বিকাল ৩:৪২ | রবিবার | ৩১শে মে, ২০২০ ইং | ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে ফৌজিয়া-মতিন স্কুলের ছাত্রীনিবাস থেকে ছাত্রীর লাশ উদ্ধার ॥ পরিবারের দাবি হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরে এক ছাত্রীনিবাস থেকে আনুশকা আয়াত বন্ধন (১৪) নামে নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ৬ জুলাই শনিবার দুপুরে শহরের সজবরখিলা এলাকার ফৌজিয়া মতিন পাবলিক স্কুলের ছাত্রীনিবাস থেকে ওই লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বন্ধন শ্রীবরদী উপজেলার পূর্ব ছনকান্দা গ্রামের ওমান প্রবাসী আনোয়ার জাহিদ বাবু মৃধার মেয়ে। এদিকে নিহতের স্বজনদের দাবি, বন্ধনকে হত্যা করা হয়েছে। অন্যদিকে পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন, বিষয়টি আত্মহত্যা না অন্য কিছু, তা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট ছাড়া বলা যাচ্ছে না। তবে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, বন্ধন শহরের সজবরখিলা এলাকাস্থ বেসরকারি ফৌজিয়া মতিন পাবলিক স্কুলের ছাত্রীনিবাসে থেকে নবম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছিল। শনিবার সকালে বন্ধনকে নিজ কক্ষে ওড়না পেচিয়ে ঝুলে থাকতে দেখে এক ছাত্রী চিৎকার দিলে স্কুল কর্তৃপক্ষ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরে কর্তব্যরত চিকৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে ওই ঘটনাটিকে আত্মহত্যা বলে মানতে নারাজ পরিবার। তাদের দাবি, কেউ হয়ত তাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে। ওই ঘটনার ওই ছাত্রীর পরিবারসহ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী-অভিভাবক ও প্রতিবেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বিকেলে পুলিশ সুপারসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে স্কুলছাত্রীর লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের ফলাফল সম্পর্কে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চিকিৎসকদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
ঘটনার বিষয়ে ফৌজিয়া মতিন পাবলিক স্কুলের পরিচালক আবু ত্বাহা সাদী সাংবাদিকদের জানান, বন্ধন স্কুলের ছাত্রীনিবাসের দোতলায় থাকতো। সকাল ১১টার দিকে তার সাথে একই কক্ষে থাকা এক ছাত্রী বাইরে থেকে কক্ষে গিয়ে তাকে সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না উড়না পেঁচিয়ে ঝুলে থাকতে দেখে চিৎকার দেয়। তিনি তখন নিচতলায় একটি ক্লাসে ছিলেন। চিৎকারের শব্দ শুনে তিনি এবং অন্যান্য শিক্ষক- শিক্ষার্থী ও স্টাফরা দৌড়ে দোতলায় সেই কক্ষে গিয়ে উড়না ছিঁড়ে বন্ধনকে উদ্ধার করে দ্রুত জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। ঘটনাটি কি কারণে তা তিনি এখনও আঁচ করতে পারছেন না। তবে নিহতের বাবা জানান, আমি বন্ধনের সাথে গতকালও (শুক্রবার) দেখা করেছি। সে আত্মহত্যা করতে পারে এমন কোনো কারণ দেখছি না। আমার বিশ্বাস, তাকে কেউ হত্যা করে তার লাশ ঝুলিয়ে রাখতে পারে। তিনি ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন। একই কথা জানান বন্ধনের ফুপু শ্রীবরদী উপজেলা আনসার ভিডিপির সহকারী কর্মকর্তা রওশন আরা বেগম।
এ ব্যাপারে শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ওই স্কুলছাত্রীর গলায় মোটা দাগ পাওয়া গেছে। স্কুলছাত্রীর পরিবার ঘটনাটিকে হত্যা বলে দাবি করছে এবং ওই বিষয়ে মামলা দিতে থানায় এসেছেন। তবে প্রকৃতই তা হত্যা না আত্মহত্যা তা এখনও বলা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্ত রিপোর্টেই তা পরিস্কার হবে।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ময়মনসিংহ বোর্ডে এসএসসিতে পাসের হার ৮০.১৩ শতাংশ ॥ পাসের হারে এগিয়ে শেরপুর

» সারাদেশে ভার্চুয়াল আদালতে শুনানী চলবে ১৫ জুন পর্যন্ত

» টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত রাখার সুপারিশ সাঙ্গাকারার

» নৌপথে যাত্রী পারাপার শুরু

» সৌদি আরবে মাস্ক না পরলে জরিমানা, আজ থেকে খুলছে মসজিদ

» এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস ৮২.৮৭%, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩৫৮৯৮

» শেরপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ঢাকাফেরত বৃদ্ধের মৃত্যু ॥ নমুনা সংগ্রহ

» এফবিসিসিআই সভাপতির দেয়া সুরক্ষা সামগ্রী মমেক মাইক্রোয়োলজি বিভাগে হস্তান্তর

» করোনা জয় করলেন নকলা ইউএনও অফিসের নৈশ প্রহরী

» ভার্চুয়াল কোর্ট পরিচালনায় জটিলতা-সাফল্য ॥ প্রেক্ষিত শেরপুর সিজেএম মডেল

» ‘ভার্চুয়াল কোর্ট : সম্ভাবনা ও প্রায়োগিক সমস্যা’ শীর্ষক অনলাইন টকশো অনুষ্ঠিত

» শেরপুরে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান পেল ৩ হাজার ৪ মসজিদ

» অনলাইন নিউজ পোর্টাল : নিবন্ধন পেতে থাকতে হবে ৪ যোগ্যতা

» সাবরিনা সাবার শত জনমের প্রেম

» দেশে করোনায় আরও ২৮ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৭৬৪ জন

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  বিকাল ৩:৪২ | রবিবার | ৩১শে মে, ২০২০ ইং | ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে ফৌজিয়া-মতিন স্কুলের ছাত্রীনিবাস থেকে ছাত্রীর লাশ উদ্ধার ॥ পরিবারের দাবি হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরে এক ছাত্রীনিবাস থেকে আনুশকা আয়াত বন্ধন (১৪) নামে নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ৬ জুলাই শনিবার দুপুরে শহরের সজবরখিলা এলাকার ফৌজিয়া মতিন পাবলিক স্কুলের ছাত্রীনিবাস থেকে ওই লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বন্ধন শ্রীবরদী উপজেলার পূর্ব ছনকান্দা গ্রামের ওমান প্রবাসী আনোয়ার জাহিদ বাবু মৃধার মেয়ে। এদিকে নিহতের স্বজনদের দাবি, বন্ধনকে হত্যা করা হয়েছে। অন্যদিকে পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন, বিষয়টি আত্মহত্যা না অন্য কিছু, তা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট ছাড়া বলা যাচ্ছে না। তবে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, বন্ধন শহরের সজবরখিলা এলাকাস্থ বেসরকারি ফৌজিয়া মতিন পাবলিক স্কুলের ছাত্রীনিবাসে থেকে নবম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছিল। শনিবার সকালে বন্ধনকে নিজ কক্ষে ওড়না পেচিয়ে ঝুলে থাকতে দেখে এক ছাত্রী চিৎকার দিলে স্কুল কর্তৃপক্ষ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরে কর্তব্যরত চিকৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে ওই ঘটনাটিকে আত্মহত্যা বলে মানতে নারাজ পরিবার। তাদের দাবি, কেউ হয়ত তাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে। ওই ঘটনার ওই ছাত্রীর পরিবারসহ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী-অভিভাবক ও প্রতিবেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বিকেলে পুলিশ সুপারসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে স্কুলছাত্রীর লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের ফলাফল সম্পর্কে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চিকিৎসকদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
ঘটনার বিষয়ে ফৌজিয়া মতিন পাবলিক স্কুলের পরিচালক আবু ত্বাহা সাদী সাংবাদিকদের জানান, বন্ধন স্কুলের ছাত্রীনিবাসের দোতলায় থাকতো। সকাল ১১টার দিকে তার সাথে একই কক্ষে থাকা এক ছাত্রী বাইরে থেকে কক্ষে গিয়ে তাকে সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না উড়না পেঁচিয়ে ঝুলে থাকতে দেখে চিৎকার দেয়। তিনি তখন নিচতলায় একটি ক্লাসে ছিলেন। চিৎকারের শব্দ শুনে তিনি এবং অন্যান্য শিক্ষক- শিক্ষার্থী ও স্টাফরা দৌড়ে দোতলায় সেই কক্ষে গিয়ে উড়না ছিঁড়ে বন্ধনকে উদ্ধার করে দ্রুত জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। ঘটনাটি কি কারণে তা তিনি এখনও আঁচ করতে পারছেন না। তবে নিহতের বাবা জানান, আমি বন্ধনের সাথে গতকালও (শুক্রবার) দেখা করেছি। সে আত্মহত্যা করতে পারে এমন কোনো কারণ দেখছি না। আমার বিশ্বাস, তাকে কেউ হত্যা করে তার লাশ ঝুলিয়ে রাখতে পারে। তিনি ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন। একই কথা জানান বন্ধনের ফুপু শ্রীবরদী উপজেলা আনসার ভিডিপির সহকারী কর্মকর্তা রওশন আরা বেগম।
এ ব্যাপারে শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ওই স্কুলছাত্রীর গলায় মোটা দাগ পাওয়া গেছে। স্কুলছাত্রীর পরিবার ঘটনাটিকে হত্যা বলে দাবি করছে এবং ওই বিষয়ে মামলা দিতে থানায় এসেছেন। তবে প্রকৃতই তা হত্যা না আত্মহত্যা তা এখনও বলা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্ত রিপোর্টেই তা পরিস্কার হবে।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!