে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলেন হুইপ আতিক

» শেরপুরের ৭ গ্রামে আগাম ঈদুল ফিতর পালিত

» সাবেক এমপি শ্যামলী ॥ মানবতার এক অনন্য ফেরীওয়ালা

» শেরপুরে পত্রিকার হকারদের মাঝে পুলিশের ঈদ উপহার

» শেরপুরে আরও দুইজনের করোনা শনাক্ত ॥ জেলায় মোট আক্রান্ত ৭৭

» ঈদে শবনম ফারিয়ার চমক

» করোনায় একদিনে রেকর্ড ২৮ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৫৩২

» শেরপুরে ৩ হাজার দরিদ্র ও অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান

» শেরপুরের সূর্যদীর সেই শহীদ পরিবার ও যুদ্ধাহত পরিবারগুলোর পাশে জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব

» শেরপুরে ৯৬ শিক্ষার্থীর ভাড়া মওকুফ করে দিলেন ছাত্রাবাসের মালিক

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  বিকাল ৩:১২ | সোমবার | ২৫শে মে, ২০২০ ইং | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে ভুল চিকিৎসায় গর্ভের সন্তানের মৃত্যু ॥ তদন্ত কমিটির ইউনাইটেড হাসপাতাল পরিদর্শন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুর শহরের অনুমোদনবিহীন ইউনাইটেড হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় সিজারকালে অঙ্গ কেটে গর্ভের সন্তানের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে গঠিত তদন্ত কমিটি ওই হাসপাতাল পরিদর্শন করেছে। ৭ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে তদন্ত কমিটির সভাপতি জেলা সদর হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (গাইনী) ডাঃ লুৎফর রহমান, সদস্য সচিব সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোবারক হোসেন ও সদস্য সদর হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (শিশু) ডাঃ আসাদুজ্জামান ওই হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। ওইসময় তারা ওই হাসপাতালের জনবল, কাগজপত্র, চিকিৎসা সরঞ্জাম, পরিবেশ সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেন এবং উপস্থিত থাকাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তবে ওইসময় অভিযুক্ত হাসপাতাল মালিক মিলন তালুকদার, চিকিৎসক ডাঃ জসিম উদ্দিন ও ডাঃ মুসলিমা আক্তার মৌসুমী এবং পরিচালক দিদারুল ইসলামের মধ্যে কেউ ছিলেন না। ধারণা করা হচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রেকর্ড হওয়ায় তারা গাঁ ঢাকা দিয়েছেন।
ইউনাইটেড হাসপাতাল পরিদর্শন প্রসঙ্গে তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব ডাঃ মোবারক হোসেন বলেন, পরিদর্শনকালে মালিক-পরিচালক বা অভিযুক্ত চিকিৎসকদের কাউকে পাওয়া না গেলেও উপস্থিত থাকা ডাঃ রেজওয়ান তাদের সহায়তা করেছেন। শিশু মৃত্যুর ঘটনায় অভিযোগকারী এবং ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ওই প্রসূতির সিজারকালে উপস্থিত চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্যদেরসহ আগামী ১২ নভেম্বর সকাল ১০টায় জেলা সদর হাসপাতাল সভাকক্ষে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্তসহ তদন্ত কমিটির কাছে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। তিনি আশা করছেন, বেঁধে দেওয়া সময়-সীমার মধ্যে ওই শিশুর ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেশ করা সম্ভব হবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ওই হাসপাতালের অনুমোদনসংক্রান্ত কোন কাগজ পাওয়া যায়নি। কর্তৃপক্ষ অনুমোদনের জন্য আবেদন করেছেন মাত্র।
এ ব্যাপারে ছুটিতে থাকা সদ্য যোগদানকারী সিভিল সার্জন ডাঃ একেএম আনারুর রউফ বলেন, বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালের শিশু মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মেডিকেল বোর্ড গঠনের মাধ্যমে ওই শিশুর ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের আলোকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, শেরপুর শহরের খোয়ারপাড় এলাকার শাহিনুর রহমান পনিরের সন্তানসম্ভবা স্ত্রী তানিয়া (২২) ডাঃ হাসিনাতুল ফেরদৌস লোপার তত্ত্বাবধানে ছিলেন। ৪ নভেম্বর সোমবার সকালে তানিয়া ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হলে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই সময় ডাঃ লোপার স্বামী মিলন তালুকদারের পরামর্শে তানিয়াকে সন্ধ্যায় তাদের মালিকানাধীন ইউনাইটেড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে রোগীকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে মিলনের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ডাঃ মুসলিমা আক্তার মৌসুমী অস্ত্রোপচার করলে প্রসূতির গর্ভের সন্তান মারা যায়। ঘটনার পরে অস্ত্রোপচারকৃত প্রসূতির চিকিৎসা না দিয়ে ওই হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক ও নার্স কৌশলে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই প্রসূতি ও মৃত নবজাতককে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। ওই ঘটনায় প্রসূতির স্বামী শাহিনুর রহমান পনির বাদী হয়ে মালিক, ২ চিকিৎসক ও পরিচালকসহ ৪ জনকে স্ব-নামে ও অজ্ঞাতনামা আরও ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!