রাত ১০:২৫ | রবিবার | ৩১শে মে, ২০২০ ইং | ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে করোনা পরিস্থিতিতে জমে উঠেছে অনলাইন বেচাকেনা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সারাবিশ্বে করোনা ভাইরাসের কারণে প্রায় সকল প্রকার ব্যবসা-বাণিজ্যে ও শিল্প প্রতিষ্ঠানে চলছে স্থবির অবস্থা। বাংলাদেশ এবং দেশের প্রান্তিক জেলা শেরপুরে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অর্থনৈতিক অবস্থা সংকুচিত হয়ে পড়েছে। পুজি হারাচ্ছে শত শত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। মূলধন কমতে শুরু করেছে মধ্যবিত্ত ব্যবসায়ীদের। ওই অবস্থায় কিছুটা হলেও আলোর দিশারি হয়ে কাজ করছে ‘অনলাইন’ বেচাকেনা বা ই-কমার্স ব্যবসা।
জানা যায়, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাস সনাক্তের পর ২৬ মার্চ অফিস, শিল্প, কারখানাসহ সবকিছুতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা দেয় সরকার। গত ৪০ দিনে সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও বেড়ে চলছে করোনা সনাক্তির সংখ্যা। করোনার প্রকোপ কমাতে জেলায় জেলায় চলছে লকডাউন। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে সকল প্রকার অনুষ্ঠান আয়োজন ও জনসমাগম বন্ধ করা হয়েছে। মুসলিম উম্মাহর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মাস মাহে রমজানে নেই জমজমাট ইফতারের বাজার। দোকানপাট, কলকারখানাসহ সবকিছু বন্ধ হওয়ায় ভাটা পড়েছে মানুষের আয় উপার্জনে। কিন্তু প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারে ফলে থেমে নেই তরুণ উদ্যোক্তাদের আয়। কিছু তরুণ উদ্যোক্তা শেরপুরে চালু করেছে, ‘বাজার সদাই’, ‘ইফতার বাজার’ ও ‘আওয়ার শেরপুর’। ‘আওয়ার শেরপুর’ শেরপুরের ব্র্যান্ডিং খ্যাত তুলশীমালা সুগন্ধি চাল বাজারজাতের জন্য জেলা ও জেলার বাইরে অনলাইন অর্ডারের মাধ্যমে ডেলিভারি দেওয়া হচ্ছে। জেলার অর্ডার নিজেরা এবং জেলার বাইরের অর্ডার যাচ্ছে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে।

img-add

শেরপুরের ব্র্যান্ড খ্যাত তুলশীমালা চাউল নিয়ে অনলাইনে কাজ করেন ‘আওয়ার শেরপুর’ স্টার্টআপের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, লকডাউনে শুরুতে কুরিয়ার বন্ধ হয়ে যাওয়া আমাদের ডেলিভারিও বন্ধ হয়ে যায়। ১৬ এপ্রিল কুরিয়ার চালু হওয়ায় পুরোদমে আমাদের অর্ডার ও ডেলিভারি বেড়ে যায়। আমাদের বিক্রির টাকা দিয়ে নিজেদের পরিবার ও কর্মীদের পরিবার চলছে খুব ভালোভাবেই। করোনায় সবকিছু বন্ধ হলেও জীবন যাত্রা ও অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে ইন্টারনেটের সঠিক ব্যবহারের বিকল্প নেই। ইন্টারনেট নির্ভর হতে পারলে ব্যবসা, শিক্ষা, চাকরি সহ সবকিছুতে খরচ ও ভোগান্তি কমে আসবে।
এদিকে জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ‘বাজার-সদাই শেরপুর’ নামে অনলাইন ব্যবসার অন্যতম উদ্যোক্তা ও সাংবাদিক জুবাইদুল ইসলাম বলেন, আমরা করোনা সংকটের কারণে মানুষকে ঘরে রাখতে মাছ-মাংস, চাল-ডাল থেকে তাদের সকল প্রকার বাজার-সদাই খুচরা বাজার দরেই ঘরে পৌছে দেয়ার জন্য চালু করলেও লাভের হিসেবটা দেখছি না। আমাদের চিন্তা হলো, ভালো সার্ভিস ও ভালো মানের পণ্য পৌছে দেয়ার মাধ্যমে আগামিতে বিশেষ করে করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতি কেটে গেলে এ ব্যবসা আমরা লাভের মুখ দেখতো পাবো। আপাতত লাভের চেয়ে মানুষের সেবার দিকটাই দেখছি।
‘ইফতার বাজারের’ অন্যতম উদ্যোক্তা ও সাংবাদিক ইমরান হাসান রাব্বী জানান, আমরা মূলতঃ জেলা প্রশাসনের সাথে সংযুক্ত হয়ে লকডাউন কার্যকর করতে মানুষকে ঘরে রাখার উদ্দেশ্য নিয়েই ইফতার বাজার এ কার্যক্রম শুরু করি। এখান থেকে প্রতিদিন যা লাভ হয় তা নিজেদের পকেটে না রেখে প্রতিদিন অসহায় মানুষকে ইফতার করাই।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ময়মনসিংহে হাজার ছাড়াল করোনায় আক্রান্ত

» করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে না এলে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে না : শিক্ষামন্ত্রী

» খেটে খাওয়া মানুষের কথা ভাবে না বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

» বাস ভাড়া বাড়লো ৬০ শতাংশ

» ব্যাংকগুলোকে ২ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিচ্ছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী

» ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৪০ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৫৪৫

» এসএসসি ফলাফল ॥ শেরপুরে সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় শীর্ষে

» এসএসসিতে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে এনসিটিএফ শিশু সাংবাদিক তাহিরাহ

» ময়মনসিংহ বোর্ডে এসএসসিতে পাসের হার ৮০.১৩ শতাংশ ॥ পাসের হারে এগিয়ে শেরপুর

» সারাদেশে ভার্চুয়াল আদালতে শুনানী চলবে ১৫ জুন পর্যন্ত

» টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত রাখার সুপারিশ সাঙ্গাকারার

» নৌপথে যাত্রী পারাপার শুরু

» সৌদি আরবে মাস্ক না পরলে জরিমানা, আজ থেকে খুলছে মসজিদ

» এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস ৮২.৮৭%, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩৫৮৯৮

» শেরপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ঢাকাফেরত বৃদ্ধের মৃত্যু ॥ নমুনা সংগ্রহ

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  রাত ১০:২৫ | রবিবার | ৩১শে মে, ২০২০ ইং | ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে করোনা পরিস্থিতিতে জমে উঠেছে অনলাইন বেচাকেনা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সারাবিশ্বে করোনা ভাইরাসের কারণে প্রায় সকল প্রকার ব্যবসা-বাণিজ্যে ও শিল্প প্রতিষ্ঠানে চলছে স্থবির অবস্থা। বাংলাদেশ এবং দেশের প্রান্তিক জেলা শেরপুরে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অর্থনৈতিক অবস্থা সংকুচিত হয়ে পড়েছে। পুজি হারাচ্ছে শত শত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। মূলধন কমতে শুরু করেছে মধ্যবিত্ত ব্যবসায়ীদের। ওই অবস্থায় কিছুটা হলেও আলোর দিশারি হয়ে কাজ করছে ‘অনলাইন’ বেচাকেনা বা ই-কমার্স ব্যবসা।
জানা যায়, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাস সনাক্তের পর ২৬ মার্চ অফিস, শিল্প, কারখানাসহ সবকিছুতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা দেয় সরকার। গত ৪০ দিনে সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও বেড়ে চলছে করোনা সনাক্তির সংখ্যা। করোনার প্রকোপ কমাতে জেলায় জেলায় চলছে লকডাউন। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে সকল প্রকার অনুষ্ঠান আয়োজন ও জনসমাগম বন্ধ করা হয়েছে। মুসলিম উম্মাহর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মাস মাহে রমজানে নেই জমজমাট ইফতারের বাজার। দোকানপাট, কলকারখানাসহ সবকিছু বন্ধ হওয়ায় ভাটা পড়েছে মানুষের আয় উপার্জনে। কিন্তু প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারে ফলে থেমে নেই তরুণ উদ্যোক্তাদের আয়। কিছু তরুণ উদ্যোক্তা শেরপুরে চালু করেছে, ‘বাজার সদাই’, ‘ইফতার বাজার’ ও ‘আওয়ার শেরপুর’। ‘আওয়ার শেরপুর’ শেরপুরের ব্র্যান্ডিং খ্যাত তুলশীমালা সুগন্ধি চাল বাজারজাতের জন্য জেলা ও জেলার বাইরে অনলাইন অর্ডারের মাধ্যমে ডেলিভারি দেওয়া হচ্ছে। জেলার অর্ডার নিজেরা এবং জেলার বাইরের অর্ডার যাচ্ছে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে।

img-add

শেরপুরের ব্র্যান্ড খ্যাত তুলশীমালা চাউল নিয়ে অনলাইনে কাজ করেন ‘আওয়ার শেরপুর’ স্টার্টআপের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, লকডাউনে শুরুতে কুরিয়ার বন্ধ হয়ে যাওয়া আমাদের ডেলিভারিও বন্ধ হয়ে যায়। ১৬ এপ্রিল কুরিয়ার চালু হওয়ায় পুরোদমে আমাদের অর্ডার ও ডেলিভারি বেড়ে যায়। আমাদের বিক্রির টাকা দিয়ে নিজেদের পরিবার ও কর্মীদের পরিবার চলছে খুব ভালোভাবেই। করোনায় সবকিছু বন্ধ হলেও জীবন যাত্রা ও অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে ইন্টারনেটের সঠিক ব্যবহারের বিকল্প নেই। ইন্টারনেট নির্ভর হতে পারলে ব্যবসা, শিক্ষা, চাকরি সহ সবকিছুতে খরচ ও ভোগান্তি কমে আসবে।
এদিকে জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ‘বাজার-সদাই শেরপুর’ নামে অনলাইন ব্যবসার অন্যতম উদ্যোক্তা ও সাংবাদিক জুবাইদুল ইসলাম বলেন, আমরা করোনা সংকটের কারণে মানুষকে ঘরে রাখতে মাছ-মাংস, চাল-ডাল থেকে তাদের সকল প্রকার বাজার-সদাই খুচরা বাজার দরেই ঘরে পৌছে দেয়ার জন্য চালু করলেও লাভের হিসেবটা দেখছি না। আমাদের চিন্তা হলো, ভালো সার্ভিস ও ভালো মানের পণ্য পৌছে দেয়ার মাধ্যমে আগামিতে বিশেষ করে করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতি কেটে গেলে এ ব্যবসা আমরা লাভের মুখ দেখতো পাবো। আপাতত লাভের চেয়ে মানুষের সেবার দিকটাই দেখছি।
‘ইফতার বাজারের’ অন্যতম উদ্যোক্তা ও সাংবাদিক ইমরান হাসান রাব্বী জানান, আমরা মূলতঃ জেলা প্রশাসনের সাথে সংযুক্ত হয়ে লকডাউন কার্যকর করতে মানুষকে ঘরে রাখার উদ্দেশ্য নিয়েই ইফতার বাজার এ কার্যক্রম শুরু করি। এখান থেকে প্রতিদিন যা লাভ হয় তা নিজেদের পকেটে না রেখে প্রতিদিন অসহায় মানুষকে ইফতার করাই।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!