[bangla_time] | [bangla_day] | [english_date] | [bangla_date]

শেরপুরে বিনা ঘুষে পুলিশে চাকরি পেলেন ৭৩ জন ॥ এসপির প্রতি আবেগাপ্লুত কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

শপথ নিলেন দুর্নীতিতে না জড়ানোর

মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান/জুবাইদুল ইসলাম ॥ সরকারি চাকরি যেন সোনার হরিণ। তাও আবার পুলিশের! মাত্র ১০৩ টাকায় মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে কোন প্রকার ঘুষ ছাড়াই পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পেলেন ৭৩ জন। শেরপুর জেলা পুলিশের আন্তরিকতা ও সদিচ্ছায় স্ব-স্ব অবস্থানে নির্লোভ থেকে আগামী দিনের সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মাণে ওই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। ৯ জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যাচাই-বাছাই শেষে জেলা পুলিশ লাইন্স মাঠে পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএমের সভাপতিত্বে ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ আল-আমিন ও নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বারহাট্টা সার্কেল) মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম স্থানীয় সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা দেন।
জানা যায়, প্রার্থিত পদে প্রায় ২ হাজার চাকরিপ্রত্যাশী অংশ নিলেও লিখিত পরীক্ষায় টিকে মাত্র ২২৬ জন। এর মধ্য থেকে চুলচেরা বিশ্লেষণ করে সম্পূর্ণ মেধারভিত্তিতে চূড়ান্ত করা হয় ৭৩ জনের নাম। এর মধ্যে একজন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীসহ ২৩ জন নারী রয়েছেন। ফলাফল ঘোষণার সাথে সাথে চাকরি পাওয়াদের অনুভূতি প্রকাশ এবং এরপর তাদের দুর্র্নীতিতে না জড়ানোর শপথ বাক্য পাঠ করান পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম। ওইসময় সহকারী পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) জাহাঙ্গীর আলম, ডিআইও-১ আবুল বাশার, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন, ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান, নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের, শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিন, ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বক্কর সিদ্দিকসহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
চাকরি পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় ঝিনাইগাতী উপজেলার বন্ধভাটপাড়া গ্রামের আব্দুল ওয়াহাবের মেয়ে কামরুন্নাহার সুইটি বলেন, ছোট থেকেই আমার বাবা-মার ইচ্ছা ছিল পুলিশ বাহিনীতে ভর্তি করানোর। মাত্র ১০৩ টাকায় চাকরি হওয়ায় আমার বাবা-মার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আগে শুনতাম পুলিশে টাকা ছাড়া নাকি চাকরি হয় না। কিন্তু যোগ্যতা ও মেধার মাধ্যমেই পুলিশের চাকরি হয়, যার প্রমাণ আমি ও আমার সাথে যাদের চাকরি হয়েছে তারা। এজন্য আমি ধন্যবাদ জানাই পুলিশ সুপার মহোদয়কে।
শ্রীবরদী উপজেলার ভেলুয়া ইউনিয়নের শিমুলচুড়া গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে মনিরুজ্জামান তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমি অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারের সন্তান। আমার বাবা স্থানীয় মসজিদের ইমাম। আমরা ৩ ভাই লেখাপড়া করি। পত্র-পত্রিকায় বিনা পয়সায় শুধু মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে পুলিশে চাকরি হবে জেনে এক বুক আশা নিয়ে আবেদন করেছিলাম। শেরপুরের সৎ ও যোগ্য পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীমের স্বচ্ছতা ও দরিদ্র মানুষের প্রতি ভালোবাসার সুফলস্বরূপ আমাদের মতো হতদরিদ্র পরিবারের সন্তানদের মাত্র ১০৩ টাকায় পুলিশে চাকরি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমার মা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে ইট ভাঙার কাজ করে ৩ হাজার টাকা রোজগার করে পরীক্ষার ফরম ফিলাপের টাকা দিয়েছিলেন। আজ আমার মায়ের সেই পরিশ্রম স্বার্থক হয়েছে। ওইসময় তার কান্নাজড়িত কণ্ঠে ওইসব বর্ণনা শুনে উপস্থিত সকল চাকরিপ্রার্থী, পুলিশ প্রশাসনের লোকজনসহ সাংবাদিক মহল আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। সামিয়া জুই, জান্নাতুল মাওয়া রাত্রি, আসমা আক্তার, আনোয়ার হোসেন, সাব্বির হোসাইন, রুবেল মিয়াসহ আরও কয়েকজন কান্নাজড়িত কণ্ঠে তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন এবং পুলিশ সুপারকে ধন্যবাদ জানান।
চাকরি পাওয়া সাদিয়া খানমের বাবা আবু সাইদ বলেন, মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে পুলিশের বিতরণকৃত লিফলেট ও পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছিলাম এবার বিনা পয়সায় পুলিশে চাকরি হবে। কিন্তু বিশ্বাস হয়নি। আমার শতবর্ষী বাবাও জুমার নামাজে মসজিদে গেলে খুতবার আগে একজন পুলিশ অফিসার বিনা পয়সায় যোগ্যতার ভিত্তিতে পুলিশে চাকরি হবে বলে বক্তব্য দেন। ওই বক্তব্য শুনে আমার বাবা সাদিয়াকে আবেদন করতে বলেন। যা আজ বাস্তব হয়ে ধরা দিয়েছে। বিনা পয়সায় মাত্র ১০৩ টাকায় চাকরি হয়েছে আমার মেয়ের। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ পুলিশ প্রশাসনের সকলকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।
পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম বলেন, চাকরি পাওয়া ছেলে-মেয়েদের অভিব্যক্তি শুনে আমি বিমোহিত হয়েছি। যারা চাকরি পেয়েছে তাদের অধিকাংশই কৃষক ও হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান। কারোর করুণা বা দয়ায় নয়, প্রকৃত মেধাবীরাই সুযোগ পেয়েছে চাকরিতে। তিনি বলেন, সরকারসহ পুলিশের সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্তাব্যক্তিদের নির্দেশনাতেই শেরপুরে পুলিশ নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছতার সাথে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। যা কিছু সুন্দর, যা কিছু ভালো শেরপুর জেলা পুলিশ তা সবসময় করে থাকে। সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মাণে এ ধারা আগামীতেও অব্যাহত রাখতে চাই।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» মোহাম্মদ রবিউল আলম (টুকু)’র পদ্য ‘হায় রে পিঁয়াজ!’

» মইনুল হোসেন প্লাবন’র পদ্য ‘অনন্য পৃথিবী’

» ওষুধের মতো কাজ করে যেসব শাক-সবজি

» সুরের পাখি ‘রুনা লায়লা’র ৬৭তম জন্মদিন আজ

» চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে নিহত ৭

» বিপিএলের নিলাম আজ সন্ধ্যায় : প্লেয়ার্স ড্রাফটে ২১ দেশের ৪৩৯ ক্রিকেটার

» বিপিএলের নিলামে জার্মানির ক্রিকেটার!

» সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধাদের অবসরের বয়স ৬০

» নতুন সড়ক পরিবহন আইন আজ থেকে কার্যকর : কাদের

» শ্রীলংকার নয়া প্রেসিডেন্ট রাজাপাকসে

» শেরপুরে সাবেক ফারমার্স ব্যাংকের কর্মকর্তাদের দুর্নীতির প্রতিবাদে ঋণগ্রহীতাদের সংবাদ সম্মেলন

» মিসর থেকে কার্গো বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান আসছে মঙ্গলবার

» প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু

» ঢাকাস্থ ‘শেরপুর জেলা সমিতি’র নয়া সভাপতি নজরুল, মহাসচিব রাজ্জাক

» মওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

কারিগরি সহযোগিতায় BD iT Zone

,

শেরপুরে বিনা ঘুষে পুলিশে চাকরি পেলেন ৭৩ জন ॥ এসপির প্রতি আবেগাপ্লুত কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

শপথ নিলেন দুর্নীতিতে না জড়ানোর

মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান/জুবাইদুল ইসলাম ॥ সরকারি চাকরি যেন সোনার হরিণ। তাও আবার পুলিশের! মাত্র ১০৩ টাকায় মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে কোন প্রকার ঘুষ ছাড়াই পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পেলেন ৭৩ জন। শেরপুর জেলা পুলিশের আন্তরিকতা ও সদিচ্ছায় স্ব-স্ব অবস্থানে নির্লোভ থেকে আগামী দিনের সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মাণে ওই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। ৯ জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যাচাই-বাছাই শেষে জেলা পুলিশ লাইন্স মাঠে পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএমের সভাপতিত্বে ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ আল-আমিন ও নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বারহাট্টা সার্কেল) মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম স্থানীয় সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা দেন।
জানা যায়, প্রার্থিত পদে প্রায় ২ হাজার চাকরিপ্রত্যাশী অংশ নিলেও লিখিত পরীক্ষায় টিকে মাত্র ২২৬ জন। এর মধ্য থেকে চুলচেরা বিশ্লেষণ করে সম্পূর্ণ মেধারভিত্তিতে চূড়ান্ত করা হয় ৭৩ জনের নাম। এর মধ্যে একজন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীসহ ২৩ জন নারী রয়েছেন। ফলাফল ঘোষণার সাথে সাথে চাকরি পাওয়াদের অনুভূতি প্রকাশ এবং এরপর তাদের দুর্র্নীতিতে না জড়ানোর শপথ বাক্য পাঠ করান পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম। ওইসময় সহকারী পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) জাহাঙ্গীর আলম, ডিআইও-১ আবুল বাশার, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন, ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান, নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের, শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিন, ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বক্কর সিদ্দিকসহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
চাকরি পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় ঝিনাইগাতী উপজেলার বন্ধভাটপাড়া গ্রামের আব্দুল ওয়াহাবের মেয়ে কামরুন্নাহার সুইটি বলেন, ছোট থেকেই আমার বাবা-মার ইচ্ছা ছিল পুলিশ বাহিনীতে ভর্তি করানোর। মাত্র ১০৩ টাকায় চাকরি হওয়ায় আমার বাবা-মার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আগে শুনতাম পুলিশে টাকা ছাড়া নাকি চাকরি হয় না। কিন্তু যোগ্যতা ও মেধার মাধ্যমেই পুলিশের চাকরি হয়, যার প্রমাণ আমি ও আমার সাথে যাদের চাকরি হয়েছে তারা। এজন্য আমি ধন্যবাদ জানাই পুলিশ সুপার মহোদয়কে।
শ্রীবরদী উপজেলার ভেলুয়া ইউনিয়নের শিমুলচুড়া গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে মনিরুজ্জামান তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমি অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারের সন্তান। আমার বাবা স্থানীয় মসজিদের ইমাম। আমরা ৩ ভাই লেখাপড়া করি। পত্র-পত্রিকায় বিনা পয়সায় শুধু মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে পুলিশে চাকরি হবে জেনে এক বুক আশা নিয়ে আবেদন করেছিলাম। শেরপুরের সৎ ও যোগ্য পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীমের স্বচ্ছতা ও দরিদ্র মানুষের প্রতি ভালোবাসার সুফলস্বরূপ আমাদের মতো হতদরিদ্র পরিবারের সন্তানদের মাত্র ১০৩ টাকায় পুলিশে চাকরি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমার মা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে ইট ভাঙার কাজ করে ৩ হাজার টাকা রোজগার করে পরীক্ষার ফরম ফিলাপের টাকা দিয়েছিলেন। আজ আমার মায়ের সেই পরিশ্রম স্বার্থক হয়েছে। ওইসময় তার কান্নাজড়িত কণ্ঠে ওইসব বর্ণনা শুনে উপস্থিত সকল চাকরিপ্রার্থী, পুলিশ প্রশাসনের লোকজনসহ সাংবাদিক মহল আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। সামিয়া জুই, জান্নাতুল মাওয়া রাত্রি, আসমা আক্তার, আনোয়ার হোসেন, সাব্বির হোসাইন, রুবেল মিয়াসহ আরও কয়েকজন কান্নাজড়িত কণ্ঠে তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন এবং পুলিশ সুপারকে ধন্যবাদ জানান।
চাকরি পাওয়া সাদিয়া খানমের বাবা আবু সাইদ বলেন, মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে পুলিশের বিতরণকৃত লিফলেট ও পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছিলাম এবার বিনা পয়সায় পুলিশে চাকরি হবে। কিন্তু বিশ্বাস হয়নি। আমার শতবর্ষী বাবাও জুমার নামাজে মসজিদে গেলে খুতবার আগে একজন পুলিশ অফিসার বিনা পয়সায় যোগ্যতার ভিত্তিতে পুলিশে চাকরি হবে বলে বক্তব্য দেন। ওই বক্তব্য শুনে আমার বাবা সাদিয়াকে আবেদন করতে বলেন। যা আজ বাস্তব হয়ে ধরা দিয়েছে। বিনা পয়সায় মাত্র ১০৩ টাকায় চাকরি হয়েছে আমার মেয়ের। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ পুলিশ প্রশাসনের সকলকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।
পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম বলেন, চাকরি পাওয়া ছেলে-মেয়েদের অভিব্যক্তি শুনে আমি বিমোহিত হয়েছি। যারা চাকরি পেয়েছে তাদের অধিকাংশই কৃষক ও হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান। কারোর করুণা বা দয়ায় নয়, প্রকৃত মেধাবীরাই সুযোগ পেয়েছে চাকরিতে। তিনি বলেন, সরকারসহ পুলিশের সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্তাব্যক্তিদের নির্দেশনাতেই শেরপুরে পুলিশ নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছতার সাথে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। যা কিছু সুন্দর, যা কিছু ভালো শেরপুর জেলা পুলিশ তা সবসময় করে থাকে। সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মাণে এ ধারা আগামীতেও অব্যাহত রাখতে চাই।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

কারিগরি সহযোগিতায় BD iT Zone

error: Content is protected !!